SCORE

সর্বশেষ

সমালোচনার জবাব দিলেন সুজন

দেশের ক্রিকেটের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন তিনি। ইতিপূর্বে অনেকবার জাতীয় দলের কোচ হওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করেছিলেন। চন্ডিকা হাথুরুসিংহের অকস্মাৎ বিদায়ে সেই সুযোগটা এসে ধরা দিয়েছে হাতে, যদিও অস্থায়ী এবং পরোক্ষভাবে।

সমালোচনার জবাব দিলেন সুজন

তিনি খালেদ মাহমুদ সুজন। ক্রিকেট মাঠে বিচরণের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাচ্ছেন বিভিন্ন ভূমিকায়। তাকে নিয়ে সমালোচনা কম হয়নি। সোমবার থেকে শুরু হতে যাওয়া ত্রিদেশীয় সিরিজে তিনিই টাইগারদের কোচ; যদিও আছেন টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের পদে। কোচের দায়িত্বটুকু নিয়েই ম্যাচের আগের দিন এলেন সংবাদ সম্মেলনে, জবাব দিলেন বিভিন্ন সমালোচনার।

Also Read - আবহাওয়ার দোলাচলে সন্দেহে আছেন মাশরাফিও!

সুজন বলেন, ‘আমি বোর্ড রুমে ঢুকি, তখন আমি বোর্ড পরিচালক থাকি। আমাকে অন্য যে দায়িত্ব দেয়া হয়, আমি তা চেষ্টা করি ভালোভাবে করতে। পারি বা না পারি, সফল হই বা না হই, সেটা অন্য ব্যাপার। আমি কোনো বিতর্কে যেতে চাই না।’

কোচিংকেই নিজের পেশা হিসেবে আখ্যা দিয়ে বাংলাদেশ দলের সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, ‘আমি মনে করি কোচিং আমার পেশা। আমি এটা উপভোগ করি। ২০০৬ সালে খেলা ছাড়ার চার মাস পর থেকেই আমি কোচিং শুরু করি। অনূর্ধ্ব-১৩ পর্যায় থেকে সব পর্যায়েই আমি কোচিং করিয়েছি। সুতরাং আমার কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা নেই, ব্যাপারটা তা নয়। কিন্তু আমি ভালো কোচ নাকি খারাপ, তা মানুষ বলবে। কিন্তু কোচিং করানোটাই আমার সবচেয়ে বড় দায়িত্ব।’

ক্রিকেট নিয়ে তার অভিজ্ঞতা যে কম নয়, সেটিও মনে করিয়ে দিলেন সুজন। সাথে এও জানালেন, ক্রিকেটই যে তার সবকিছু, ‘আমি টিম ম্যানেজার ছিলাম, তখন এটাকেই লাভবান মনে করা হয়েছিল। আমি জানি না, সেটা কতটা হয়েছিল। আমার যেহেতু আন্তর্জাতিক অভিজ্ঞতা কিছুটা হলেও আছে, যেহেতু আমি বাংলাদেশ দলে খেলেছি… অধিনায়কও ছিলাম এক সময়। সুতরাং কিছু অভিজ্ঞতা ছিলই। কিন্তু আমি যখন ৮৩ বা ৮৪ সালের দিকে ক্যারিয়ার শুরু করি, তখন থেকে একটা দিনের জন্যও আমি ক্রিকেটের বাইরে থাকিনি। ক্রিকেটই আমার সব কিছু। ক্রিকেটই আমার জীবিকা। ক্রিকেট ছাড়া নিঃশ্বাস নেওয়াই কঠিন।’

আরও পড়ুনঃ শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের দ্রুততম ১০০ ওয়ানডের রেকর্ড

Related Articles

ক্রিকেটের স্বার্থে জেলা লিগে মনোযোগ বিসিবির

এবার দলের সঙ্গে থাকছেন না সুজন

মানসিকভাবে পিছিয়ে বাংলাদেশ!

মুস্তাফিজকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

‘র‍্যাঙ্কিং নয়, সিরিজ জয় নিয়েই ভাবনা’