Scores

সাব্বির-জাহিদে আবাহনীর লড়াকু পুঁজি

ডিপিএল টি-টোয়েন্টিতে সাব্বির রহমানের দ্রুতগতির অর্ধশতক ও জাহিদ জাবেদের ৩৩ বলের ৪৪ রানের সুবাদে ব্রাদার্সকে ১৫১ রানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে দিয়েছে আবাহনী লিমিটেড। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৮ রান এসেছে সাব্বির রহমানের ব্যাট থেকে।

“অতীত আর মনে করতে চাই না”

জাতীয় দলকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রতিনিধিত্ব করেছে এমন পাঁচজন ক্রিকেটারকে দলে নেওয়ার দিন প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় দলটি।

Also Read - মিরপুরে সাব্বিরের দ্রুতগতির অর্ধশতক


অধিনায়কের এমন সিদ্ধান্তের পর দলীয় ৭ রানে দুই উইকেট হারিয়ে বসে আবাহনী লিমিটেড। এমতাবস্থায় দলের হাল ধরেন সাব্বির ও মোসাদ্দেক। জাতীয় দলের এ দুই ক্রিকেটারের ব্যাটে চড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেয় দলটি।

তিন নম্বর উইকেটে ৫২ রান যোগ করেন তারা। ১৮ বলে ২৩ রান করা মোসাদ্দেক’কে মোহাম্মদ শাহজাদা আউট করলে বিচ্ছিন্ন হয় জুটিটি। তবে মোসাদ্দেক ফিরে গেলেও থেমে থাকেননি সাব্বির।  নিজের স্বাভাবিক খেলা খেলে দলের রান বাড়িয়ে চলেন তিনি। ৫ চার ও ১ ছক্কায় পূর্ণ করেন প্রতিযোগিতায় নিজের প্রথম অর্ধশতক।

মাইলফলক স্পর্শের পর আরও হাত খুলে খেলতে গিয়ে শরিফুল ইসলামের হাতে তালুবন্দী হন।  শাখাওয়াত হোসেনের বলে আউট হলে তার ব্যক্তিগত সংগ্রহ থামে ৫৮ রানে। ৪৩ বল মোকাবেলায় ৫ চার ও ২ ছক্কায় এ রান করেন তিনি।

তার আউটের পর দ্রুত আব্দুল্লাহ আল মামুন ও তাপসের উইকেট তুলে নিয়ে আবাহনীকে চাপে ফেলে ব্রাদার্স। শেষ দিকে জাহিদের আক্রমণাত্বক ব্যাটিংয়ে নির্দিষ্ট ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেটে ১৫০ রানের পুঁজি পায় দলটি। ইনিংসের শেষ বলে আউট হওয়ার আগে জাহিদ ২ চার ও ২ ছক্কায় করেন ৩৩ বলে ৪৪ রান।

ব্রাদার্সের বোলারদের মধ্যে রনি হোসেন ৩২ রান খরচায় লাভ করেন সর্বোচ্চ দুটি উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড-
আবাহনী লিমিটেড: ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৫০ রান।
মুনিম ৩(৭), শান্ত ৩(৬), সাব্বির ৫৮(৪৩), মোসাদ্দেক ২৩(১৮), জাহিদ.৪৪(৩৩), আব্দুল্লাহ ৬(৭), তাপস ৪(৫), শাকিল ১(১); রনি ৪-০৩২-২।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

‘লোভের বশে’, ‘লুকিয়ে’ ডিপিএল খেলেছেন সাইফউদ্দিন!

সৌম্যকে যেভাবে সাহায্য করেছেন জাফর

ওয়াসিম জাফরের পরামর্শ কাজে লাগানোর প্রত্যাশা

তাণ্ডবের আগে ‘নার্ভাস’ ছিলেন সৌম্য

গর্বিত ‘অধিনায়ক মোসাদ্দেক’, কৃতিত্ব মাশরাফিকে