SCORE

সর্বশেষ

সিনিয়রদের প্রতি লিখনের কৃতজ্ঞতা

লেগ স্পিনারের যে চিরায়ত আক্ষেপ বাংলাদেশের, জুবায়ের হোসেন লিখনের আবির্ভাবে অনেকেই দেখেছিলেন তার ইতি। তবে সেই লিখন সময়ের সাথে হারিয়ে যেতে বসেছিলেন। জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ার পর অনেকদিন শোনা যায়নি নাম-ডাক।

সিনিয়রদের প্রতি লিখনের কৃতজ্ঞতা

সম্প্রতি আবারও জাতীয় দলের জন্য আলোচনায় এসেছে তার নাম। রোববার সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে লিখন জানান তার প্রত্যাবর্তনের জন্য কতটুকু চেষ্টা ছিল- সেই কথা। সেই সাথে তিনি ধন্যবাদ জানান সিনিয়র ক্রিকেটারদের, যারা লিখনকে যুগিয়ে গেছেন সাহস।

Also Read - "আমি কাউকে দোষ দেবো না"

লিখন বলেন-

‘সিনিয়র ক্রিকেটারদের কাছে আমি খুবই কৃতজ্ঞ। তারা সব সময় আমাকে সাপোর্ট করছেন। মাশরাফি ভাই, রিয়াদ ভাই, সাকিব ভাই, তামিম ভাই- কখনো আমাকে নেতিবাচক কিছু বলেননি। সব সময় ভালো কথা বলছে। হয়ত আমারই কোথাও ভুল ছিল। তারা বরাবর সাপোর্ট করে আমাকে। আশা করি ভবিষ্যতেও এমনটা করে যাবে।’

দলে ফেরার ব্যাপারে লিখন বেশ আত্মবিশ্বাসী। কিছু ম্যাচ খেললে সেই আত্মবিশ্বাস আরও বাড়বে বলে অভিমত তার, ‘আমি আত্মবিশ্বাসী। অনুশীলন খুবই ভালো হচ্ছে। যদি দু-তিনটা ম্যাচ খেলি, আমার আত্মবিশ্বাস আবার ফিরে আসবে। যেখানে পারি (খেপ) ম্যাচ খেলছি এবং ভালো করছি। আমার বোলিং যারা দেখছে, যারা ব্যাট করছে সবাই বলছে গতি, এক্যুরেসি ভালো হচ্ছে।’

২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় লিখনের। ২০১৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সর্বশেষ খেলেন। ৬ টেস্টে পান ১৬ উইকেট। তিন ওয়ানডেতে শিকার করেন চার উইকেট। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সুযোগ পেলেও ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত ছিলেন না লিখন। এখন ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক- দুই অঙ্গন থেকেই বাইরে তিনি। ২০১৭ সালে ডিপিএল খেললেও দল পাননি এ আসরে। ঘরোয়া ক্রিকেট না খেলেও নিজেকে প্রস্তুত রাখার মতো কঠিন কাজটাই করছেন তিনি। নিয়মিত বোলিং করছেন নেটে।

আফগানিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের প্রাথমিক স্কোয়াডে সুযোগ পেলে ১৩ মে থেকে শুরু হওয়া অনুশীলন ক্যাম্পে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবেন লিখন। সেখানে নিজেকে প্রমাণ করতে পারলে অবসান ঘটতেও পারে দীর্ঘ অপেক্ষার।

আরও পড়ুনঃ অল্প দামেই কাউন্টিতে কোহলি

1 of 1

Related Articles

ক্রিকেটের ৯০ শতাংশ দর্শকই উপমহাদেশের!

স্ট্রাইকিং প্রান্তে শুরু করতেই ভালোবাসেন তামিম

“খেলায় আপস অ্যান্ড ডাউনস থাকবেই”

আলোচিত ব্যাঙ্গালোর টেস্টে যত রেকর্ড

আফগানদের পরাজয়ে প্রোটিয়াদের স্বস্তি!