Scores

স্বপ্ন পূরণ করতে চান তামিম, ইমরুলেরও অভিন্ন লক্ষ্য

বিপিএলের আগের পাঁচ আসরে কোয়ালিফায়ার পর্যন্তই থেমে যেতে হয়েছিল তামিম ইকবালকে। এবারই প্রথম ফাইনালে উঠেছে তামিমের দল। তাই বিপিএলের ট্রফি জয়ের স্বপ্নটাও এবার পূরণ করতে চান তিনি। দ্বিতীয় বারের মতো ট্রফির স্বাদ পেতে চান ইমরুল কায়েসও।

 

Also Read - রুশো নাকি সাকিব ? নাকি অন্য কেউ?


বিপিএলে ব্যক্তিগত রেকর্ড সমৃদ্ধ তামিম ইকবালের নামের পাশে। কিন্তু এই আসরের আগে একবারো ফাইনালেও ওঠেনি তাঁর দল। তাই বিপিএল ট্রফি না জেতার আক্ষেপ আছে তামিমের।

তবে খুব বেশি চাপ নিচ্ছেন না তিনি। স্বাভাবিক খেলাটা খেলেই সাফল্য চান তিনি, “ফাইনালে ওঠে গেছি। এটাই বড় কথা। এমনও প্লেয়ার আছে যারা জীবনে ফাইনালও খেলতে পারি নাই। আমরা যদি ফাইনাল হিসেবে নেই। তাহলে এটা ঠিক হবে না। এই সব বড় ম্যাচে যতটুকু রিলাক্স হওয়া যায়। কম চিন্তা করা যায় তত আমার জন্য ভালো।”

বিপিএল ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ট্রফি জয়ের স্বপ্নপূরণে কুমিল্লার হয়ে ফাইনালে ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিং করারও সংকল্প তামিমের। ভালো খেলে দলের জয়ে বড় ভূমিকা রাখতে চান তিনি।

দেশি-বিদেশি ক্রিকেটার মিলে ভারসাম্য পূর্ণ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। প্রথম কোয়ালিফায়ারে রংপুর রাইডার্সকে হারিয়ে সরাসরি ফাইনালে আসে কুমিল্লা। অথচ গ্রুপ পর্বের দুই ম্যাচেই রংপুরের বিপক্ষে শত রানের নিচে অল আউট হয়েছিল কুমিল্লা। অপরদিকে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে ঢাকা ডায়নামাইটসের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছে রংপুর রাইডার্স।

এর আগে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়েই একবার ট্রফি জিতেছেন ইমরুল কায়েস। তবে এবার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক হিসেবে ট্রফি জয়ের হাতছানি তাঁর সামনে। ইমরুল কায়েস জানান, “শুধু আমি নয়, আমাদের সবাই রোমাঞ্চিত ফাইনাল নিয়ে। প্রত্যেক খেলোয়াড় চায় ফাইনালে খেলতে। চ্যাম্পিয়ন হতে। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনুভূতি আমি একবার পেয়েছি।”

গ্রুপ পর্বের দুইটি ম্যাচেই ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে জয় পেয়েছিল তামিম-ইমরুলরা। এটা ফাইনালে বাড়তি আত্মবিশ্বাস দেবে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে। ইমরুলের ভাষায়, “আমরা দুটি ম্যাচে ঢাকার বিপক্ষে জিতেছি। আত্মবিশ্বাসের দিক থেকে ভালো অবস্থানে আছি। একটি দলকে দু’বার যখন হারাবেন তখন প্রতিপক্ষ হিসেবে আমাদের নিয়ে চিন্তা করবে তারা। এটাই আমাদের জন্য ইতিবাচক।”

ইমরুল কায়েস আরো বলেন, “প্রথম থেকে ফাইনাল পর্যন্ত আমরা ভালো খেলেছি। প্রত্যেক ক্রিকেটার মন থেকে চেয়েছে ফাইনাল খেলতে। আসলে ফাইনাল খেলা ভাগ্যের ব্যাপার। আগে থেকে বলা সম্ভব নয়। আমরা চেষ্টা করব নিজেদের সেরাটা খেলার। আর সেটা খেলতে পারলে ইনশাআল্লাহ ফলাফল আসবে।”

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

‘সাবেক ফ্র্যাঞ্চাইজিদের’ অন্য উপায় বলে দিলেন পাপন

যেভাবে বেড়ে যায় বিদেশি ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক!

তোমাদের বিপিএলে এখনো পেশাদারিত্ব আসেনি: রশিদ খান

কাঁদলেন নাফিসা, অংশ হতে চান বঙ্গবন্ধু বিপিএলের

এ বছর বিপিএল হওয়ার সুযোগ নেই: লোটাস কামাল