নতুন টেস্ট অধিনায়ক সাকিব

২০১১ সালে তিন ফরম্যাটের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পেয়েছিলেন উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিম। ২০১৪ সালে রঙিন পোশাকে তার অধিনায়কত্বের অবসান ঘটে। এবার ইতি ঘটলো মুশফিকের টেস্ট অধিনায়কত্বের। নতুন অধিনায়ক হিসেবে বর্তমান টি-২০ অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের নাম ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। রোববার সন্ধ্যায় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এ ঘোষণা দেন।

নতুন অধিনায়ক সাকিব

রোববার অনুষ্ঠিত হয় বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের সভা। সেখানেই সাকিব আল হাসানকে নতুন অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

Also Read - টস জিতে ফিল্ডিংয়ে কুমিল্লা

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে কোনো ম্যাচেই জিততে পারেনি বাংলাদেশ। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ভরাডুবির পর গুঞ্জন উঠে অধিনায়ক পরিবর্তনের।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, “আমরা টেস্ট অধিনায়ক পরিবর্তন করছি। আগামী সিরিজ থেকে আমাদের টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। সহ-অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।” 

“আমরা আপনাদের একদম ঠিক কারণ বলতে পারছি না। আমরা মনে করি মুশফিকুর রহিমের ব্যাটিংয়ে আরো ফোকাস করা উচিত ও চাপমুক্ত থাকা উচিত। ” 

অধিনায়কের পাশাপাশি পরিবর্তন এসেছে সহ-অধিনায়কত্বেও। মুশফিকুর রহিমের সহ-অধিনায়ক ছিলেন ওপেনার তামিম ইকবাল। সাকিব আল হাসানের সহ-অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পেয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। মুশফিকুর রহিম যখন অধিনায়ক ছিলেন তখন সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। আবারো ফিরে পেলেন এ দায়িত্ব।

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশকে ৩৪ টি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছেন মুশফিক। বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি টেস্টে অধিনায়কত্ব করার রেকর্ডটা তার দখলে। এ ৩৪ টেস্টের ৭ টি টেস্টে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। ড্র করেছে ৯ টি টেস্ট। বাকি ১৮ টেস্টে হেরেছে বাংলাদেশ। ঘরের মাটিতে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট জয় ও গলেতে বাংলাদেশের শততম টেস্টে শ্রীলঙ্কাকে হারানো মুশফিকের অধীনে বড় সাফল্য। এছাড়া বাকি চার জয় এসেছে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।

রক্ষণাত্মক অধিনায়কত্বের কারণে বিভিন্ন সময় সমালোচিত হতে হয়েছে তাকে।

অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া সাকিব আল হাসান এর আগে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন নয় টেস্টে। এ নয় টেস্টের একটিতে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। জয়টি এসেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। বাকি আটটিতে পরাজিত দল ছিল বাংলাদেশ।

২০১১ সালে সাকিব আল হাসানের কাছ থেকেই অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পেয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। মুশফিক হয়ে আবার সেই সাকিবের কাছেই ফিরে গিয়েছে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব।

আরও পড়ুনঃবাবা হচ্ছেন মুশফিক!

 

1 of 1