সিনিয়রদের সঙ্গে টিম ম্যানেজমেন্টের দূরত্ব, সমাধানের আশ্বাস নান্নুর

0
3624

টিম ম্যানেজমেন্ট ও হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর সঙ্গে যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে সেটি সমাধানের আশা দিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। সিনিয়রদের প্রতি তাঁদের সম্মান কমেনি বললেন এই প্রধান নির্বাচক।

অস্ট্রেলিয়া সিরিজে তামিম ও মুশফিককে পাচ্ছে না বাংলাদেশ

Advertisment

বিগত কয়েকদিন ধরেই বেশ তোলপাড় চলছে বাংলাদেশ ক্রিকেটাঙ্গনে। বিশেষ করে হুট করেই মাহমুদউল্লাহর টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়া, তামিমের বিশ্বকাপ দল থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়া। সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি কিপিং ইস্যুতে দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের সঙ্গে হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর সম্পর্ক নিয়ে নতুন আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

এছাড়াও এ বছরের শুরুতে সাকিবকে তিনে খেলানোর পক্ষে ছিলেন না ডমিঙ্গো। সবমিলিয়ে দলের চার সিনিয়র ক্রিকেটারের সঙ্গে সম্পর্কের যে একটা দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে সেটি আঁচ করা যাচ্ছে। এতো সমস্যা নিয়ে বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে সিনিয়রদের সঙ্গে টিম ম্যানেজমেন্টের যে দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে সেটি সমাধান হবে আশ্বাস দিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

“অভিজ্ঞদের প্রতি সম্মান আমাদের সারাজীবন-ই আছে। এটা নিয়ে সমালোচনা-আলোচনা করার কোন সুযোগ নেই। অবশ্যই আমরা এটা নিয়ে আলোচনা করছি এবং অতিদ্রুত সমাধান করা হবে।”

মূলত ঘটনার সূত্রপাত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য দল নির্বাচনের বৈঠকে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন হেড কোচ, টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক ও নির্বাচকরা। অধিনায়ক-নির্বাচক তামিমকে রাখার পক্ষে থাকলেও দীর্ঘ সময় ধরে দলের সঙ্গে না থাকায় তামিমকে দলে নিতে আপত্তি জানায় ডমিঙ্গো।

আপত্তি জানানোর কারণ ছিল, অনেকদিন এই ফরম্যাটে খেলছেন না তামিম। তাঁকে দলে ফেরাতে হলে বাদ দিতে নতুন কাউকে। যা কিনা একজন তরুণ ক্রিকেটারের কাছে সঠিক বার্তা পৌঁছাবে না।

অন্যদিকে সিরিজের আগে কিপিং নিয়ে ভাগাভাগির যে কথা বলেছিলেন তাতে স্পষ্ট বোঝা যায় মনক্ষুন্ন হয়েছে মুশফিকের। যে কারণে দ্বিতীয় ম্যাচ শেষেই কোচকে জানান এই ফরম্যাটে আর কিপিং করবেন না তিনি।

সাকিবের ব্যাটিং পজিশন, মাহমুদউল্লাহর অবসর, মুশফিকের কিপিং ও তামিমের দলে না থাকা- সব মিলিয়ে সিনিয়রদের সঙ্গে যে সমস্যা তৈরি হয়েছে সেটি দ্রুত সমাধান করতে না পারলে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ যে ভালো কিছু বয়ে আনতে পারবে তাঁর নিশ্চয়তা নেই।