SCORE

সর্বশেষ

সাকিবের বিষে নীল কলকাতা

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আগের সাত আসরের স্মৃতি জর্জরিত ইডেন গার্ডেনে বিগত আসরের মতো আজও খেলতে নেমেছিলেন সাকিব। তবে এবার কলকাতার প্রতিপক্ষ হয়ে সানরাইজার্সের জার্সি গায়ে। আর এতেই ম্লান কলকাতা!

কলকাতার বিপক্ষে ২১ বলে ২৭ রান করেন সাকিব। ছবিঃ বিসিসিআই
কলকাতার বিপক্ষে ২১ বলে ২৭ রান করেন সাকিব। ছবিঃ বিসিসিআই

ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং তিন বিভাগেই অপ্রতিরোধ্য ছিলেন ৩১ বছর বয়সী বাঁহাতি অলরাউন্ডার। আর এতেই ঘরের মাঠে কলকাতাকে ৫ উইকেটে হারিয়ে চলতি আইপিএলে টানা তৃতীয় জয়ের আনন্দে মাতোয়ারা আইপিএলের সাবেক শিরোপাজয়ী দলটি।

গত সাত আসরে সাকিব আল হাসান খেলেছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে। সময় পরিবর্তনের সাথে এসেছে অনেক কিছুতেই পরিবর্তন। কলকাতা ছেড়ে আইপিএলে এবার সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে মাঠ মাতাচ্ছেন সাকিব। এরই ধারাবাহিকতায় আজ নতুন ঘটনার সাক্ষী হলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

Also Read - মুস্তাফিজদের নতুন সঙ্গী মিলনে

টস জিতে আগে বল করতে আসা হায়দরাবাদের হয়ে নিজের ৪ ওভারের কোটা থেকে ২১ রান খরচায় মূল্যবান দুই উইকেট শিকার করেন সাকিব। গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে মূল্যবান দুই উইকেট হারানোর চাপ থেকে আর বের হতে পারেনি কলকাতা। ঘরের মাঠে স্বল্প পুঁজি ৮ উইকেটে ১৩৮ রানে থামে দলটির ইনিংস।

ইনিংসের সপ্তম ওভারে কেন উইলিয়ামসনের আমন্ত্রণে বল করতে এসেই অন্যরকম কিছুর আভাস দিচ্ছিলেন সাকিব। ঐ ওভারে মাত্র তিন রান খরচ করেন তিনি। এরপর ম্যাচে বাগড়া দেয় বৃষ্টি। প্রতিকূল আবহাওয়ার বিদায়ের পর নিজের দ্বিতীয় ওভারে এসেই উইকেট শিকারের সম্ভাবনা জাগান সাকিব। তবে তা ভেস্তে যায় নবম ওভারের শেষ বলে লং অনে সুনীল নারাইনের ক্যাচ লুফে নিতে মনিশ পান্ডে ব্যর্থ হলে।

এতে আরও ভয়ঙ্কর হয়ে ফিরেন সাকিব। ইনিংসের একাদশতম ওভারে এসেই ছটফট করতে থাকা পুরনো আইপিএল সতীর্থ সুনীল নারাইনকে সাজঘরের পথ ধরান তিনি। এরপর নিজের শেষ ওভারে এসে আবারও সাফল্যের দেখা পান তিনি। অর্ধশতক থেকে ১ রান দূরে থাকা ভয়ঙ্কর ক্রিস লিনকে বধ করেন এবার বাঁহাতি এ স্পিনার। ওভারের দ্বিতীয় বলটি পাঞ্চ করে খেলতে গেলে বোলারের দিকে উড়ে আসে বলটি। আর তা অসাধারণ দক্ষতায় ঝাপিয়ে পড়ে এক হাতে তালুবন্দী করে কলকাতার বড় সংগ্রহের সম্ভাবনায় আঘাত হানেন সাকিব।

নিজের বলে নিজেই অসাধারণ ক্যাচ তালুবন্দী করেন সাকিব।
নিজের বলে নিজেই অসাধারণ ক্যাচ তালুবন্দী করেন সাকিব। ছবিঃ বিসিসিআই

নিজের ৪ ওভারের বোলিং কোটায় ২ উইকেট শিকারের বিপরীতে ২১ রান খরচ করেন তিনি। যার মধ্যে ছিল ১১টি ডট বল। বল হাতে ঝলক দেখানোর পর পারফরম্যান্সের গ্রাফ ধরে রাখেন ব্যাট হাতেও। দলীয় ১১৪ রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে চাওলার বলে আউট হওয়ার আগে ২১ বল খেলে করেন ২৭ রান। রাসেলের তিন বলে পরপর ২ চার ও ১ ছয় হাঁকানোতেই ২৭ রানের কার্যকরী ইনিংসটি সাজান তিনি।

স্কোরকার্ড-


আরও পড়ুনঃ শেষ ওভারের নাটকে আবারও মুম্বাইয়ের হার

Related Articles

ভারতছাড়া হচ্ছে আইপিএল!

বিগ ব্যাশকেও বিদায় বললেন জনসন

দুই বছর বিদেশি লিগে খেলবেন না মুস্তাফিজ

১০০ বলের ফরম্যাটের প্রস্তুতি শুরু করেছে ইংল্যান্ড

আইপিএল খেলে যাবেন ডি ভিলিয়ার্স