সহ-অধিনায়ক থাকলে হয়ত ভালো হত : সাকিব

আইসিসির পাওয়া নিষেধাজ্ঞায় সাকিব আল হাসান দলছুট হলে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের কাঁধে টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব তুলে দিয়েছিল বিসিবি। সেই রিয়াদই বাংলাদেশকে সপ্তম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নেতৃত্ব দেবেন। বিশ্বকাপের দল ঘোষণা ইতোমধ্যে হয়ে গেছে। তবে দলে নেই কোনো সহ-অধিনায়ক।

দলকে চাঙ্গা রাখার জন্য সাকিবকে অনুরোধ করেছিলেন রিয়াদ

Advertisment

সিদ্ধান্ত গ্রহণে অধিনায়ককে সহায়তা ও অধিনায়কের অনুপস্থিতিতে দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার কাজ পালন করেন সহ-অধিনায়ক। সাকিব মনে করেন, প্রথা অনুযায়ী বাংলাদেশ দলে সহ-অধিনায়ক থাকলে ভালোই হত। তবে দলে নেতৃত্ব গুণাবলীসম্পন্ন ক্রিকেটার থাকায় সহ-অধিনায়কের অনুপস্থিতিকে বড় করে দেখতে নারাজ তিনি।

সাকিব বলেন, ‘যেহেতু এটা একটা প্রথা, হয়ত (সহ-অধিনায়ক) থাকলে ভালো হতো। নেই বলে যে খুব একটা সমস্যা, সেটা আমার কাছে কখনই মনে হয় না। স্বাভাবিকভাবেই দলে পাঁচ-ছয়জন আছে যারা লিডারশিপ গ্রুপের পার্ট, আমি মনে করি। তারা সবাই মিলেই যেকোনো ক্রাইসিস মোমেন্ট বা যেকোনো কঠিন পরিস্থিতিতে সিদ্ধান্ত নিতে পারে। সিদ্ধান্তগুলো সবার আলোচনার মাধ্যমেই হয়।’

সাকিব তাই মনে করছেন, বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সহ-অধিনায়ক না থাকাতে খুব একটা সমস্যায় পড়বে না দল। তবুও তার চাওয়া, প্রথা মেনে দলে রাখা হোক সহ-অধিনায়ক।

সাকিব বলেন, ‘খুব একটা সমস্যা হয় বলে আমার মনে হয় না। যখন কোনো সহ-অধিনায়ক থাকে, তখন যে খুব একটা বড় ভূমিকা পালন করতে হয় তাও না। তবে যেহেতু এটা একটা প্রথা ক্রিকেটের, সেদিক থেকে থাকতেই পারে।’

শুধু টি-টোয়েন্টি নয়, বাংলাদেশের ওয়ানডে ও টেস্ট দলেও এখন নেই কোনো সহ-অধিনায়ক। ওয়ানডেতে তামিম ইকবাল ও টেস্টে মুমিনুল হক অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।