Scores

২০০৭ সালেই ক্রিকেটের প্রতি আগ্রহ হারিয়েছিলেন শচীন!

ভারতীয় ব্যাটিং কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকার ২০০৭ সালেই ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে নিতে চেয়েছিলেন। কারণ তিনি তার পছন্দমতো জায়গায় খেলার সুযোগ পাচ্ছিলেন না। শচীনকে তার পছন্দমতো পরিবেশ তৈরি করে সাহায্য করেছিলেন ভারতের তৎকালীন কোচ- এমনটা জানিয়েছেন গ্যারি কারস্টেন।

২০০৭ সালের বিশ্বকাপটা ভারতের জন্য সুখকর ছিল না। প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয় শক্তিশালী দলটি। দলের সবচেয়ে বড় তারকা শচীন তারপরই অবসর নিতে চেয়েছিলেন। এই কথা তিনি নিজেও আগে জানিয়েছেন। কীভাবে এই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে আনা হলো তা জানালেন কারস্টেন।

Also Read - ২৫ জুন ক্রিকেট ফিরছে শ্রীলঙ্কায়


ভারতের সাবেক কোচ জানান, শচীন নিজের পছন্দমতো জায়গায় ব্যাটিংয়ের সুযোগ না পেয়ে হতাশ হয়ে পড়েছিলেন, ‘কোচিংয়ের সময় টেন্ডুলকারের সাথে আমি দারুণ সময় কাটিয়েছি। ২০০৭ সালে যখন সে দেশে ফিরলো (বিশ্বকাপ থেকে), তখনই ক্রিকেট ছেড়ে দিতে চেয়েছিল। কারণ সে নাকি নিজের পছন্দমতো জায়গায় ব্যাটিং করতে পারছিল না। ফলে সে ক্রিকেটটাকে একটুও উপভোগ করছিল না, আগ্রহ হারিয়ে ফেলছিল।’

কারস্টেন শচীনকে যেভাবে সাহায্য করেছিলেন, ‘আমি তার অনুকূল পরিবেশ তৈরি করে দিয়েছিলাম। কিন্তু আমি তাকে এসব নিয়ে বেশি কিছু বলিনি। কারণ সে জানতো তাকে কী করতে হবে, শুধু দরকার ছিল ভালো পরিবেশ। তারপর সে তিন বছরেই ১৮টি (১৯) শতক করলো। নিজের পছন্দের জায়গায় ব্যাটিংয়ে ফিরে বিশ্বকাপ জিতলো।’

তারপর শচীন আরও ৬ বছর ক্রিকেট খেলেছিলেন। টেস্ট ও ওয়ানডে মিলিয়ে ৫ হাজারের অধিক রান করেছেন। শতক হাঁকিয়েছেন ২২টি। একমাত্র ক্রিকেটার হিসাবে ছুঁয়েছেন শতকের শতক করার রেকর্ড।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

Related Articles

আফগানদের স্বপ্ন ভেঙে দিলো অস্ট্রেলিয়া

‘বাংলাদেশিরা বাংলাদেশ থেকে শ্রীলঙ্কায় নিরাপদে থাকবে’

আটকে গেল নিউজিল্যান্ডের অস্ট্রেলিয়া সফর

সব ধরনের ক্রিকেট থেকে গুলের অবসরের ঘোষণা

ডিন জোন্সকে হারিয়ে শোকে স্তব্ধ ক্রিকেট দুনিয়া