মুস্তাফিজদের শৃঙ্খল করতে অভিনব রীতি!

ক্রিকেটসহ যেকোনো খেলাধুলার আগেই অনুশীলন গুরুত্বপূর্ণ। খেলোয়াড়েরা নিজেকে ঝালাই করে নেওয়ার পাশাপাশি অনেক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তও নেওয়া হয় এই অনুশীলন সেশনে। কিন্তু খেলোয়াড়েরা যদি সেই অনুশীলনে দেরি করে আসেন, তাহলে কীভাবে হয়!

মুস্তাফিজদের শৃঙ্খল করতে অভিনব রীতি!

ক্রিকেটারদের এমন অনাকাঙ্ক্ষিত কার্যক্রম এড়াতে এবার অভিনব এক ব্যবস্থা নিয়েছে আইপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। যে ক্রিকেটার অনুশীলনে দেরি করে আসবেন, তাকে পরিয়ে দেওয়া হবে বিশেষ এক পোশাক, যেখানে আঁকা অনেকগুলো কার্টুনের চেহারা। সেই পোশাক পরেই থাকতে হবে দলের সাথে যাত্রায়। শুধু অনুশীলনই হয়, এই শাস্তি প্রযোজ্য হবে টিম মিটিং বা বাস ধরতে দেরি করলেও।

Also Read - সামর্থ্য বিচারে রংপুরকে ইঙ্গিত গেইলের

সাধারণত এসব অপরাধে জরিমানার ব্যবস্থা রাখে টিম ম্যানেজমেন্ট। জরিমানার টাকাটা অবশ্য খরচ হয় ক্রিকেটারদের আমোদেই। তবে এতেও ক্রিকেটারদের খুব একটা বোধোদয় হয় না। এজন্যই মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের এমন অভিনব শাস্তির ব্যবস্থা।

ইতোমধ্যে মুস্তাফিজুর রহমানের দুই সতীর্থ পেয়েও গেছেন এই শাস্তি। শাস্তি পাওয়া দুই ক্রিকেটার হলেন ঈশান কিষাণ ও অনুকূল রায়। ঈশান দলের জিম সেশনে যোগ দিতে দেরি করেছিলেন। তিনি বলেন, ‘আমাকে দুইদিন আগেই বলা হয়েছিল। আমি বেমালুম ভুলে গিয়েছিলাম।’

অনুকূল বলেন, ‘দেরি করেছি, তাই শাস্তি পেয়েছি।’

অবশ্য এমন শাস্তিতে মন খারাপ হওয়ার বদলে আরও আমোদে দেখা গেছে দুই ক্রিকেটারকে। বিমানবন্দরে দুই ক্রিকেটারকে দেখে মজা পাচ্ছিলেন আশেপাশের লোকেরাও। অনেকে দুজনের সাথে সেলফিও তুলতে যান। রসাত্মক ছিলেন ঈশান ও অনুকূলের সতীর্থরাও।

এই শাস্তি অবশ্য দলের সবার জন্যই, যিনিই করবেন অপরাধ। এমনকি দোষ করলে বাদ যাবেন না অধিনায়ক রোহিত শর্মাও। দলের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘মজা করে হলেও যে বার্তা দেওয়া যায়, এটা তারই একটা উদাহরণ। দেরি করার জন্য বিশেষ ধরনের পোশাক পরানোর ব্যাপারে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। অধিনায়ক রোহিত শর্মারও যদি দেরি হয়, একই শাস্তি পেতে হবে।

আরও পড়ুনঃ ঘরোয়া লঙ্গার ভার্শনে মনোযোগ মাশরাফির

1 of 1