Scores

হরভজন-যুবরাজ ছোট ভাইয়ের মতো, মারার প্রশ্নই নেই: শোয়েব

শুধু বোলিংয়ে আগুন ঝরিয়েই ক্ষান্ত হতেন না শোয়েব আখতার, শারীরিক ভাষাতেও ছিলেন যথেষ্ট আগ্রাসী। মাঠ কিংবা মাঠের বাইরে, সবখানে রাজত্ব দেখাতে চাইতেন পাকিস্তানের সাবেক এই পেসার। শোয়েবের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে হরভজন সিং ও যুবরাজ সিংয়ের গায়ে হাত তোলার। তবে তিনি বলছেন, এটা তার ভালোবাসা প্রকাশের ধরণ।

২০১০ সালে এশিয়াকাপে গ্রুপ পর্বের এক ম্যাচে আগে ব্যাট করে ২৬৭ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান। সেই রান টপকাতে বেশ বিপাকে পড়তে হয় ভারতকে। যেখানে ব্যাট হাতে শেষদিকে দলের ত্রাতা হয়ে দাঁড়ান হরভজন। ম্যাচের ৪৭তম ওভারে শোয়েবের বলে ছক্কা হাঁকানোর পর কথা কাটাকাটি হয় দুজনের।

Also Read - 'বড় দলের বিপক্ষে খেলতে ভয়'- বিতর্ক প্রসঙ্গে মুখ খুললেন সাইফউদ্দিন


এরপর শেষ ওভারে মোহাম্মদ আমিরকে ছয় মেরে ভারতকে জেতানোর পর হরভজন শোয়েবের সাথে আক্রমণাত্মক ব্যবহার করেছিলেন। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে যান পাকিস্তানি গতি তারকা। এই ঘটনার রেশে হরভজনকে শুধু হুমকি দিয়ে ক্ষান্ত হননি শোয়েব, পরে ভারতীয় দলের টিম হোটেলে গিয়ে হরভজনের সাথে যুবরাজের গায়েও হাত তোলেন তিনি।

হরভজন-শোয়েব দুজনেই এর আগে এই ঘটনা স্বীকার করলেও সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানি গতি তারকা বলেন, এটা তার ভালোবাসা প্রকাশের ধরণ। হরভজন আর যুবরাজ তার ছোট ভাইয়ের মতো, ওদের মারার প্রশ্নই ওঠে না।

বিস্তারিত জানিয়ে শোয়েব বলেন, ‘ওটা মোটেই মারামারি ছিল না। আমার স্নেহ প্রকাশের ভঙ্গি বরাবরই সকলের থেকে আলাদা। এই কারণে যুবরাজের পিঠ, আফ্রিদির পাঁজরে চোট দিয়ে ফেলেছিলাম। আব্দুর রাজ্জাকের হ্যামস্ট্রিং একটু বেশিই স্ট্রেচ করে ফেলি। নিজের ভালবাসা প্রকাশে আমি বরাবরই উগ্র ধরণের।’

‘আমরা ঘোড়ার মত ছুটে বেড়াচ্ছিলাম। এবং নিজেদের মধ্যে কুস্তি করছিলাম। হরভজন আর যুবরাজ আমার ছোট ভাইয়ের মতো, ওদের মারার প্রশ্নই নেই।’– সাথে যোগ করেন তিনি।

তবে পাকিস্তান জাতীয় দলের সতীর্থদের সাথে বেশ কয়েকবার মারামারিতে জড়িয়েছিলেন বলে জানান শোয়েব, ‘একবার থেকে দুবার মারামারিতে জড়াই। তবে সতীর্থদের সঙ্গে আমার সম্পর্ক বরাবরই ভালো ছিল। পিসিবির সঙ্গে সম্পর্ক ভালো না থাকলেও সতীর্থদের সঙ্গে দারুণ সময় কাটিয়েছি। কিন্তু আমি কখনও তাদের সাথে ঘুরে বেড়ানো উপভোগ করি না।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

Related Articles

জিম্বাবুয়ের পাকিস্তান সফরসূচি চূড়ান্ত

বোলিংয়ে নতুন অস্ত্র যোগ করছেন রশিদ

৬টি কেক কেটে যুবরাজের ‘৬ ছক্কা’র বর্ষপূর্তি উদযাপন

জম্মু-কাশ্মিরে দশটি স্কুল ও ক্রিকেট একাডেমি বানাবেন রায়না

সীমান্ত খুললেও দক্ষিণ আফ্রিকায় ফিরছে না আন্তর্জাতিক ক্রিকেট