SCORE

সর্বশেষ

স্নায়ুর চাপ, নাকি ভাগ্য?

ফাইনালে গিয়ে বাংলাদেশের জেতার কাব্য এখনও রচনা করেননি ক্রিকেট বিধাতা। আর তাই হয়ত বারবারই ফাইনালের মঞ্চে ভালো খেলেও পরাজিত দল হিসেবে মাঠ ছাড়তে হয় বাংলাদেশকে। রোববার নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে ভারতের কাছে শেষ বলে ছক্কা হজম করে অল্পের জন্য ট্রফির ছোঁয়া পায়নি বাংলাদেশ।

স্নায়ুর চাপ, নাকি ভাগ্য?

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে আসা বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান জানালেন, দুঃসময়ে আবেগ প্রকাশ না করে শিক্ষা নেওয়াতেই বেশি মনোযোগ তার। কান্নার মতো স্পর্শকাতর জিনিস তাই এড়িয়েই চলছেন তিনি, কিংবা রাখছেন চেপে, এখন কী করব? কেঁদে লাভ আছে? আবেগ থাকে, থাকতে পারে। কিন্তু এরকম পরিস্থিতিতে আসলে কিছু আর করার নেই।’

Also Read - আরেকটি ফাইনাল, আরেকটি পরাজয়

‘হয়তো শিখতে পারি। পরের বার আবার সুযোগ পেলে হয়তো চেষ্টা করতে পারি। আমরা বেশ কটি ফাইনাল হারলাম এ রকম। বেশিরভাগই ক্লোজ ছিল। সবচেয়ে ক্লোজ হয়ত এশিয়া কাপেরটা (২০১২ সালে) ছিল, এটা হয়ত আরও ক্লোজ হলো। এভাবেই তো এগোচ্ছি!’– বলেন সাকিব।

ম্যাচে নিজের প্রথম ৩ ওভারে রুবেল হোসেন দিয়েছিলেন মাত্র ১৩ রান। সেই রুবেলই ১৯তম ওভার করতে এসে বিলি করলেন ২২ রান। ভারতের জন্য ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট ছিল এটাই। শেষ ওভারে ভালো করেও পার্ট টাইম বোলার সৌম্য সরকার ম্যাচের ইতি টানার বলে ছক্কা হজম করলে বাংলাদেশকে হারতে হয় ম্যাচ। এই বিষয়টিকে স্নায়ুর চাপ বলে না চালিয়ে সাকিব দেখছেন ভাগ্যের দায়ও।

তিনি বলেন, ‘এটা কি স্নায়ুর চাপ নাকি ভাগ্য, সেটা বলা মুশকিল। ধরেন, এক ওভারে ৯ রান দরকার ছিল (২০১২ এশিয়া কাপের ফাইনালে), খুব বেশি কিন্তু নয়। হয়নি। আবার আজকে শেষ বলে ৫ রান, বেশিরভাগ সময়ই করা যায় না। ১০ বারের মধ্যে হয়ত ৬-৭ বারই বোলার পারবে। শেষ ২ ওভারে ৩৫ রান থাকলেও বেশিরভাগ সময়ই বোলিং দলের জেতার কথা। স্রেফ হয়নি আজ। এটাকে আমি স্নায়ুর চাপ বলব না। ওদের ব্যাটসম্যান বেশি ভালো খেলেছে। ভাগ্যও ছিল না পক্ষে।’

আরও পড়ুনঃ অলরাউন্ডার মেহেদির সুবাদে জিতল গাজী গ্রুপ

 

Related Articles

রুবেল হোসেনের সমস্যা কোথায়?

নিদাহাস ট্রফি থেকে ৪৮২ শতাংশ লাভ!

অসুস্থ রুবেল, দোয়া চাইলেন সবার কাছে

যেখান থেকে শুরু ‘নাগিন ড্যান্স’ উদযাপনের

‘খারাপ করছি দেখেই বেশি চোখে পড়ছে’