Scores

ভিডিও:৩৩ বলে ডি ভিলিয়ার্সের ৭৩ রানের তাণ্ডব

ব্যাটিংয়ে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের রানটা ১৯০ ছাড়িয়ে যাবে তা প্রথমে মনে হয়নি। তবে এবি ডি ভিলিয়ার্সের ৩৩ বলে ৭১ রানের এক বিধ্বংসী ইনিংসে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর থামে ১৯৪ রানে। শেষ পাঁচ ওভারে রান হয় ৮৩। দুই দলের মাঝে  একাই পার্থক্য গড়ে দেন তিনি। এরপর বোলারদের নৈপুণ্যে লক্ষ্যের ধারেকাছেও যেতে পারেনি কলকাতা নাইট রাইডার্স।

ডি ভিলিয়ার্সের ঝড়ে ব্যাঙ্গালোরের বড় সংগ্রহ




টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্নবিদ্ধ হওয়া সুনীল নারাইনের পরিবর্তে দলে রাখা হয়েছে ব্যাটসম্যান টম ব্যান্টন। তাই হাতে একজন বোলার কম ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্সের।

Also Read - রান দেখে আমি নিজেই বিস্মিত : ডি ভিলিয়ার্স

ব্যাটিংয়ে  অ্যারন ফিঞ্চ আর দেবদূত পাড়িক্কাল মিলে শুরুটা করেন দেখেশুনেই। প্রথম ৬ ওভারে রান হয় ৪৭। তাদের জুটি ভাঙেন আন্দ্রে রাসেল। ২৩ বলে ৩২ রান করে রাসেলের বলে বোল্ড হন পাড়িক্কাল। এরপর থেকে কমতে থাকে রানের গতি। মাঝের ওভারগুলোতে গতির বৈচিত্র্য এনে ফিঞ্চ আর বিরাট কোহলিকে আটকে রাখেন কামলেশ নাগারকোটি।  দারুণ এক ইয়র্কারে ফিঞ্চকে বোল্ড করেন প্রাসিধ কৃষ্ণা। ৩৭ বলে ৪৭ রান করেন ফিঞ্চ। ফিঞ্চ-কোহলির জুটি থেকে আসে ২৮ বলে ২৭ রান।

কমে যাওয়া রান রেটকে টেনে তোলার দায়িত্ব নেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। ব্যাটিংয়ে নেমে নিজের ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই হাঁকান বাউন্ডারি। সেই শুরু হওয়া ঝড় আর থামেনি। নাগারকোটির করা ১৬তম ওভারে মারেন দুই ছক্কা আর এক চার। কোহলিকে স্লোয়ার দিয়ে নাগারকোটি আটকে রাখলেও ডি ভিলিয়ার্স স্লোয়ার বলগুলো আঁছড়ে ফেলেন গ্যালারিতে। প্যাট কামিন্সের করা পরের ওভারেও দুই ছক্কা আর এক চার মারেন ডি ভিলিয়ার্স।

বিধ্বংসী ডি ভিলিয়ার্সের সামনে অসহায় ছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের বোলাররা। আন্দ্রে রাসেল, প্রাসিধ কৃষ্ণা, প্যাট কামিন্স, কামলেশ নাগারকোটি- ছাড় দেননি কাউকেই। শেষ ৫ ওভারে ৮৩ রান সংগ্রহ করলে ১৯৪ রানের বড় পুঁজি পায় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যঙ্গালোর।

৩৩ বলে ৭৩ রান করে অপরাজিত ছিলেন ডি ভিলিয়ার্স। এই ৩৩ বলের ইনিংসে ১১ বলেই বলকে সীমানা পার করান তিনি। এর মধ্যে পাঁচটি ছিল চার আর ছক্কা ছিল ছয়টি। কোহলি অপরাজিত ছিলেন ৩৩ রান করে।

ডি ভিলিয়ার্স আর বোলারদের নৈপুণ্যে বড় জয় পেল ব্যাঙ্গালোর

জবাব দিতে নেমে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে ওপেনিং করতে নামেন টম ব্যান্টন আর শুভমান গিল। পরীক্ষিত ওপেনার রাহুল ত্রিপাঠীকে ওপেনিং থেকে সরিয়ে আনার সিদ্ধান্তটা সঠিক মনে হয়নি অনেকের কাছে। ১০ বলে ৭ রান করে নবদ্বীপ সাইনির বলে বোল্ড হন ব্যান্টন।  এরপর নিতিশ রানাকে বোল্ড করেন ওয়াশিংটন সুন্দর। ১৪ বলে মাত্র ৯ রান করেন তিনি। ৫১ রানে দুই উইকেট হারায় কলকাতা নাইট রাইডার্স।

এক ওভার পরেই রান আউট হন শুভমান গিল। থিতু হয়ে যাওয়া এ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে চাপে পড়ে দলটি। ২৫ বলে ৩৪ রান করেন গিল। পরের ওভারে দীনেশ কার্তিককে বোল্ড করেন চাহাল। কার্তিক ফেরার পরের ওভারেই সুন্দরের বলে শর্ট থার্ড ম্যানে ক্যাচ দেন ইয়ন মরগান। ৬৪ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ছিটকে যায় কলকাতা নাইট রাইডার্স। সুন্দর আর চাহালের স্পিন জুটিতে রানের গতিকে মন্থর করে দেয়।

আন্দ্রে রাসেল ঝড়ের আভাস দিলেও ১০ বলে ১৬ রান করে ইসুরু উদানার বলে আউট হন তিনি। দলীয় ৮৫ রানের মাথায় ষষ্ঠ উইকেট হারায় কলকাতা নাইট রাইডার্স। রাসেলের বিদায়ের পর আসা-যাওয়ার মধ্যে ছিলেন লোয়ার অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা। সাতে নামা ত্রিপাঠী করেন ২২ বলে ১৬। ২০ ওভার ব্যাটিং করে ১১২ রান করে থামে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর ১৯৪/২, ২০ ওভার
ডি ভিলিয়ার্স ৭৩*,  ফিঞ্চ ৪৭, কোহলি ৩৩
রাসেল ১/৫১, কৃষ্ণা ১/৪২

ভিডিওতে দেখুন কলকাতার বিপক্ষে ডি ভিলিয়ার্সের তান্ডব 

 

কলকাতা নাইট রাইডার্স ১১২/৯, ২০ ওভার
গিল ৩৪, রাসেল ১৬, ত্রিপাঠী ১৬
মরিস ২/১৭, সুন্দর ২/২০, চাহাল ১/১২


Related Articles

সূর্যকুমার হলো ভারতীয় ডি ভিলিয়ার্স : হরভজন

ব্যাঙ্গালোরকে বিদায় করে দিয়ে কোয়ালিফায়ারে হায়দরাবাদ

ডি ভিলিয়ার্সের মিউজিক ভিডিওতে গাইলেন কোহলি-স্টেইনরা

বিগ ব্যাশ থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিলেন ডি ভিলিয়ার্স

ব্যাঙ্গালোরকে হারিয়ে চেন্নাইয়ের প্রতিশোধ