Scores

বাংলাদেশে বসছে ইমার্জিং এশিয়া কাপ, দিনক্ষণ চূড়ান্ত

দীর্ঘ বিরতির পর ২০১৭ সালে বাংলাদেশে বসেছিল ইমার্জিং এশিয়া কাপের আসর। গত বছর (২০১৮ সাল) শ্রীলঙ্কা পাকিস্তান যৌথভাবে আয়োজন করে এই টুর্নামেন্ট। এক বছর বিরতি দিয়ে আবারো বাংলাদেশে ফিরছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) তত্ত্বাবধানে আয়োজিত এই আসর।

এ বছর নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে ইমার্জিং এশিয়া কাপ। ১২ নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে। এবার টুর্নামেন্টটিতে অংশগ্রহণ করবে ৮টি দল। ৫টি টেস্ট খেলেড়ু দল বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান এই টুর্নামেন্টে অনূর্ধ্ব-১৯ ডোল নিয়ে খেলবে। বাকি ৩ দল- ওমান, হংকং ও আরব আমিরাতের জাতীয় দলই অংশগ্রহণ করবে।

Also Read - গিলক্রিস্ট বলছেন বিশ্বকাপ জিতবে অস্ট্রেলিয়াই


ইমার্জিং এশিয়া কাপের জন্য বাংলাদেশ দল গঠন করবে মূলত হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ইউনিটের সমন্বয়ে। টুর্নামেন্টের জন্য গঠিত স্কোয়াডের সদস্য সংখ্যা হবে ১৫ জন। যেখানে ১১ জনকে বাধ্যতামূলক অনূর্ধ্ব-২৩ বছর বয়সী হতে হবে। সর্বোচ্চ ৪ জন নেয়া যাবে ২৩ বছরের বেশি বয়স্ক। সে ৪ জন জাতীয় দলের ক্রিকেটারও হতে পারেন। তবে ম্যাচের একাদশে ২৩ বছরের বেশি সর্বোচ্চ ৩ জনকে রাখা যাবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ন্যাশনাল গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটির ম্যানেজার কায়সার আহমেদ এই টুর্নামেন্ট ও বাংলাদেশ দল সম্পর্কে বলেন, ‘আগামী ১২-২৫ নভেম্বর আমাদের দেশে ইমার্জিং এশিয়া কাপ হবে। ওটার জন্য দল তৈরি করা এইচপি’র মাধ্যমে। এইচপি ক্যাম্প নিয়ে আমাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে যারা সুযোগ পেয়েছেন তাদের টেকনিকে যে সমস্যা আছে বিশেষজ্ঞ কোচদের অধীনে সেটি শুধরে নেয়া, সামনে যে ক্রিকেট মৌসুম আছে সেটির জন্য তৈরি করা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হোক, ঘরোয়া ক্রিকেট হোক, যত খেলা আছে তার জন্য প্রস্তুত করা। এরই ধারাবাহিকতায় সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আমাদের অনুশীলন পর্ব চলবে।’

টুর্নামেন্টটি আয়োজিত হবে ৫০ ওভারে। কোন কোন ভেন্যুতে খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হবে তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
Tweet 20
fb-share-icon20

Related Articles

পাকিস্তানের কাছে ফাইনাল হেরে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

ফাইনাল জেতাতে লড়ছেন মেহেদী

আফিফের ব্যাটে তাকিয়ে বাংলাদেশ

ঝড়ো শুরুর পর সৌম্যর বিদায়

শিরোপা জিততে বড় লক্ষ্য বাংলাদেশের সামনে