SCORE

সর্বশেষ

‘দেশ স্বাধীন না হলে বাশার হতে পারতাম না’

বিজয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বিজয় দিবস ক্রিকেটে শনিবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমান নির্বাচক হাবিবুল বাশার। অন্যান্য দিনের চিরায়ত প্রথা ভেঙে এদিনের আলাপচারিতার বেশিরভাগ জুড়েই ছিল স্বাধীনতা যুদ্ধ ও বিজয় অর্জন।

'দেশ স্বাধীন না হলে বাশার হতে পারতাম না'

এর আলাপের প্রাক্বালে হাবিবুল বাশার বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন না হলে কোনোদিন আমি হাবিবুল বাশার হতে পারতাম না।’

Also Read - জুয়েল ও মুস্তাকের ম্যুরাল তৈরির দাবি

শনিবার ‘হোম অব ক্রিকেট’ খ্যাত মিরপুরে শহিদ জুয়েল ও শহিদ মুস্তাক একাদশের মধ্যকার খেলায় বসেছিল তারার মেলা। তবে সবাই স্মরণ করছিলেন মূলত দুটি তারাকে- শহিদ ক্রিকেটার জুয়েল ও শহীদ ক্রিকেটার মুস্তাককে।

উপস্থিত সংবাদমাধ্যমকে এদিন হাবিবুল বাশার বলেন, ‘অবশ্যই এ দিনটার জন্য আমরা অপেক্ষা করে থাকি। বিশেষ করে ১৬ ডিসেম্বর, ২৬ শে মার্চ আমরা সবাই একসঙ্গে হই। একসঙ্গে খেলি। এ দিনে আমরা সবাইকে স্মরণ করি। বাংলাদেশ না হলে আমরা ক্রিকেটার হতে পারতাম না। অন্ততঃ কোনোদিন আজকের এই হাবিবুল বাশার হতে পারতাম না। তো যাদের জন্য স্বাধীনতা পেয়েছি, তাদেরকে একটু সম্মান জানানোর উদ্দেশ্যেই এদিনটাতে আমরা এক হই।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের জন্য তো আমরা সবাই কিছু না কিছু করতে চাই। এ দিনে সবার সঙ্গে দেখা হয়, খেলা হয়। এর মধ্যে প্রতিযোগিতা থাকে। হার-জিতের একটা ব্যাপার আছে। আসলে আমরা সবাই এ দিনটা উপভোগ করি।

বাশারের মতে, জুয়েল বা মুস্তাকের আত্মত্যাগের মহিমাই ক্রিকেটে নিয়ে এসেছে তাদের, ‘আমার মনে হয় এটা নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করা উচিত। কারণ, দেখেন ঐতিহ্যটাকে কিন্তু ধরে রাখতে হবে। জুয়েল ভাই, মোস্তাক ভাই যদি ক্রিকেট না খেলতেন তাহলে হয়তো আমরা ক্রিকেটার না হয়ে অন্যকিছু হতাম। তারা কিন্তু ওই সময়ে খেলেছে। তাদের ত্যাগের বিনিময়ে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার কারণেই আমারা ক্রিকেটকে পেশা হিসেবে নিতে পেরেছি। অনেক সুযোগ সুবিধা পেয়েছি। এখন তাই অনেক খেলাও হয়। এটা কিন্তু তারা ওই সময়ে ক্রিকেট খেলেছে বলে, দেশের জন্য লড়াই করেছে বলেই সম্ভব হয়েছে এবং এখনো খেলাটা আছে। আমরাও খেলতে পারছি। ক্রিকেট খেলার প্রতি সবাই আগ্রহ দেখাচ্ছে এবং এ ঐতিহ্যটা তাদের কাছ থেকেই এসেছে।’

ক্রিকেটে আবির্ভাবের পেছনে শহিদ জুয়েল ও শহিদ মুস্তাকদের অবদানের কথা আবারও তুলে ধরে বাংলাদেশের অন্যতম সফল অধিনায়ক বলেন, ‘আমি আবারও বলতে চাই তারা (জুয়েল-মোস্তাক) যদি ওই সময়ে ক্রিকেট না খেলতেন, তাহলে আমরা আজ ক্রিকেট খেলতে পারতাম না। আমরা কতখানি এগুতে পেরেছি তা এখন দৃশ্যমান। আমাদের ক্রিকেট এখন অনেক এগিয়েছে। আমরা এখন সবার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারছি। বাংলাদেশ ক্রিকেট জাতি হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছে। আরো এগুতে পারতাম কি-না সেই প্রশ্ন থাকতেই পারে। আমাদের উন্নতিটা হচ্ছে। গত কয়েক বছর ধরে। আমরা ভালো এগুচ্ছি। আমাদের ভবিষ্যৎ অনেক ভালো। অনেকেই বলেন যে, বাংলাদেশ কবে বিশ্বকাপ জিতবে। একটা জিনিস আমি বলতে পারি, বিশ্বকাপ অবশ্যই একদিন বাংলাদেশ জিতবে।’

আরও পড়ুনঃ প্লে-অফেও জিতল তামিমের পাখতুন্স

1 of 1

Related Articles

ট্রাই নেশনে ফেভারিট বাংলাদেশ!