Scores

‘২০১১ বিশ্বকাপে আমাকে নিয়ে অনেক নাটক হয়েছিল’

২০১১ বিশ্বকাপ অনেক কারণে মনে থাকবে বাংলাদেশের। প্রথমবার ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ আয়োজনের সুযোগ পায় টাইগাররা। সেই বিশ্বকাপ দলে জায়গা হয়নি মাশরাফি বিন মুর্তজার। ভাগ্য দুলছিল মোহাম্মদ আশরাফুলেরও। শেষপর্যন্ত অনেক নাটকের পর বিশ্বকাপ স্কোয়াডে নাম ওঠে তার।

মিরপুরে মাশরাফির সেই কান্না ভেজা চোখের চিত্র হৃদয়ে গেঁথে থাকার কথা ক্রিকেট সমর্থকদের। ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ দলে সুযোগ না পেয়ে স্কোয়াড ঘোষণার দিন অঝোরে কেঁদেছিলেন সাবেক অধিনায়ক। ওই বিশ্বকাপে মাশরাফির নাম বাদ পড়লেও কোনরকম টিকে গেছিল আশরাফুলের নাম।

Also Read - পানি খাইয়ে প্রিমিয়ার লিগে খেলেছিলেন আশরাফুল!


তবে আশরাফুলকে দলে রাখতে সেই সময় একাই লড়েছিলেন তখনকার জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক রফিকুল আলম। অনেক নাটকীয়তার পর ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ পান আশরাফুল। যদিও একাদশে অনিয়মিত ছিলেন তিনি। সেই বিশ্বকাপে মোটে দুইটি ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়েছিল তার।

সম্প্রতি বিডিক্রিকটাইমের ভিডিও আড্ডায় এসে সেই সময়ের স্মৃতিচারণ করেন আশরাফুল, ‘২০১১ বিশ্বকাপে অনেক নাটক হয়েছিল আমাকে নিয়ে। তখন প্রধান নির্বাচক ছিলেন রফিকুল আলম। উনাকে আমি ধন্যবাদ জানাব। কারণ, উনি একমাত্র ব্যক্তি ছিলেন যিনি আমাকে দলে চেয়েছিলেন। সবাই চাচ্ছিলেন আমি যেন দলের বাইরে থাকি। কিন্তু একমাত্র উনি আমাকে দলে রাখেন।’

বিশ্বকাপের পরিসংখ্যান আর তখনকার ফর্ম এগিয়ে রেখেছিল আশরাফুলকে, ‘আমার বিশ্বকাপ রেকর্ড যদি দেখেন। আমার বিশ্বকাপ রেকর্ড বাংলাদেশের ওই সময়কার বিচারে অনেক ভাল ছিল। ২০০৩ বিশ্বকাপে আমরা ভালো করতে পারিনি, তবে দেশের হয়ে একমাত্র ফিফটি আমার ছিল। ২০০৭ বিশ্বকাপে আমরা সুপার এইট খেলি। ওখানেও আমি সেরা পারফর্মার ছিলাম।’

‘তো উনার কাছে মনে হয়েছে বড় ইভেন্টগুলোর পারফরম্যান্স বিচার করে আমাকে রাখা দরকার। ওই সময় ঢাকা প্রিমিয়ার লিগেও খুব ভালো করেছিলাম, উইকেটও পেয়েছিলাম বেশকিছু। তো উনি বললেন, আমার ফর্ম আছে, রেকর্ডও ভালো। একে তো বাদ দেয়ার কোন কারণ নাই।’– সাথে যোগ করেন তিনি।

তবে স্কোয়াডে জায়গা হলেও মোটে দুইটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পান আশরাফুল, ‘শেষপর্যন্ত অনেকে বিরোধিতা করলেও বিশ্বকাপের দলে সুযোগ পাই। দুইটা ম্যাচ খেলতে পেরেছিলাম। আয়ারল্যান্ডের সাথে ব্যাটিংয়ে রান পাইনি, কিন্তু দুইটা উইকেট পেয়েছিলাম। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে ১১ রান করেছিলাম। সেই ম্যাচে কেউই ভালো করেনি। আমরা ৫৮ রানে অলআউট হয়ে গেছিলাম।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

Related Articles

২০১১ ফাইনাল নিয়ে শ্রীলঙ্কা সরকারের তদন্তের নির্দেশ

ফিক্সিংয়ের অভিযোগ নিয়ে সাঙ্গাকারা-জয়াবর্ধনের জবাব

ধোনির জন্য বিশ্বকাপ ফাইনালে ‘দুইবার’ টস করতে হয়

বিশ্বকাপে মুশফিকের সেরা ইনিংসগুলো

ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িত ২০১১ বিশ্বকাপজয়ী দলের ক্রিকেটার!