সানির ঘূর্ণিতে বিধ্বস্ত খেলাঘর

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতির বিপক্ষে সহজ জয় পেয়ে শুভসূচনা করেছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। আগে ব্যাট করে ১৬৬ রানের পুঁজি পাওয়ার পর খেলাঘরকে ১৪৪ রানেই আটকে দেয় শেখ জামাল ধানমন্ডি। এর নেপথ্যে ছিলেন ইলিয়াস সানি।

Advertisment

মিরপুরে আগে ব্যাট করতে নেমে দলকে দারুণ শুরু এনে এন ওপেনার সৈকত আলি আর মোহাম্মদ আশরাফুল। তাদের ৭৩ রানের জুটি শেখ জামাল ধানমন্ডি বড় স্কোরের ভিত গড়ে দেয়। তাদের জুটি ভাঙেন লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেন। ৪ চার আর ২ ছক্কায় সাজানো ২৬ বলে ৩৮ রান করে রিশাদের বলে বোল্ড হন সৈকত আলি।

প্রথম উইকেট হারানোর পর দ্রুত উইকেট হারাতে থাকে শেখ জামাল ধানমন্ডি।  সৈকতের বিদায়ের পরের ওভার খালেদ আহমেদের বলে বোল্ড হন নাসির হোসেন। কোনো রান না করেই সাজঘরে ফিরে যান নাসির। পরের ওভারে কাজী নুরুল হাসান সোহানের সাথে ভুল বোঝাবুঝি হলে রান আউট হন মোহাম্মদ আশরাফুল। সুইপ করে সিঙ্গেল নেওয়ার পর তা ডাবলে রূপান্তর করার জন্য আশরাফুল দৌড় দিলেও রান নিতে রাজি হননি সোহান। দৌড় থামিয়ে ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করলেও পারেননি আশরাফুল। আশরাফুলের ৩২ বলে ৩৮ রানের ইনিংসে ছিল ছয় চার।

সেখান থেকে দলের হাল ধরেন তানবির হায়দার আর নাসির হোসেন। তাদের ৩৪ রানের জুটি ভাঙ্গেন মাসুম খান। ১৬ বলে ১৭ রান করে আউট হন হায়দার। পরের ওভারে রান আউট অহ্যে যান সোহান। ১৭ বলে ২২ রানের ইনিংসে দুই ছক্কা মারা সোহান ঝড় তোলার আভাস দিলেও তা হয়নি।

বড় স্কোর গড়তে পারেননি জিয়াউর রহমানও। ইনিংসের ১৯ তম ওভারে তাকে বোল্ড করেন খালেদ। আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে শেষ ওভারে এসে ঝড় তুলেন এনামুল হক। ইনিংসের শেষ তিন বলে তিন ছক্কা মারেন তিনি। এ তিন ছক্কা শেখ জামাল ধানমন্ডিকে পৌঁছে দেয় ১৬৬ রানে।

খেলাঘরকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন সাদিকুর রহমান আর ইমতিয়াজ হোসেন। পাওয়ারপ্লের শেষ ওভারে এ জুটি ভাঙেন স্পিনার এনামুল। ২ চার মারা সাদিকুর ১৭ বলে ১৭ রান করে বোল্ড হন। পরের ওভারেই ম্যাচের দৃশ্যপট বদলে দেন ইলিয়াস সানি। ওভারের দ্বিতীয় বলে নাসিরের হাতে ক্যাচ দেন ইমতিয়াজ (২০ বলে ২৬)। পরের বলে বোল্ড হন জহুরুল ইসলাম অমি।

বিনা উইকেটে ৪৪ থেকে ৪৬ রানে ৩ উইকেট হয়ে যায় খেলাঘরের। এরপর মেহেদী হাসান মিরাজ আর ফরহাদ হোসেন যোগ করেন ৩৩ রান। কিন্তু রান তোলার গতি এত ধীর ছিল যে ম্যাচ ধীরে ধীরে খেলাঘরের নাগালের বাইরে চলে যায়। ২০ বলে ১৪ রান করে সালাউদ্দিন শাকিলের অফ স্টাম্পের অনেক বাইরের বল খেলতে গিয়ে মিরাজ ক্যাচ দেন সোহরাওয়ার্দী শুভর হাতে।

এরপর ফরহাদ হোসেনের উইকেট নেন ইলিয়াস। ৯৪ রানের মাথায় পঞ্চম উইকেট হারায় খেলাঘর। শেষ চার ওভারে জয়ের জন্য ৬৮ রান দরকার হয় খেলাঘরের। আস্কিং রান রেট বেড়ে দাঁড়ায় ১৭। এমন সময় ঝড় তুলেন মাসুম খান। ১৭ তম ওভারে ২ ছক্কা আর ১ চার মারেন। ঐ ওভারে বোর্ডে যুক্ত ২০ রান।

তবে পরের ওভারে জিয়াউরের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান মাসুম। ১২ বলে ২২ রান করেন তিনি। ১৯ তম ওভারে আব্দুল হালিম টানা দুই বলে দুই উইকেট নেন। শেষ দুই ওভারে মাত্র ১১ রান যোগ হয়। ২২ রানে হারে খেলাঘর।

সংক্ষিপ্ত স্কোর 

শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ১৬৬/৬, ২০ ওভার
আশরাফুল ৩৮, সৈকত ৩৮, নুরুল ২২, এনামুল ২০*
খালেদ ২/২০, রিশাদ ১/২৫, মাসুম ১/৩৪

খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতি ১৪৪/৮, ২০ ওভার
ইমতিয়াজ ২৬, মাসুম ২২, সালমান ২১, ফরহাদ ২০
ইলিয়াস ৩/১৮, হালিম ২/২০, সালাহউদ্দিন ২/৩৩