Scores

সিপিএল ২০২০ : টুর্নামেন্ট সেরা একাদশ

কিছুদিন আগে পর্দা নামা ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (সিপিএল) সেরা একাদশ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। সামাজিক যোগাযোগামাধ্যমে তারা নিজেদের পেইজে সেরা একাদশ প্রকাশ করেছে। এই একাদশে চ্যাম্পিয়ন দল ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সের তিনজন খেলোয়াড় আছেন। দুইজন আফগান ক্রিকেটার থাকলেও নেই রশিদ খান।

সিপিএল ২০২০  টুর্নামেন্ট সেরা একাদশ

সিপিএলের এই সেরা একাদশ বাছাই করেছেন টম মুডি, ইয়ান বিশপ, স্যামুয়েল বাদ্রি, ড্যানি মরিসন ও ড্যারেন গ্যাংগা। এই দলে গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের তিনজন, জ্যামাইকা তালাওয়াশের দুইজন এবং সেন্ট লুসিয়া জুকস, সেন্ট কিটস ও নেভিস প্যাট্রিয়টস, বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টস থেকে একজন করে আছেন। অধিনায়ক হিসাবে রাখা হয়েছে চ্যাম্পিয়ন দলের অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডকে।

Also Read - সুপার লিগে শীর্ষস্থান ধরে রাখল ইংল্যান্ড

একনজরে সিপিএলের সেরা একাদশ

১. গ্লেন ফিলিপস : জ্যামাইকা তালাওয়াশের এই ব্যাটসম্যান ১১ ম্যাচে ৩৫.১১ গড়ে সংগ্রহ করেছেন ৩১৬ রান। স্ট্রাইকরেট ১২৭.৪১। উইকেটরক্ষকের দায়িত্বেও রাখা হয়েছে ফিলিপসকে।

২. সুনীল নারাইন : ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সের এই তারকা ক্রিকেটার খেলেছেন মাত্র পাঁচটি ম্যাচ। ব্যাট হাতে সংগ্রহ করেছেন ১৪৪ রান ও বল হাতে শিকার করেছেন ছয়টি উইকেট।

৩. শিমরণ হেটমায়ার : তিনি খেলেছেন ১১টি ম্যাচ। গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ৩৩.৩৭ গড়ে করেছেন ২৬৭ রান।

৪. নিকোলাস পুরান : তিনিও গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের পক্ষে খেলেছেন। একটি সেঞ্চুরিসহ ১১ ম্যাচে করেছেন ২৪৫ রান।

৫. ড্যারেন ব্রাভো : চ্যাম্পিয়ন দলের ব্যাটসম্যান ১২ ম্যাচে করেছেন ২৯৭ রান। ব্যাটিং গড় ৫৯.৪০!

৬. কাইরন পোলার্ড : চ্যাম্পিয়ন দলের অধিনায়ক পোলার্ড ১১ ম্যাচে করেছেন ২০৭ রান। বল হাতে শিকার করেছেন আটটি উইকেট।

৭. মোহাম্মদ নবী : এই আফগান ক্রিকেটার সেন্ট লুসিয়া জুকসের একমাত্র ক্রিকেটার হিসাবে সেরা একাদশে জায়গা পেয়েছেন। ১২ ম্যাচে নবীর সংগ্রহ ১৫৬ রান ও শিকার ১২টি উইকেট।

৮. জেসন হোল্ডার : ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাদা পোশাকের অধিনায়ক বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টসের পক্ষে ১০ ম্যাচে করেছেন ১৯২ রান এবং বল হাতে শিকার করেছেন ১০টি উইকেট।

৯. রায়াদ এমরিট : সেন্ট কিটস ও নেভিস প্যাট্রিয়টসের এই বোলার ১০ ম্যাচে শিকার করেছেন ১১টি উইকেট। ইকোনমিক রেটটা নজরকাড়া, মাত্র ৫.৯৬।

১০. ইমরান তাহির : গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের এই লেগ স্পিনার খেলেছেন ১১টি ম্যাচ এবং ঝুলিতে পুরেছেন ১৫টি উইকেট। ইকোনমিক রেট ৫.৮২।

১১. মুজিব উর রহমান : জ্যামাইকা তালাওয়াশের এই ক্রিকেটার ১১ ম্যাচে শিকার করেছেন ১৬টি উইকেট। তার ইকোনমিক রেট মাত্র ৫.২৯।

Related Articles

আইপিএলের জন্য ‘৫০০ ভাগ’ উজাড় করেও খেলতে প্রস্তুত তাহির

বিগ ব্যাশ থেকে সরে দাঁড়ালেন তাহির

পানি টানায় সম্মানহানির কিছু দেখেন না তাহির

আইপিএলের দলবদলে গেইল-স্টেইন-তাহিররা

আইপিএল ২০২০: যে তারকারা এখনো নামেননি মাঠে