সব ভুল শুধরে দ্বিতীয় ম্যাচে ভয়ঙ্কর রূপে ফিরবে বাংলাদেশ

২৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ-আফগানিস্তান প্রথম একদিনের ম্যাচে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে টাইগাররা। অনেক প্রত্যাশা থাকলেও হারার মুখ থেকে ফিরে জিতেছে ৭ রানে। এদিকে বাংলাদেশের হয়ে এই ম্যাচে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোরার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেছেন, সব ভুল শুধরে পরের ম্যাচে আরো শক্তিশালী হয়ে ফিরবে বাংলাদেশ।

 

Advertisment

অন সাইটে রিয়াদের শট

গতকাল (রবিবার) ম্যাচের লাগাম হাতে নিয়ে জয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলো আফগানরা। কিন্তু অধিনায়ক মাশরাফির শেষের স্পেল ও সাকিবের ৪৭ তম ওভারেই ম্যাচ হেলে পড়ে বাংলাদেশের দিকে। চার ওভারে জয়ের জন্য ২৮ রান লাগতো আফগানিস্তানের। কিন্তু সাকিব সেই ওভারে দিয়েছেন মাত্র ১ রান। এরপর শেষ তিন ওভারে আর প্রয়োজনীয় ২৭ রান তুলতে পারে নি সফরকারীরা। মাশরাফির শেষের স্পেল ও সাকিবের ৪৭ তম ওভারটিকেই ম্যাচের মূল টার্নিং পয়েন্ট মনে করছেন রিয়াদ। তিনি বলেন, “আমার মনে হয় মাশরাফি ভাইয়ের শেষ স্পেলের তিনটি ওভার এবং সাকিবের ৪৭তম ওভারটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সাকিবের ওই ওভার থেকে মাত্র এক রান আসে। তারপর রানরেট নয়ে চলে যায়। এরপর আমাদের বিশ্বাস ছিল রুবেল ও তাসকিনরা যদি ওদের ভালো ডেলিভারিগুলো দিতে পারে ইন শা আল্লাহ আমরা ম্যাচে ফিরতে পারব।”

আফগানদের ৪৬ রানে দুই উইকেটের পতন ঘটলেও এরপর রহমত শাহ ও শাহিদি মিলে ১৪৪ রানের পার্টনারশিপ করে ম্যাচ বাংলাদেশের কাছ থেকে বের করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। তবে রিয়াদের বিশ্বাস ছিলো একটি উইকেট নিতে পারলেই বাংলাদেশ ম্যাচে ফিরবে। এপ্রসঙ্গে রিয়াদ বলেন, “আমার শুধু এতটুকু বিশ্বাস ছিল, ওদের বড় জুটিটাকে বিদায় করতে পারলেই ম্যাচ আমাদের দিকে হেলে পড়বে।”

শুরুতে সৌম্যের বিদায়ের পরেও ইমরুল কায়েসের সাথে ভালো জুটি করে প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দেন তামিম ইকবাল। এরপর রিয়াদের সাথে বড় পার্টনারশিপ করে দলকে বিশাল সংগ্রহের দিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন তামিম। কিন্তু একসময় ৩০০ এর অধিক রান করার সম্ভাবনা তৈরী হলেও শেষ দিকের ব্যাটিং ব্যর্থতায় বাংলাদেশ করে ২৬৫ রান। মাহমুদউল্লাহ’র কন্ঠে বড় স্কোর না করার আক্ষেপ ঝড়লো, “উইকেট খুব ভাল আচরণ করছিল এবং বল খুব সুন্দর ব্যাটে আসছিল। তাই যতটা রান বাড়ানো যায়, সেই চিন্তা থেকে আগ্রাসণ দেখিয়েছিলাম। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সেটা করতে পারিনি। আরেকটু ক্যারি করা উচিত ছিল। সেক্ষেত্রে ২৮০ প্লাস রান অনায়েসে হয়ে যেত।”

প্রায় ১০ মাস থেকে একদিনের ম্যাচ খেলে না টাইগাররা। সেটার চিত্র ফুটে উঠেছে এই ম্যাচে। ক্যাচ মিস ও ফিল্ডিং মিসের মহড়া দেখা যায়। এর আগের বছরে বাংলাদেশের ফিল্ডিং নিয়ে অনেক প্রশংসা হয়েছিলো কিন্তু আফগানিস্তানের সাথে এই ম্যাচে পুরো উল্টো চিত্র দেখা যায়। তবে রিয়াদের বিশ্বাস সব ভুল শুধরে ফিরবে টাইগাররা, “দলের সবাই এই বিষয়টা অনুভব করছে। ভালো ক্রিকেট খেলতে পারলে আমরা হয়তো আরও ভালো ফল করতে পারব। প্রথম ম্যাচের ভুল শুধরে আরও ভালভাবে কি করে পারফর্ম করা যায় সেদিকটায় মনোনিবেশ করব এবং সিরিজটা যাতে পরবর্তী ম্যাচে আমরা নিশ্চিত করতে পারি সেটাই চেষ্টা করব।”

উল্লেখ্য, সিরিজের পরের ম্যাচ ২৮ সেপ্টেম্বর।