SCORE

সর্বশেষ

বিশ্বকাপে তামিমের বাংলাদেশ ভাবনা

বাংলাদেশ দলসহ বাকি সব দলের সূচি ইতোমধ্যেই ঘোষণা করেছে আইসিসি। শুরু হয়ে গেছে বিশ্বকাপ নিয়ে নানান বিচার বিশ্লেষণ।

তামিম ইকবাল

ক্রিকেটারদের মধ্যে ঢুকে গেছে বিশ্বকাপ ভাবনা। বিসিবির একাডেমি মাঠে রানিং প্রেক্টিস করছিলেন তামিম। পাঁচ-ছয়টা চক্কর মেরে ঘেমেনেয়ে যখন একাকার, সাংবাদিকদের একজন বাঁহাতি ওপেনারের সঙ্গে দৌড়ের বাজি ধরতে চাইলেন! মজা করে বাজি ধরতে পারদর্শী তামিম হাঁপাতে হাঁপাতে বললেন, ‘এই মুহূর্তে আর পারব না!’ হাঁটুর ব্যথা অনেকটাই কমেছে, আজ শুরু করলেন রানিং। তামিম তৈরি হচ্ছেন লম্বা রেসে দৌড়ানোর জন্য।

Also Read - কোহলির সঙ্গে বোর্ডের ‘দ্বন্দ্ব’

দুদিন আগে বিশ্বকাপের সূচি প্রকাশ করেছে আইসিসি। ২ জুন থেকে শুরু হবে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ। ওভালে টাইগারদের প্রথম ম্যাচের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। ৫ তারিখ একই ভেন্যুতে গ্রুপ পর্বে নিজেদের একমাত্র দিবারাত্রির ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের মোকাবেলা করবে বাংলাদেশ। এরপর কার্ডিফে ৮ জুন নিজেদের তৃতীয় ম্যাচ খেলবে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।

১১ জুন ব্রিস্টলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামবে এরপর পাঁচদিন ম্যাচ নেই বাংলাদেশের। টৌনটনে ১৭ জুন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলবে টাইগাররা। ২০ জুন নটিংহামে বাংলাদশের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। সাউদাম্পটনে ২৪ জুন আফগানিস্তানের বিপক্ষে লড়বে বাংলাদেশ। এরপর মাঝে সাতদিন কোনো ম্যাচ নেই বাংলাদেশের। ২ জুলাই বার্মিংহামে ভারতের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। ৫ জুলাই গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে মাঠে নামবে টাইগাররা। লর্ডসে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে লড়বে পাকিস্তান।

বিশ্বকাপের ক্ষণগণনা এক প্রকার শুরুই হয়ে গেল তবে। এবার বিশ্বকাপের ফরম্যাট বা ধরনটা একটু ভিন্ন। প্রতিটি দল খেলবে একে অপরের বিপক্ষে। গ্রুপিং বাদ দিয়ে ১৯৯২ বিশ্বকাপের ফরম্যাটে ফিরে এসেছে আইসিসি। প্রতিটি দলের বিপক্ষে খেলাটা রোমাঞ্চিতই করছে তামিমকে। রানিং শেষে সংবাদমাধ্যমের সামনে আসা বাঁহাতি ওপেনার জানান, ‘ব্যক্তিগতভাবে খুবই রোমাঞ্চিত। একটা টুর্নামেন্টে সবার সঙ্গে খেলা হবে। প্রতিটি টেস্ট খেলুড়ে দেশের সঙ্গে খেলা হবে, একটা সহযোগী দেশ আছে। এটা এমন ফরম্যাট, যদি কোনো দল শিরোপা জিততে চায় পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে ওই দলকে ভালো খেলতে হবে। প্রতিটি দলকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। লম্বা সময় ধরে অনেক ম্যাচ জিততে হবে নকআউট পর্বে যেতে। ফরম্যাটটা চ্যালেঞ্জিং হবে। আমি খেলতে উন্মুখ। গ্রুপ পদ্ধতি থাকলে বোঝা যায় কটা ম্যাচ আমাদের জিততে হবে পরের ধাপে যেতে। এখানে হয়তো ৫-৬টা ম্যাচ জিততে হবে কোয়ালিফাই করতে হবে। এটা অবশ্যই চ্যালেঞ্জিং।’

গতকাল বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন অবশ্য জানিয়েছেন, বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে নিয়ে বড় স্বপ্ন তিনি দেখছেন না। তাঁর মতে, ‘বিশ্বকাপে বাংলাদেশ নিশ্চিত ভালো করবে, এটা বলা কঠিন। এখন বাংলাদেশ ভালো খেলছে। কিন্তু বাংলাদেশের চেয়ে অনেক দলই ভালো খেলছে। জিততে হলে দুটি জিনিস দরকার- ভালো খেলোয়াড় আর ভালো দল। ভালো খেলোয়াড় আছে কিন্তু আমাদের পুরো দল এখনো প্রস্তুত নয়। সেদিক দিয়ে অনেক পিছিয়ে আছি অনেক দল থেকে।’

বিসিবি বস পাপনকে হতাশায় ডুবিয়েছে আরো একটি কারণ। যেহেতু বিশ্বকাপটা হবে ইংল্যান্ডে, বিরুদ্ধ কন্ডিশনে কঠিন সব প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ কত দূর এগোবে, সেটি নিয়ে সন্দিহান বিসিবি সভাপতি, ‘আমাদের বেশির ভাগ সাফল্য দেশে বা উপমহাদেশে। উপমহাদেশের বাইরে খুব বেশি সাফল্য পাইনি। যেহেতু বিশ্বকাপটা উপমহাদেশের বাইরে, কী করা উচিত আমরা জানি, চেষ্টা করব। তবে সাফল্য নির্ভর করছে আমাদের ছেলেরা কেমন করছে আর প্রতিপক্ষ কেমন করছে সেটির ওপর। এটা একদিনের খেলা। যেদিন যে ভালো খেলবে সে জিতবে। তবে বাংলাদেশের উন্নতির অনেক জায়গা আছে।’

তবে তামিম এখনই বিশ্বকাপ নিয়ে কথা বলতে চাইছেন না। এখনো এক বছর পরে বললেও, তামিমের ভাবনায় একেবারেই যে বিশ্বকাপ নেই তা কিন্তু নয়। বাংলাদেশ নকআউট পর্বে যেতে পারবে কি না কিংবা বাংলাদেশ দল বিশ্বকাপকে ঘিরে কি ভাবছে তা সবার কাছেই অজানা। ‘বিশ্বকাপে যারা যায় ভালো করতেই যায়। সব সময়ই বলছি এক বছরের পরের চিন্তা না করাই ভালো। তার আগে আমাদের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ আছে। এগুলোয় মনোযোগী থাকা ভালো। হ্যাঁ, বিশ্বকাপে যাব ভালো করব, এটা সবাই চাই। এখনই বিশ্বকাপ নিয়ে কথা বলাটা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নয়। আমাদের সামনে যে সিরিজ আসছে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর, এশিয়া কাপ, অনেক টুর্নামেন্ট সামনে। তবে চূড়ান্ত লক্ষ্য বিশ্বকাপ, সবাই এখানে ভালো খেলতে চায়। বিশ্বকাপে আমাদের পারফরম্যান্স নির্ভর করবে, এই সিরিজগুলো আমরা কেমন খেলছি’—তামিমের চোখ আপাতত নিকট ভবিষ্যতেই।

বিশ্বকাপের পরিকল্পনা করেন সাধারণত প্রধান কোচ। অনেক দিন হলো সেই কোচই নেই বাংলাদেশ দলে। কোচ নিয়োগে বিসিবি যে ধীর চলো নীতিতে চলছে, তামিম একে ইতিবাচকভাবেই দেখছেন, ‘তারা তাড়াহুড়ো করছে না, এটা ভালো লাগছে। চাইলে হুট করে একজন নিয়েও আসতে পারত। তাড়াহুড়ো না করে যাকেই নিয়ে আসুক সময় নিয়ে করছে। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যথার্থ কোচকে খুঁজতে সময় নিচ্ছে, এটা ভালো দিক। আর খেলোয়াড়দের কথা যদি বলেন, এই খেলোয়াড়েরাই হয়তো খেলবে। একটু উনিশ-বিশ হতে পারে। খেলোয়াড়েরা সবাই মানসিকভাবে প্রস্তুত, তারা জানে যে ভিন্ন কন্ডিশনে বিশ্বকাপ খেলতে হবে। এখন যে কোচিং স্টাফ আছে তারা সেভাবেই এগোচ্ছে। বিদেশের মাটিতে কীভাবে আরও ভালো খেলতে পারি, সেভাবেই আমরা এগোচ্ছি।’

গতকাল নাজমুল হাসান পাপন অবশ্য জানিয়েছিলেন, ‘কোচের ব্যাপারটি অনেক দূর এগিয়েছে। কোচের ব্যাপারে অবশ্যই অগ্রগতি হয়েছে। চুক্তিপত্র সই হয়ে হাতে না আসা পর্যন্ত আমরা কিছু বলতে পারছি না। আশা করি হয়ে যাবে। ওটা (চুক্তিপত্র) হাতে পেলেই হয়ে যাবে।’

 

এক নজরে ২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সূচি-

২ জুন, ২০১৯- বাংলাদেশ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা, দ্যা ওভাল
৫জুন, ২০১৯- বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড, দ্যা ওভাল, দিবারাত্রি
৮জুন, ২০১৯ বাংলাদেশ বনাম ইংল্যান্ড, কার্ডিফ
১১ জুন, ২০১৯- বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কা, ব্রিস্টল 
১৭ জুন, ২০১৯-  বাংলাদেশ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ, টৌনটন
২০ জুন, ২০১৯-  বাংলাদেশ বনাম অস্ট্রেলিয়া, নটিংহাম
২৪ জুন, ২০১৯- বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান, সাউদাম্পটন
২ জুলাই, ২০১৯- বাংলাদেশ বনাম ভারত, বার্মিংহাম
৫ জুলাই , ২০১৯- বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান, লর্ডস

আরো পড়ুনঃ  আশাহীনতার দায় কি বিসিবি’র নয়?

1 of 1

Related Articles

২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত খেলে যেতে চান মাশরাফি

বিশ্বকাপে ভালো করার সেরা সুযোগ এবার!

বাংলাদেশকে নিয়ে আশা নেই পাপনের!

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপঃ দূর হবে টাইগারদের ম্যাচ খরা

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের আয়োজক জিম্বাবুয়ে