২৬ রানেই অলআউট চীনের ব্যাটসম্যানরা!

টি-২০ ম্যাচ, যেখানে বোলারদের পিটিয়ে ছাতু বানানোই ব্যাটসম্যানদের প্রধান কাজ। এই ফরম্যাটের ক্রিকেটে টস জিতে যেকোনো দলের ব্যাটসম্যানরাই ভাববেন কত দ্রুত রান তোলা যায়। যদিও প্রতিপক্ষের বোলিং দাপটে অনেক সময় কম রানেই গুটিয়ে যেতে হয়। কিন্তু ১২০ বলের ক্রিকেটে ১০ উইকেটই হারিয়ে সংগৃহীত সেই ‘কম রান’ কতই বা হতে পারে? ৫০? ৬০? ৭০? মারকুটে ব্যাটিংয়ের যুগে ১০০ রানও তো আজকাল কম বলেই বিবেচ্য হয়!

২৬ রানেই শেষ চীনের ব্যাটসম্যানরা!

অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, বুধবার চীনের ব্যাটসম্যানরা গুটিয়ে গেছেন মাত্র ২৬ রানেই! তাও আন্তর্জাতিক ম্যাচে! এর আগে একই আসরে সাকুল্যে ৯ রান করে আলোচনার জন্ম দিয়েছিল মায়ানমার। এবার আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপের এশিয়া অঞ্চলের বাছাইয়ের ম্যাচেই চীনের ব্যাটসম্যানরা অলআউট হয়েছেন মাত্র ২৬ রানে।

টি-২০ ক্রিকেটে ক্রমেই মাথা তুলে দাঁড়াতে থাকা নেপালের বোলাররা এদিন চীনের উইকেট তুলে নিয়েছেন মুড়িমুড়কির মত। কুয়ালালামপুরে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে দলীয় ৬ রানের মাথায় ওপেনার নিং সুনকে হারায় চীন। এরপর প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেছিলেন হং জিয়াং ইয়ান। তার ১১ রানের সাথে নেপালের বোলারদের বদান্যতায় যুক্ত হয় বেশ কিছু অতিরিক্ত রান। দলীয় ২১ রানে চেন জিনফেং সাজঘরে ফেরার পরই নেপালের চমক দেখানো শুরু।

Also Read - আবারও ঢাকার হয়ে বিপিএলে ফিরছেন আন্দ্রে রাসেল!

পরের বলে (সপ্তম ওভার) সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক চেন জিয়াওরান, দলীয় ২১ রানেই। পরের ওভারে রান সংখ্যার পরিবর্তন ছাড়াই সাজঘরে ফেরেন টিয়ান সেন কুন ও হনহ জিয়াং ইয়ান। নবম ওভারে দলীয় ২১ রানেই আউট হন হাওতিয়ান লি। ডেংঝি মা’র ৫ রানের সুবাদে সপ্তম উইকেটে দলের রান সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ২৪-এ। এরপর একে এক সাজঘরে ফেরেন ইয়ুনফেং ঝু, ওয়াং ইয়া, ডেংঝি মা ও শি ফু ইয়েং। ১৩ ওভার ব্যাট করে মাত্র ২৬ রানেই গুটিয়ে যায় চীন, যেখানে নেপালের বোলাররা অতিরিক্ত খাতেই দিয়েছেন ৯ রান!

এর মধ্যে আবার নয়টিই ছিল ওয়াইড। সেটি না হলে আটজন ব্যাটসম্যান শূন্য রানে আউট হওয়ার দিনে আরও বড় লজ্জায় পড়তে পারত চীন। নেপালের পক্ষে সন্দ্বীপ লামিচানে, বসন্ত রেগমি ও ললিত রাজবংশি তিনটি করে উইকেট শিকার করেন।

সহজ জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে বোলিংয়ের মত নেপাল ‘জাত চিনিয়েছে’ ব্যাটিংয়েও। কোনো উইকেট না হারিয়ে মাত্র ১১ বলে লক্ষ্যের চেয়েও ২ রান বেশি করে যেন বলতে চেয়েছে- ‘এ আর এমন কী!’

আরও পড়ুন: আবারও ঢাকার হয়ে বিপিএলে ফিরছেন আন্দ্রে রাসেল!

Related Articles

জয় ছাড়া কিছু ভাবছে না জিম্বাবুয়ে

অজিদের বিপক্ষে পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি দলেও নেই আমির

আজহার আলির হাস্যকর আউটে টুইটারে সমালোচনার ঝড়

হুট করে সরে গেলেন লুইস

৬ বছর পর ফিক্সিংয়ের কথা স্বীকার করলেন কানেরিয়া