Scores

স্বাধীনতা পাবার কারণেই বদলে গেছে বাংলাদেশঃ সামারাবিরা

শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ঢাকায় আসেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের কোচিং স্টাফের নতুন সদস্য ব্যাটিং পরামর্শক থিলান সামারাবিরা। ঈদের পর টাইগারদের প্রথম দিনের অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হোন এই শ্রীলংকান। বাংলাদেশের ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে নিজের অনুভূতি জানানোর পাশাপাশি সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নের উত্তর দেন সামারাবিরা।

519A0262
১১ দিনের ঈদের ছুটি কাটিয়ে আজ থেকে শুরু হয়েছে টাইগারদের অনুশীলন। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিকেল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত চলে ক্রিকেটারদের ব্যাটে-বলে অনুশীলন। অনুশীলন শেষে সদ্য যোগ দেয়া সামারাবিরা সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হোন। প্রথমেই বাংলাদেশ কোচ হতে পারার অনুভূতি জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, “আন্তর্জাতিক একটি দলের সঙ্গে কাজ করা অবশ্যই বড় একটি রোমাঞ্চকর বিষয়। এ মুহুর্তে আমি দারুণ কিছু ছেলেদের নিয়ে কাজ করছি। সত্যিই আমি রোমাঞ্চিত।” 
প্রথম দিনের ক্রিকেটারদের সাথে পরিচয় পর্ব সেরে ফেলেছেন এই শ্রীলংকান। প্রথম দিনের অনুশীলন নিয়ে তিনি বলেন,  “প্রথম দিন আমি সবার সঙ্গে পরিচিত হয়েছি, এখানে নতুন অনেক মুখ রয়েছে। চার-পাঁচজনের বিপক্ষে আমি খেলেছি তাদেরকে আমি আগেই চিনি। আরও একদিন কাজ করলে সবার সঙ্গে আমি মানিয়ে নিতে পারব।”

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নিয়ে কাজ করার পরিকল্পনা ইতিমধ্যে সাজিয়ে ফেলেছেন সামারাবিরা। সামনের আফগানিস্তান সিরিজে পর্যবেক্ষণ করেই তারপর কাজ শুরু করবেন তিনি, ” এ মুহূর্তে আমরা আফগানিস্তানের বিপক্ষে তাদের পারফরমেন্স দেখবো এরপর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের আগে তাদের নিয়ে কাজ করব। তারপর লং টার্ম কিংবা শর্ট টার্ম তাদের নিয়ে কাজ করার পরিকল্পনা করছি।” 

Also Read - বাংলাদেশ সিরিজ কঠিন হবে বলে মনে করেন মঈন আলী


এছাড়া ক্রিকেটারদের স্কিল ছাড়া অন্যান্য বিষয় নিয়েও কাজ করতে চান এই শ্রীলংকান। তিনি বলেন, “আমি তাদের মানসিক শক্তি বিকশিত করতে চাই।  সবচেয়ে বড় কাজ হচ্ছে ক্রিকেটারদের গ্রুমিং করা। আমি প্রতিভা নিয়ে উদ্বিগ্ন নই। কারণ প্রতিভা আমি আজ টিভির সামনে বসেই দেখতে পারব। এজন্য আমি মনে করি তাদের গ্রুমিং করাই বড় কাজ।”
এদিকে গত দেড় বছরে বদলে গেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটের চিত্র। ঘরের মাঠে টানা সিরিজ জিতেছে টাইগাররা। এই পরিবর্তন চোখে পড়েছে সামারাবিরা চোখেও। তিনি বলেন,  “হাথুরু এই দলটাকে বদলে দিয়েছে। সবাইকে নিজের মতো খেলার স্বাধীনতা দিয়েছে। এখন তারা বিশ্বাস করে যেকোনো দলকে হারানো সম্ভব। শেষ ১৮ মাস তারা ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়েছে। এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলেছে এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতকে হারিয়ে অঘটনের জন্ম দেওয়ার কাছাকাছি ছিল। আমি মনে করি এটা বড় একটা পরিবর্তন। ক্রিকেটাররা যত স্বাধীনতা পাবে তারা তত নিজেদের খেলার উন্নতি করতে পারবে।”

থিলান সামারাবিরার ঘনিষ্ঠ বন্ধু বাংলাদেশ জাতীয় দলের প্রধান কোচ চান্ডিকা হাতুরুসিংহে। নিজের ক্যারিয়ারেও রয়েছে হাতুরুসিংহের সহায়তা। সেটি উল্লেখ করে সামারাবিরা বলেন, “আমি শ্রীলঙ্কা দল থেকে বাদ পড়ার পর হাথুরু আমাকে বদলে দিয়েছিল। আমার টেকনিক, মনঃসংযোগ সবকিছুতে সে আমূল পরিবর্তন এনেছিল। বাংলাদেশেও সেটা করছে।”

উপমহাদেশের হওয়ায় বাংলাদেশের এই দায়িত্ব বাড়তি সুবিধা দিবে কিনা এমন প্রশ্নে সামারাবিরা বলেন, “আমি মনে করি কোচিং স্টাফরা যে দেশের হয়ে কাজ করবে সেই সংস্কৃতির বুঝতে হবে। আমি উপমহাদেশের সংস্কৃতির সঙ্গে অবগত কারণ এখানে আমি ৩৪ বছর বসবাস করেছি। এটা অবশ্যই আমাকে সাহায্য করবে।”

উল্লেখ্য, শ্রীলংকার হয়ে ৮১ টি আন্তর্জাতিক টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন সামারাবিরা। সেই ৮১ টেস্টে ৪৮.৭৬ গড়ে ৫ হাজার ৪৬২ রান করেছেন তিনি। পাশাপাশি শতক হাঁকিয়েছেন ১৪ টি। ক্রিজে দীর্ঘক্ষন টিকে রাখার মারাত্মক ক্ষমতা ছিলো এই ক্রিকেটারের।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

কতটুকু অভিজ্ঞ নতুন ব্যাটিং কোচ!

ক্রিকেটারদের অভিযোগে সামারাবিরা অধ্যায়ের অবসান

টাইগারদের সাথে থাকছেন সামারাবিরা

সাকিব-তামিমদের ব্যাটিং পরামর্শক এখন ঢাকায়

টাইগারদের সহকারী কোচের পদে হ্যালসল, ব্যাটিং পরামর্শক সামারাবিরা