সাইফের সেঞ্চুরির পর শামীম ঝড়, বাংলাদেশের রোমাঞ্চকর জয়

0
1026

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে সাইফ হাসানের সেঞ্চুরির পর তৌহিদ হৃদয় এবং শামীমের ব্যাটিং নৈপুণ্যে ৬ উইকেটের জয়ের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশ ইমার্জিং দল। এর ফলে ৫ ম্যাচ সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল স্বাগতিকরা।

Advertisment

রান তারা করতে নেমে, দ্বিতীয় ম্যাচের মতো তৃতীয় ওয়ানডেতেও উদ্বোধনী জুটিতে বাংলাদেশকে ভালো সূচনা এনে দেন দলের দুই ওপেনার সাইফ হাসান ও তানজিদ হাসান তামিম। আইরিশদের দেওয়া লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই আগ্রাসী ব্যাটিং করেন দলের অধিনায়ক সাইফ। অন্যপাশে বেশ দেখেশুনেই খেলছিলেন তানজিদ হাসান।

তবে ভালো শুরু এনে দিয়েও উদ্বোধনী জুটি বড় হয়নি বাংলাদেশের। সাইফ-তানজিদের ৪৪ রানের জুটি ভাঙেন প্রিটোরিয়াস। দলীয় ৪৪ রানে প্রিটোরিয়াসের বলে এলবিডব্লুর ফাঁদে পড়েন তামিম। সাজঘরে ফেরার আগে ২৮ বলে ১৭ রানের ইনিংস খেলেন এ ওপেনার। তানজিদ আউট হলেও আগ্রাসী ব্যাটিংটাই করেন সাইফ।

অন্যপাশ থেকে সাইফকে বেশ ভালোভাবেই সঙ্গ দিচ্ছেন মাহমুদুল হাসান। তবে জয় ইনিংস শুরু করে ধীর গতিতেই। তবে সাইফ বেশ আগ্রাসীই ছিলেন। মাত্র ৪৩ বলে ফিফটি হাঁকান এ ব্যাটসম্যান। সাইফের ফিফটির পরই সাজঘরে ফিরেন ২৯ বলে ১৬ রান করা মাহমুদুল হাসান জয়। ডেলানির বলে এলবিডব্লুর শিকার হন তিনি।

৯৬ রানে দুই উইকেট পড়লে ইয়াসিরকে সঙ্গে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান সাইফ। তবে এ দুই জনের জুটি বেশিক্ষণ টিকেনি। দলীয় স্কোরে ৩১ রান যোগ করতেই চেজের বলে বোল্ড হন ১৩ রান করা ইয়াসির। তবে ঠিকই সেঞ্চুরির পথে এগোতে থাকেন সাইফ। সেই সাথে ইয়াসিরের বিদায়ের পর তৌহিদকে সঙ্গে নিয়ে ধীরে ধীরে বলের সাথে রানের ব্যবধানও কমিয়ে আনতে থাকেন সাইফ।

কাঙ্খিত সেই সেঞ্চুরিটি আসে ৩৬তম ওভারে। ওই ওভারে গ্যারেথ ডেলানির প্রথম দুই বলে ১০ রান দিয়ে শতক পূর্ণ করেন সাইফ। শতক হাঁকানোর পরই ফের আগ্রাসী ব্যাটিং করতে দেখা যায় সাইফকে। তবে তাকে থামতে হয় ব্যক্তিগত ১২০ রানে। ডেলানির করা বলে টাকারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন সাইফ। তবে ততক্ষণে জয়ের কাজটা সহজ হয়ে গিয়েছিল তৌহিদ, শামীমের জন্য।

বাংলাদেশের জয়ের কাজটা আরও সহজ করে দেন শামীম। ব্যাট করতে নেমে আক্রমণাত্মক খেলে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন শামীম। এদিনও আগ্রাসী ব্যাটিং করেন তিনি। শেষদিকে ৩০ বলে ৬ রানের প্রয়োজন হলে চেজের করা ওভারে তৃতীয় বলে চার মেরে ৬ উইকেট হাতে রেখেই দলকে জয় এনে দেন শামীম। ৪৪ বলে ৪৩ করে অপরাজিত থাকেন হৃদয় এবং ২৫ বলে ৪৪ রান করে অপরাজিত থাকেন শামীম।

এই জয়ে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

আয়ারল্যান্ড ২৬০-৭ (ওভার ৫০)

টাকার ৮২*, ক্যাম্পফার ৪৩: মুকিদুল ৩-৫৩

বাংলাদেশ -৪ (ওভার ৪৫.)

সাইফ ১২০, তৌহিদ হৃদয় ৪৩*, শামীম ৪৪* : ডেলানি ২-৫২