‘৩’ নম্বরে ব্যাট করার সুযোগ বদলে দিয়েছে মার্শকে

0
219

সপ্তমবারের চেষ্টায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ঘরে তুলেছে অস্ট্রেলিয়া। দলের সেই প্রথম বিশ্বকাপ জয়ে ম্যাচ সেরা হয়েছেন মিচেল মার্শ

জাম্পা-এগারের টোটকা নিয়ে ভালো ব্যাটিং করতে চান মার্শ
ফাইনালে অপরাজিত ৭৭ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেন মার্শ।

অনেকটা আন্ডারডগ হিসেবেই এবারের বিশ্বকাপে খেলতে এসেছিল অজিরা। শুরুতে কারো হিসাবে না থাকলেও টুর্নামেন্ট শেষে ট্রফি উঠেছে অজিদের ঘরেই৷ আর অস্ট্রেলিয়ার এমন পরিবর্তনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন টপ অর্ডার ব্যাটার মিচেল মার্শ ।

Advertisment

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইনালে অনবদ্য এক ইনিংস খেলে দলের জয়ের রাস্তাটা সুগম করেছেন মার্শ । তার করা অপরাজিত ৭৭ রানের ইনিংসে ভর করে একরকম হেসেখেলেই কিউইদের টানা দ্বিতীয় ফাইনালে হারিয়ে দিয়েছে অজিরা৷

ফাইনাল ম্যাচের এমন অসাধারণ পারফরম্যান্সের স্বীকৃতিস্বরুপ ম্যান অফ ফাইনালের স্বীকৃতি পেয়েছেন মিচেল মার্শ। এমন অর্জনে ভাষাহীন হয়ে পড়েন তিনি। ম্যাচ শেষের পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মার্শ বলেন, ‘আমি জানি অনেকেই এটা বলে থাকে।  তবে আসলেই এই মুহুর্তে বলার মত কিছুই খুঁজে পাচ্ছি না আমি৷’ 

২০২১ সালে এসে স্বপ্নের মত বদলে গেছে মার্শের টি-টোয়েন্টি পরিসংখ্যান। এবছরের আগে তার ক্যারিয়ার গড় ছিল মাত্র ২৩।  অথচ ২০২১ সালে তা প্রায় ৩৭৷ কিন্তু, কিভাবে এতো পরিবর্তন আসলো মিচেল মার্শের ব্যাটিংয়ে?

ম্যাচ শেষে সেই প্রশ্নের উত্তরও দিয়েছেন মিচেল মার্শ। জানিয়েছেন, ‘উইন্ডিজ সিরিজে কোচিং স্টাফ আমাকে তিন নম্বরে ব্যাট করার কথা বললেন৷  আমি সেই সুযোগটা লুফে নিলাম৷ ক্লাব ক্রিকেটে মাঝে মাঝে তিনে ব্যাট করার অভিজ্ঞতাও আছে আমার৷ আমাকে সেই সুযোগ করে দেওয়ার জন্য টিম ম্যানেজমেন্টের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ৷’ 

মার্শ কথা বলেছেন ফাইনাল ম্যাচে ছয় মেরে ইনিংস শুরু করার ব্যাপারেও৷ অজি এই অলরাউন্ডার বলেছেন, ‘এমনটাই যে করবো সেটা আসলে আমার পরিকল্পনায় ছিল না। আমি শুধু ইনিংসের শুরুতেই নিজের উপস্থিতির কথা জানান দিতে চাচ্ছিলাম। স্টয়নিস সবসময় এটার ব্যাপারে উৎসাহ দিয়ে থাকে৷’ 

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।