স্মিথ-ওয়ার্নারদের সাজা কমানোর অনুরোধ

0
1064

দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে বল টেম্পারিং ইস্যুতে বড় সাজা পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার ও ক্যামেরন ব্যানক্রফট। ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) এক ম্যাচের জন্য স্টিভ স্মিথকে নিষিদ্ধ করলেও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া নিষিদ্ধ করেছে ১ বছরের জন্য। অন্যদিকে একই শাস্তি পেয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার। আরেক ক্রিকেটার ব্যানক্রফটের সাজা  হয়েছিল ৯ মাসের। তবে তাদের শাস্তি বেশি হয়েছে বলে মনে করে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স ইউনিয়ন।

Advertisment

বল টেম্পারিং ইস্যুতে ক্রিকেটারদের এমন সাজা আগে লক্ষ্য করা যায় নি। তাই অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স ইউনিয়ন পূর্বের সাজা বিবেচনায় নিয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কাছে আবেদন করেছে। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনের (এসিএ) প্রেসিডেন্ট গ্রেগ ডায়ার বলেন, ‘বিচার কখনো দ্বিধান্বিত ভাবে ছুটতে পারে। এবারের এই শাস্তিটি একটি নজির সৃষ্টি করলো।’ 

বল টেম্পারিং করার পর দেশে ফিরে আলাদা আলাদা ভাবে ক্ষমা চেয়েছেন স্টিম স্মিথ, ক্যামেরন ব্যানক্রফট ও ডেভিড ওয়ার্নার। সংবাদ সম্মেলনে কাঁদতে দেখা যায় অস্ট্রেলিয়ার এই ক্রিকেটারদের। সেই বিষয়টি তুলে ধরে গ্রেগ ডায়ার বলেন, ‘আমি মনে করে, বৃহস্পতিবার (২৯ মার্চ) স্টিভ স্মিথের সাথে পুরো অস্ট্রেলিয়া কেঁদেছিল। আমি জানি, কেননা আমি নিজেই কেঁদেছিলাম।’

পাশাপাশি স্মিথদের সাজা কমিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতে দেবার অনুরোধ জানান গ্রেগ। তিনি বলেন,  ‘আমরা মনে করি এই ক্রিকেটারদের খুব দ্রুতই ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরানো হোক। এটা তাদের ভবিষ্যৎ ক্রিকেটের জন্য কাজে দেবে।’

উল্লেখ্য, বল টেম্পারিং করা এই তিন ক্রিকেটারের জন্য দেশ-বিদেশে খেলার রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে। আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালসের অধিনায়ক হিসেবে এবারের আসরে দেখা যেত স্মিথকে। তবে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির সাথে যুক্ত থাকায় স্মিথকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়েছে দলটি। একই ঘটনা ঘটেছে ডেভিড ওয়ার্নারের ক্ষেত্রে। সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ওয়ার্নারকে অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়ে দায়িত্ব দিয়েছে কেন উইলিয়ামসনকে। এদিকে আইপিএলে চুক্তিভুক্ত না থাকলেও ইংলিশ কাউন্টি দল সমারসেটের হয়ে খেলার কথা ছিল ক্যামেরন ব্যানক্রফটের। তবে বিতর্কিত এই ক্রিকেটারকে বিদেশি কোটায় খেলাতে চাইছে না সমারসেট।

[আরও পড়ুনঃ অবসরের পরের ভাবনায় মাশরাফি]