সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে রিয়াদের রাজকীয় প্রত্যাবর্তন, তাসকিনের ফিফটি

0
962

চলমান হারারে টেস্টের প্রথম ও টেস্ট ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি হাঁকালেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দ্বিতীয় দিন সকালে দ্রুতগতিতে রান তুলেছেন রিয়াদ ও তাসকিন আহমেদ। অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন তাসকিনও। মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ৪০৪ রান।

সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে রিয়াদের রাজকীয় প্রত্যাবর্তন, তাসকিনের ফিফটি
মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সেঞ্চুরি উদযাপন

৮৩ ওভারে ৮ উইকেটে ২৯৪ রান নিয়ে প্রথম দিন শেষ করেছিল বাংলাদেশ। শেষ বিকালে তাসকিনের ১৫ বলে ১৩ রান বাংলাদেশকে আশা দেখিয়েছিল। দ্বিতীয় দিন সেই আশাকেই বাস্তবে রূপ দেন তাসকিন। রিয়াদকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে নিজের ও দলের রান বৃদ্ধি কর‍তে থাকেন তিনি। দিনের শুরুতেই টাইগারদের সংগ্রহ তিনশ পেরিয়ে যায়।

Advertisment

ডোনাল্ড তিরিপানোকে ছক্কা হাঁকিয়ে দলীয় সংগ্রহ সাড়ে তিনশ পার করান রিয়াদ। দৃষ্টিনন্দন ব্যাটিং করে জিম্বাবুইয়ান বোলারদের ধৈর্যের পরীক্ষাও নিতে থাকেন তাসকিন। ব্লেজিং মুজারাবানি তো মেজাজ হারিয়ে তাসকিনের দিকে তেড়েও যান। তাসকিন এগিয়ে যান পাল্টা জবাব দিতে। তবে পরিস্থিতি তখনই ঠাণ্ডা হয়ে যায়। তাসকিনও দৃষ্টিনন্দন ব্যাটিং চালিয়ে যান।

রিয়াদও দ্বিতীয় দিন সকালে দ্রুত রান তুলতে থাকেন। প্রথম দিনে ১৪১ বলে ৫৪ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। আজ সকালে যখন সেঞ্চুরি হাঁকান তখন খেলেন ১৯৫তম বলটি। প্রায় ১৭ মাস পরে টেস্ট একাদশে ফিরেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে আবারও নিজের জাত চেনালেন তিনি। এটি রিয়াদের পঞ্চম টেস্ট সেঞ্চুরি।

অপরপ্রান্তে অর্ধশতক তুলে নেন তাসকিনও। এটি তার টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম অর্ধশতক। তাদের দুইজনের জুটিও ছাড়িয়েছে শতরান। মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত তাসকিন-রিয়াদের জুটি অবিচ্ছিন্ন আছে ১৭৬ বলে ১৩৪ রানে। রিয়াদ ১১২ রানে ও তাসকিন ৫২ রানে অপরাজিত আছেন। রিয়াদ খেলেছেন ২১৫টি বল ও তাসকিন খেলেছেন ৮৯টি।

মধ্যাহ্ন বিরতির আগে চারশ রান পূর্ণ করে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে হারারেতে প্রথম ইনিংসে নিজেদের সর্বোচ্চ স্কোরকে ছাড়িয়ে গিয়েছে টাইগাররা। এই সেশনে.২৪ ওভারে বাংলাদেশ সংগ্রহ করেছে ১১০ রান, হারায়নি কোনো উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

টস : বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ৪০৪/৮ (১ম ইনিংস- ১০৭ ওভার)
রিয়াদ ১১২*, লিটন ৯৫, মুমিনুল ৭০, তাসকিন ৫২*, সাদমান ২৩, মুশফিক ১১, সাকিব ৩, শান্ত ২, সাইফ ০;
মুজারাবানি ৩/৭২, তিরিপানো ২/৫১।