সাকিবের বিতর্কিত কাণ্ডের পর ডিপিএল বন্ধের ভাবনা এসেছিল পাপনের

আম্পায়ারিং নিয়ে সাকিব আল হাসান ক্ষোভ প্রকাশের পর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল) বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বিষয়টি জানিয়েছেন তিনি নিজেই। 

আম্পায়ারের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে দুইবার স্ট্যাম্প ভাঙলেন সাকিব
আম্পায়াররা বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ ঘোষণা করলে হাত দিয়ে স্ট্যাম্প উপড়ে ফেলেন সাকিব।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) বিসিবির বোর্ড সভা শেষে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে পাপন জানান, ‘ডিপিএলে কখনও আম্পায়ারিং নিয়ে কোনো অভিযোগ আসেনি, কিন্তু এবার একটা ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনার পর আমি চেয়েছিলাম টুর্নামেন্ট বন্ধ হয়ে যাক।’

Advertisment

তিনি জানান, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে তার নামকরণে টুর্নামেন্ট আয়োজিত বলে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন তিনি।

এ সময় বোর্ড সভাপতি জানান, ডিপিএলের আম্পায়ারিং নিয়ে অংশগ্রহণকারী ১২ দলের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। গত ২-৩ দিন তদন্তের পর বিসিবিকে এমনই প্রতিবেদন দিয়েছে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি।

গত শুক্রবার (১১ জুন) ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) সপ্তম রাউন্ডের খেলায় মুখোমুখি হয় আবাহনী লিমিটেড ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। ম্যাচ চলাকালে আম্পায়ারের ওপর মেজাজ হারিয়ে দুইবার স্ট্যাম্প ভেঙে ফেলেন সাকিব। এই ঘটনায় তাকে ৩ ম্যাচ নিষিদ্ধ করার পাশাপাশি ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

তবে সাকিবকে জরিমানা করা হলেও আম্পায়ারিং ইস্যু নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় নড়েচড়ে বসে বিসিবি। এর ধারাবাহিকতায় পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে ডিপিএলের আম্পায়ারিংয়ের মান যাচাই ও অভিযোগ-পরামর্শ শোনার প্রক্রিয়া শুরু হয়।