‘সাকিব ভুল করেছে, কোনো অপরাধ করেনি’

0
836

সাকিব আল হাসানকে ছাড়াই ভারতের উদ্দেশ্যে উড়াল দিতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। নেতার অনুপস্থিতিতে তার ডেপুটি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে দেয়া হয়েছে টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব। তার প্রত্যয় সঠিকভাবে নিজের দায়িত্ব পালন করে দলকে ভালো কিছু দেয়ার। তবে ভুলতে পারছেন না সাকিবের অভাব।

Advertisment

সাকিবের অনুপস্থিতিতে এর আগেও বেশ কয়েকবার অধিনায়কত্ব করেছেন রিয়াদ। আবারও সাকিবের দায়িত্বটা তুলে নিতে হচ্ছে নিজের কাঁধে। তবে এবারের পটভূমিটা ভিন্ন। আগে চোটের কারণে সাকিব ছিটকে পড়ায় পালন করেছিলেন সেইন দায়িত্ব। কিন্তু এবার পুরোপুরি সুস্থ সাকিবকেও পাচ্ছেন না, নিষেধাজ্ঞার কারণে। এভাবে নেতৃত্ব পেতে হবে তা হয়ত রিয়াদ কখনো ভাবেননি।

অধিনায়কত্ব ও ভারত সফর নিয়ে রিয়াদ বলেন, ‘প্রথম চেষ্টা করব এখন আমার দায়িত্বটা ভালোভাবে পালন করতে। যখন আমরা দেশের জার্সি গায়ে মাঠে নামি, এর চেয়ে বড় উৎসাহ আর কিছু হতে পারে না। আমরা সবাই চেষ্টা করব দল হিসাবে যেন আমরা ভালো একটা ফলাফল করতে পারি। কঠিন হলেও আমার মনে হয় জয় অসম্ভব কিছু না। ছোট ছোট প্রতিটা সুযোগগুলো শতভাগ দিয়ে লুফে নিতে হবে।

সাকিবের অভাব কতটা অনুভব করবেন এই প্রশ্ন ছুঁড়ে দেয়া হয়েছিল রিয়াদের সামনে। এমন প্রশ্ন শুনেই হয়ত মন কেঁদে উঠেছে তার। তবুও উত্তর তো দিতেই হবে, ‘আমাদের কাজ হচ্ছে খেলা। দেশের জন্য তো আমাদের খেলতে যেতেই হবে। ঘটনাটা সবাই মোটিভেশন হিসাবে নেবে বলেই আশা করছি।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘অবশ্যই, সে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রাণকেন্দ্র। আমরা সবাই ব্যথিত ওর জন্য। সবাই জানি, দলের জন্য ও কতটা গুরুত্বপূর্ণ একজন। সে হয়ত একটা ভুল করেছে কিন্তু কোনো অপরাধ করেনি। আমাদের সকলের সমর্থন ওর সাথেই আছে। ওকে আমরা যেভাবে ভালোবাসতাম সবসময় সেভাবেই ভালোবাসব।’

টেস্ট ক্রিকেটেও বাংলাদেশের সহ-অধিনায়ক রিয়াদ। কিন্তু এই সংস্করণে সাকিবের অনুপস্থিতিতে অধিনায়কের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে মুমিনুল হককে। বোর্ডের সিদ্ধান্ত কীভাবে দেখছেন রিয়াদ, ‘আমার মনে হয়, বোর্ড সঠিক সিদ্ধান্তই নিয়েছে। মুমিনুল টেস্টে অধিনায়ক হিসাবেই ভালো করবে বলেই আমার বিশ্বাস।’