Scores

ভারতের বিপক্ষে খেলবেন তো সাইফউদ্দিন?

মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন আসন্ন ভারত সফরের টি-টোয়েন্টি সিরিজের স্কোয়াডে থাকলেও খেলার বিষয়টি নির্ভর করছে তার উপরই। তরুণ এই অলরাউন্ডারের পিঠের চোট কদিন ধরে বেশিই ভোগাচ্ছে, বিলম্ব হচ্ছে চিকিৎসাপ্রক্রিয়াও।

সাইফউদ্দিন ভারতের বিপক্ষে খেলবেন তো

সাইফউদ্দিনের এই চোট বহু আগে থেকেই। ব্যথানাশক নিয়ে খেলে সুনাম কুড়িয়েছেন ঠিকই, তবে চোটের অবস্থা আরও নাজুক হয়েছে। এরই মাঝে নির্বাচকরা ভারত সফরের টি-টোয়েন্টি দলে ডেকেছেন তাকে।

Also Read - বিপিএলের কোচের তালিকায় রোডস-জোনস, নেই মুডির নাম






তবে সাইফউদ্দিনের না খেলার সম্ভাবনাও আছে। সাম্প্রতিক সময়ে পুরোদমে খেলার মাঠে নেই। স্বভাবতই হতাশাও গ্রাস করেছে। সাইফউদ্দিনের যে চোট, তা সারানোর জন্য অস্ত্রোপচারও যথেষ্ট নয়। ক্রিকেট বোর্ডের মেডিকেল টিম সাফ জানিয়েছে- যে ‘ব্যাক পেইনে’ ভুগছেন তার চিকিৎসা শুধুমাত্র বিশ্রাম আর রিহ্যাব। দীর্ঘ সময় বিশ্রামে থেকে পুনর্বাসন প্রক্রিয়া চালাতে হবে বিরতিহীনভাবে। সেটা কমপক্ষে চার মাসও হতে পারে, তবে তাতেও সেরে উঠবেন কি না তা বলা মুশকিল!

গণমাধ্যমে সার্জারি বা অস্ত্রোপচারের যে কথা উঠে এসেছে বারবার, সেটিও সঠিক নয়। বায়োমেকানিক্যাল পরীক্ষা করালে জানা যেতে পারে চোটের অবস্থা। কিন্তু সুরাহা হবে কীসে- সেটার কোনো সদুত্তর এখনো পাওয়া যায়নি বিদেশী বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে! ইংল্যান্ডের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের কাছে সাইফউদ্দিনের যেসব রিপোর্ট পাঠানো হয়েছে, সেগুলোর কোনো ফিরতি জবাব এখনো আসেনি।






সাইফউদ্দিন অবশ্য মোটেও চাইছেন না খেলার বাইরে থাকতে। তিনি খেলতে চান। তবে সেটি চোট নিয়ন্ত্রণে এনে, সংশ্লিষ্ট সবার সাথে পরামর্শ করেই। বিসিবি সূত্র বলছে- সাইফউদ্দিনকে ‘ম্যানেজ করে’ই খেলতে হবে। বোর্ডের মেডিকেল টিম সাইফউদ্দিনের ব্যাপারে রবিবার (২০ অক্টোবর) নিজেদের মধ্যে বৈঠক করে, সঙ্গে ছিলেন ফিজিও। সাইফউদ্দিন এভাবেই খেলবেন কিনা, সে ব্যাপারে চুড়ান্ত সিদ্ধান্তে আসতে সোমবার (২১ অক্টোবর) নির্বাচকদের সঙ্গে বসা হবে। ভারত সিরিজের সবগুলো ম্যাচ খেলতে গেলে ‘ওয়ার্কলোড’ বেড়ে যাবে। এতে হতে পারে ‘হিতে বিপরীত’, অর্থাৎ নতুন কোনো চোট! সেক্ষেত্রে ভারতের পেসার হার্দিক পান্ডিয়ার মতো অবস্থা হয়ে যেতে পারে, যখন জটিল সাজার্রি ছাড়া আর কোনো উপায় থাকবে না। বোলিং অ্যাকশন পাল্টানোর বাধ্যবাধকতাটা থাকতে পারে তখনো।

সাইফউদ্দিন ভারতের বিপক্ষে খেলবেন তো

অর্থাৎ সাইফউদ্দিনকেই বুঝতে হবে নিজের ভবিষ্যতের বিষয়টি। বোর্ড তাকে জোর করে কোনো সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দিতে নারাজ।জাতীয় দলে না খেললে আর্থিক ক্ষতিরও সম্মুখীন হতে হয় একজন ক্রিকেটারকে। আর জাতীয় দলে পোক্ত হওয়া জায়গা ছেড়ে দিলে সেটা আবারো ফিরে পাওয়াও দুঃসাধ্য।

তাই সাইফউদ্দিনের ভারত সফরে যাওয়ার বিষয়টি পুরোপুরি তার উপরই নির্ভর করছে। বিসিবি চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরীর ভাষ্য অনুযায়ী, সাইফের এই চোট পুরোপুরি সারিয়ে তোলা সহজ নয়। এমনকি অস্ত্রোপচারেও লাভ হবে না। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপারটি হল- তাকে থাকতে হবে পূর্ণাঙ্গ বিশ্রামে। তবে সাইফউদ্দিন চাইলে তাকে দলে নিতে যেমনি আপত্তি নেই বোর্ডের, তেমনি চাইলে সাইফউদ্দিন খেলার অপারগতাও প্রকাশ করতে পারেন। চোটগ্রস্ত ক্রিকেটারের জন্য এই ‘অধিকার’টুকু রাখছে বোর্ড!

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

Related Articles

সতীর্থরা খেলায় ব্যস্ত, মাঠের বাইরে তানজিম সাকিব

আজ থেকে আবারো বায়োবাবলে ক্রিকেটাররা

যেভাবে সাজানো হল বিসিবির ‘বায়ো-সেফটি বাবল’

মাঠে ফিরতে ক্রিকেটারদের ‘এন্টিবডি টেস্ট’ বাধ্যতামূলক!

এ সপ্তাহেই ইংল্যান্ড যাচ্ছেন সাইফউদ্দিন