Scores

হায়দরাবাদে যেমন ছিল ওয়ার্নার-মুস্তাফিজ সম্পর্ক

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদে একসাথে খেলেছিলেন অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার ডেভিড ওয়ার্নার ও বাংলাদেশি ক্রিকেটার মুস্তাফিজুর রহমান। বছর তিনেক আগে আইপিএলের ঐ আসরই মুস্তাফিজের ক্যারিয়ারকে করেছিল আরও সমৃদ্ধ, এনে দিয়েছিল তারকাখ্যাতি।

হায়দরাবাদে যেমন ছিল ওয়ার্নার-মুস্তাফিজ সম্পর্ক

আইপিএলে খেলাকালীন সময়ে বার বার আলোচনা হতো সানরাইজার্স হায়দরাবাদের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার ও মুস্তাফিজুর রহমানের বন্ধুত্ব নিয়ে। একজন ব্যাট এবং অপরজন বল হাতে দলে সমানভাবে অবদান রাখতেন। দলকে এনে দিয়েছিলেন শিরোপাও।

বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলতে পারছেন না নিষেধাজ্ঞার কারণে। অবসর সময়ে ওয়ার্নার এসেছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) খেলতে। এরই ফাঁকে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল চ্যানেল২৪ এর সাথে আলাপচারিতায় মেতে ওঠেন তিনি। এক অনুষ্ঠানে তিনি জানান মুস্তাফিজকে নিয়ে তার হায়দরাবাদের স্মৃতি।

Also Read - অবশেষে এলো আলট্রা এজ প্রযুক্তি


মুস্তাফিজের প্রশংসা করে ওয়ার্নার বলেন, ‘ডেলিভারি করার সময় তার রিলিজ পয়েন্ট দেখবেন। সে খুব ভালো স্লোয়ার বল করতে পারে। সে একজন স্মার্ট বোলার। আইপিএলে অনেক ম্যাচ খেলেছে। তিন ফরম্যাটে ম্যাচ খেলছে। সে দারুণ কিছু, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের তাকে লম্বা সময়ের জন্য প্রয়োজন। বাংলাদেশ এবং ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের জন্য সে ভালো উপাদান হতে পারে।’

ওয়ার্নার কথা বলেন ইংরেজিতে। কিন্তু মুস্তাফিজ তখন টুকটাক ইংরেজিও জানতে না। মুস্তাফিজের সাথে কীভাবে যোগাযোগ রাখতেন জানিয়ে ওয়ার্নার বলেন, ‘সানরাইজার্স হায়দরাবাদ দলে কিছু লোক ছিলেন যারা বাংলা ভাষা সম্পর্কে ধারণা রাখতেন। আমি তাদের সহায়তা নিয়ে মুস্তাফিজের সাথে কথা বলতাম। আমাদের দারুণ বন্ধুত্ব ছিল। দারুণ বোঝাপড়া ছিল।’

ভুবনেশ্বর কুমার মাঠের বাইরে আমাদের অনেক সহায়তা করতো। সে দলের সবার সাথে সমন্বয় করতো। কিন্তু মুস্তাফিজ দারুণ ছিল। আমরা অবাক হতাম? ও কে? বাংলাদেশ থেকে এলো! তার উপস্থিতি আমাদের জন্য ছিল দারুণ কিছু। সে অত্যন্ত নম্র ছেলে।’– বলেন ওয়ার্নার।

মুস্তাফিজের সাথে প্রথম দেখার হওয়ার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে ওয়ার্নার বলেন, ‘প্রথমে সে বলল, আসসালামু আলাইকুম। এরপর তাকে জিজ্ঞেস করলাম, কেমন আছো? সে বলল, ভালো আছি (বাংলায়)। আমি বললাম, কোনো সমস্যা নেই (মুস্তাফিজ বাংলা ভাষা ব্যবহার করায়)। পরিচিতি পর্বে এতটুকুই ছিল। সে আমার দিকে তাকিয়ে হাসলো।’

এখানে ওয়ার্নার ইংরেজিতে সাক্ষাৎকার দিলেও কেমন আছো ও ভালো আছি কথাগুলো বাংলায়ই বলেছেন। এর আগে সংবাদ সম্মেলনে বাংলায় বলেছিলেন, ‘ভালোবাসি’। শুধু কি এই বিপিএলেই? মুস্তাফিজ আইপিএলে খেলার সময়ও তো তাকে নিয়ে ওয়ার্নার টুইট করতেন বাংলায়, গুগোল ট্রান্সলেটর ব্যবহার করে!

ওয়ার্নারের কাছ থেকে মুস্তাফিজ অনেক শিখেছেন বটে। তবে ওয়ার্নারও নিশ্চয়ই মুস্তাফিজের কাছে ঋণী। তার কারণেই যে সাবেক অজি সহ-অধিনায়কের শেখা হয়েছে টুকটাক বাংলা!

আরও পড়ুন: আশরাফুলের কণ্ঠে জেমসের গান

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

কুককে ‘বল টেম্পারিং’ করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন ওয়ার্নার!

আর্চারকে স্টেইনের সাথে তুলনা করলেন ওয়ার্নার

আর্চারের বোলিং তোপে লন্ডভন্ড অস্ট্রেলিয়া

স্মিথ-ওয়ার্নারদের সাথে এ কেমন আচরন!

বিশ্বকাপের সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যান