সিরিজসেরার রেকর্ডে কিংবদন্তিদের পাশে সাকিব

0
1791

উইন্ডিজদের বিপক্ষে বাংলাদেশের সিরিজ জেতা হয়েছে ১-২ ব্যবধানে। প্রায় ছয় বছর পর ঘরের বাইরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতল টাইগাররা। সিরিজে ব্যাটে বলে সমান তালে লড়াই করেছেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ম্যাচসেরার পাশাপাশি গড়েছেন এক রেকর্ডও।

সিরিজসেরার রেকর্ডে সাকিব
দ্বিতীয় ম্যাচে পুল করতে থাকা সাকিব
ছবিঃ এএফপি

অধিনায়ক হিসেবে প্রথম টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন সাকিব আল হাসান। সব ফরম্যাট মিলিয়ে সবচেয়ে বেশিবার সিরিজ সেরা হওয়ার তালিকায় তিনি ছাড়িয়ে গেছেন ইমরান খান, ওয়াসিম আকরাম, সৌরভ গাঙ্গুলিদের মতো তারকাদের।

Advertisment

অধিনায়ক হিসেবে এই সিরিজে ত সফলতা পেয়েছেনই ব্যাট বলও কথা বলেছে তাঁর হয়ে। উইন্ডিজদের বিপক্ষে এই সিরিজে সবচেয়ে বেশি রান এসেছে তাঁর ব্যাট থেকেও। তিনি তিন ম্যাচ মিলিয়ে সর্বমোট রান করেন ১০৩। ৩৪.৩৩ গড়ের সাথে তাঁর স্ট্রাইকরেট ছিল দেড়শ এর কাছাকাছি। সর্বোচ্চ ইনিংস খেলেছেন ৬০ রানের।

প্রথম ম্যাচে ব্যাট হাতে ১০ বলে চারটি চারের সাহায্যে করেন ১৯ রান। দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাট হাতে ৩৮ বলে করেন ৬০ রান। তাঁর সাথে তামিম ইকবালের জুটিই ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারক হয়ে দাঁড়ায়। ৪৪ বলে ৭৪ রান করে সে ম্যাচে সেরা হন তামিম ইকবাল। শেষ ম্যাচে বাইশ বলে ২৪ রানের ইনিংস খেলেন অধিনায়ক।

অন্যদিকে বল হাতেও ছিলেন উজ্জ্বল ছিলেন সাকিব আল হাসান। তিন ম্যাচে ঝুলিতে নিয়েছেন তিন উইকেট। দশ ওভার এক বল করে রান খরচ করেছেন ৬৮, ওভারপ্রতি সাতেরও নিচে। যা সেরা দশ বোলারের মধ্যেই সবচেয়ে কম। প্রথম ম্যাচে ২.১ ওভারে ২৭ রান দিয়ে ছিলেন উইকেট শূন্য। বৃষ্টি আইনে সাত উইকেটে হেরে যায় টাইগাররা। পরের ম্যাচে ৪ ওভারে ১৯ রান দিয়ে ২ উইকেট তুলে নিয়ে দলের জয়ে রেখেছিলেন দারুণ ভূমিকা। শেষ ম্যাচে চার ওভার বল করে নিয়েছেন এক উইকেট, খরচ করেছেন মাত্র বাইশ রান।

তিন ম্যাচের সব কিছু বিবেচনা করেই সিরিজসেরার মুকুট পেয়েছেন বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। কিংবদন্তী ইমরান খান, ওয়াসিম আকরাম, সৌরভ গাঙ্গুলি, এবি ডি ভিলিয়ার্স, কুমার সাঙ্গাকারা, হাশিম আমলাদের মতো তারকা ক্রিকাটারদের হটিয়ে তালিকায় শুরুর দিকে জায়গা করে নিয়েছেন সাকিব। এই নিয়ে যা ১১বার।

এগারতমবারের মত সিরিজসেরা হয়ে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার পেছনে ফেলেছেন অনেক রথী মহারথীকে। তাঁর উপরে অলরাউন্ডার আছেন কেবল জ্যাক ক্যালিস। ম্যাচের হিসেবে সিরিজ সেরার তালিকায় তার বর্তমান অবস্থান পঞ্চম স্থানে। অন্যদিকে সিরিজের হিসেবে সাকিবের অবস্থান ষষ্ঠ স্থানে। দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক শন পোলকের ১০৭টি সিরিজের বিপরীতে সাকিব খেলেছেন ১১৩টি সিরিজ। এর মধ্যে ৪বার টেস্ট, ৫বার ওয়ানডে ও ২বার টি-টোয়েন্টিতে সিরিজ সেরা হয়েছেন তিনি।

সবচেয়ে বেশি সিরিজ সেরা হওয়ার তালিকায় সবার ওপরে অবস্থান করছেন ভারতের ‘লিটল মাস্টার’ শচীন টেন্ডুলকার। তিনি মোট ২০বার সিরিজ সেরা হয়েছেন। দ্বিতীয় স্থানে থাকা কিংবদন্তি প্রোটিয়া অলরাউন্ডার জ্যাক ক্যালিস এই পুরস্কার জিতেছেন ১৫বার। তৃতীয় স্থানে থাকা ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি মাত্র ৯৯ সিরিজেই ১৩বার সিরিজ সেরা হয়েছেন। ১৩বার সিরিজ সেরা হয়েছেন লঙ্কান কিংবদন্তি সনাথ জয়াসুরিয়াও। অবশ্য তিনি ১৭৬ ইনিংসে এই কীর্তি গড়েছিলেন।

সবচেয়ে বেশিবার সিরিজ সেরা হওয়া ক্রিকেটারদের তালিকা-

শচীন টেন্ডুলকার- ১৮৩ সিরিজে ২০বার সিরিজ সেরা
জ্যাক ক্যালিস- ১৪৮ সিরিজে ১৫বার সিরিজ সেরা
বিরাট কোহলি- ৯৯ সিরিজে ১৩বার সিরিজ সেরা
সনাথ জয়াসুরিয়া- ১৭৬ সিরিজে ১৩বার সিরিজ সেরা
শন পোলক- ১০৭ সিরিজে ১১বার সিরিজ সেরা
সাকিব আল হাসান- ১১৩ সিরিজে ১১বার
ক্রিস গেইল- ১৩২ সিরিজে ১১বার ম্যাচ সেরা
শিবনারাইন চন্দরপল-  ১৩৬ সিরিজে ১১বার সিরিজ সেরা
রিকি পন্টিং- ১৪৭ সিরিজে ১১বার সিরিজ সেরা
মুত্তিয়া মুরালিধরন- ১৫৫ সিরিজে ১১বার সিরিজ সেরা।

আরো পড়ুনঃ টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিং: রেটিং বাড়ল বাংলাদেশের