স্যামি ঝড়ে গেইলদের বিদায় করে দিলো রাজশাহী

samm

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের চতুর্থ আসরে এলিমিনেটর ম্যাচে স্যামির ব্যাটিং ম্যাজিকে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গেলো তামিম-গেইলদের চিটাগং ভাইকিংস। চিটাগং ভাইকিংসের দেওয়া ১৪৩ রানের টার্গেটের জবাবে ব্যাটিং করতে নেমে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নুরুল হাসানের ৩৪ ও অধিনায়ক ড্যারেন স্যামির অপরাজিত ৫৫ রানের সুবাধে ৩ উইকেট হাতে রেখেই জয় পায় রাজশাহী কিংস।

Advertisment

এর আগে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিধান্ত নিয়েছিল কিংস অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি। ব্যাটিং লাইনআপে কিছুটা পরিবর্তন আনে চিটাগং ভাইকিংস। ওপেনিংয়ে গেইলের পরিবর্তে তামিমের সঙ্গী ছিলেন ডোয়েন স্মিথ। দলীয় ৮ রানের মাথায় স্মিথকে হারায় ভাইকিংস। টুর্নামেন্টে প্রথম ৩ ম্যাচে গেইলের ব্যাটিং নিস্প্রব থাকলেও এইদিনে জ্বলে উঠেন গেইল। তামিম-গেইলে বড় সংগ্রহের দিকে এগুতে থাকে চিটাগং ভাইকিংস। অন্যদিকে রানের ধারা অব্যাহত রেখেছিলেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

দলীয় ৮২ রানের মাথায় ফ্রাঙ্কলিনের বলে আউট হন ক্রিস গেইল। আউট হওয়ার আগে ৫ ছয় ও ২টি চারের সাহায্যে ৩০ বলে ৪৪ রান করেন তিনি। শোয়েব মালিককে নিয়ে ৩০ রানের জুটি গড়েন তামিম। ব্যক্তিগত ১৪ রান করে ফরহাদ রেজার বলে আউট হন মালিক। শেষ পর্যন্ত তামিম ইকবালের ৫১ রানের উপর ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৪২ রান করে চিটাগং ভাইকিংস।

জবাবে ব্যাটিং করতে নেমে দলীয় ৬ রানের মাথায় মমিনুলকে ফেরান শুভাশিস রয়। কোন রান না করেই সাজঘরে ফিরে যান আফিফ হোসেন। সাব্বিরকে নিয়ে বড় জুটির আবাস দেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান। ব্যক্তিগত ১১ রান নিয়ে শুভাশিসের বলে আউট হন সাব্বির রহমান। রান পাননি সামিত প্যাটেল ও জেমস ফ্রাঙ্কলিন। পরবর্তীতে দলের হয়ে হাল ধরেন অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি।

সামিতের প দলীয় স্কোরবোর্ডে ২ রান যোগ করতেই সাকলাইন সজীবের বলে শোয়েব মালিকের অসাধারন ফিল্ডিংয়ে ক্যাচ আউট হন নুরুল (৩৪)। ১১তম ওভারে মোহাম্মদ নবীর প্রথম তিন বলে তিন চার মেরে ম্যাচে ফেরার আবাস দেন স্যামি। ফ্রাঙ্কলিনের আউট হওয়ার পর মিরাজকে নিয়ে জয়ের পথে এগুতে থাকেন অধিনায়ক। দলীয় ৯৪ রানে ভুল বুজাবুজিতে রান আউটের শিকার হন মেহেদী হাসান মিরাজ (১০)।

১৬তম ওভারে শুভাশিসের বলে আবারো তিন বলে তিন চার মেরে দলকে জয়ের দিকে নিয়ে যান স্যামি। শেষ পর্যন্ত স্যামির অপরাজিত ২৭ বলে ৫৫ ও ফরহাদ রেজার অপরাজিত ১৯ রানের সুবাধে ৩ উইকেটে জয় পায় রাজশাহী কিংস। চিটাগংয়ের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন সাকলাইন সজীব এবং শুভাশিস।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

চিটাগং ভাইকিংস   ১৪২-৮ (ওভার ২০)

তামিম ৫১, গেইল ৪৪ঃ উইলিয়ামস ৪-১১

রাজশাহী কিংস   ১৪৩-৭ (ওভার ১৮.৩)

স্যামি ৫৫*, নুরুল ৩৪ঃ সাকলাইন ২-২৪

ফলাফলঃ ৩ উইকেটে জয়ী রাজশাহী কিংস।

ম্যাচ সেরাঃ ড্যারেন স্যামি।

-আফরিদ মাহমুদ রিফাত, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম