SCORE

সর্বশেষ

তামিম-রিয়াদের শতকে রান পাহাড়ে বাংলাদেশ

উইন্ডিজ সফরে মূল লড়াইয়ে নামার আগে একমাত্র দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিনে দারুণ অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হলো বাংলাদেশ। ইনিংসের শুরুতে ব্যাটিং বিপর্যয় সত্ত্বেও দিন শেষে রান পাহাড়ে চড়েছে দলটি। তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দুর্দান্ত শতকের সাথে সাকিবের অর্ধশতক দিন শেষে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে যোগ করেছে ৮ উইকেটে ৪০৩ রান।

প্রস্তুতি-ম্যাচে-উজ্জ্বল-তামিম-সাকিব

দিনের শেষটা যতটা দারুণভাবে হয়েছে, স্বাগতিকদের বিপক্ষে টস জিতে দিনের শুরুটা ঠিক ততটাই বাজেভাবে হয়েছিল সফরকারীদের। অ্যান্টিগার ক্লোলিজ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে সাকিবের আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্তের পর ২২ রানের মধ্যেই তিন উইকেট হারিয়ে বসে সফরকারীরা।

Also Read - তামিমের পর শতক হাঁকালেন রিয়াদও

একে-একে ব্যর্থ হয়ে সাজঘরে ফেরেন লিটন (২), মুমিনুল (৭) ও শান্ত (৪)। তরুণ পেসার জোসেফ তোপে এলোমেলো শট খেলতে গিয়ে ফিল্ডারদের হাতে তালুবন্দী হয়ে সাজঘরে ফেরেন টপ-অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানই। দল যখন বিপর্যয়ে তখন তামিম ইকবালের সাথে ক্রিজে যোগ দেন সাকিব আল হাসান। দল ধুঁকতে থাকলেও টাইগার কাপ্তান ইনিংস শুরু করেন দাপটের সাথে।

চাপে জমে না গিয়ে স্বাগতিক বোলারদের উপর উল্টো চড়াও হয়ে রান তুলতে থাকেন স্কোরবোর্ডে। তামিম ধীরগতিতে খেললেও লাঞ্চ ব্রেকের আগেই অর্ধশতক তুলে নেন সাকিব। ব্যক্তিগত ৫৮ রানে অপরাজিত থেকে লাঞ্চ বিরতিতে যান তিনি। স্কোরবোর্ডে বাংলাদেশের রান তখন ৩ উইকেটে ১০০, তামিম অপরাজিত ২৩ রানে। লাঞ্চ থেকে ফিরে আবারও জোসেফে বিপাকে পড়ে সফরকারীরা। এবার তার চতুর্থ শিকারে পরিণত হয় ৬৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলা সাকিব। দলীয় ১১২ রানে চতুর্থ উইকেট হারিয়ে আবার চাপে পড়ে টাইগাররা।

মাত্র ৭৯ বল মোকাবেলায় ১৪ চারে ব্যক্তিগত ৬৭ রানের কার্যকরী ইনিংসটি সাজান সাকিব আল হাসান।

তার ফিরে যাওয়ার পর দলের বিপর্যয় এড়ানোর গুরু দায়িত্ব কাঁধে আসে তামিম ও ক্রিজে সদ্য যোগ দেওয়া মাহমুদউল্লাহর। এমতাবস্থায় পঞ্চম উইকেট জুটিতে মূল্যবান ১৬৫ রানের জুটি গড়ে দলের বিপর্যয় এড়ানোর পাশাপাশি বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে নিয়ে যায় তামিম-রিয়াদ জুটি।

১৬৫ বল মোকাবেলায় ১৭ চার ৪ ছয়ে ১২৫ রানের ইনিংস খেলার পর দলের বাকি ব্যাটসম্যানদের প্রস্তুতিটা শতভাগ সেরে নেওয়ার জন্য স্বেচ্ছায় মাঠ ছাড়েন তামিম। এরপর সোহান ক্রিজে এসে ১ রান করে দ্রুত বিদায় নিলে মিরাজকে সাথে নিয়ে ষষ্ঠ উইকেটে লড়েন রিয়াদ। দুজনে মিলে গড়েন ৬২ রানের জুটি। ২৮ রান করে স্টেফার্ডের বল উড়িয়ে খেলতে গেলে তালুবন্দী হয়ে সাজঘরে ফেরেন মিরাজ। আর এতেই বিচ্ছিন্ন হয় রিয়াদ-মেহেদী জুটি।

রিয়াদের-শতক-উদযাপন

এরপর কায়েসকে সাথে নিয়ে সামনের দিকে এগোতে থাকেন রিয়াদ। ১৬ চার ও ১ ছয়ে তামিমের পর শতক (১০২) পূর্ণ করে সতীর্থদের সুবিধার্থে স্বেচ্ছায় আউট হয়ে মাঠ ছাড়েন তিনিও। দিনের শেষভাগে ৪০ রানের ইনিংস খেলে ইমরুল কায়েস ও দ্রুততম সময়ে কামরুল ইসলাম রাব্বি সাজঘরে ফিরলে ৮৪.২ ওভারেই আলো স্বল্পতার জন্য প্রথম দিনের খেলা সমাপ্ত ঘোষণা করে আম্পায়াররা।

বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে ৮ উইকেটে ৪০৩ রান যোগ করার বিপরীতে উইন্ডিজ বোলারদের মধ্যে জোসেফ ৫৩ রানের বিনিময়ে ৪টি, হার্ডিং ও রোমারলো প্রত্যেকেই একটি করে উইকেট লাভ করেন।

প্রস্তুতি ম্যাচের উইন্ডিজ প্রেসিডেন্ট একাদশ: শামার ব্রুকস (অধিনায়ক), জন ক্যাম্পবেল, ত্যাগনারায়ণ চন্দরপল, জামার হ্যামিলটন, শিমরন হেটমায়ার, আলঝারি জোসেফ, কিওন হার্ডিং, শেন মোসেলে, গুদাকেশ মতি, রোমারিও শেফার্ড, ভিশল সিং ও ওডিন স্মিথ।

উইন্ডিজ সফরের বাংলাদেশ টেস্ট দল: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, লিটন দাস, মুমিনুল হক, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, কামরুল ইসলাম রাব্বি, রুবেল হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, আবু জায়েদ রাহী, নাজমুল হোসেন শান্ত ও শফিউল ইসলাম।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ডঃ
প্রথম দিন শেষে প্রথম ইনিংসে

বাংলাদেশ ৪০৩/৮ (৮৪.২ ওভার)
তামিম ১২৫, লিটন ২, মুমিনুল ৭, শান্ত ৪, সাকিব ৬৭, মাহমুদউল্লাহ ১০১, সোহান ১, মিরাজ ২৮, ইমরুল ৪০, তাইজুল ৯*, রাব্বি ০, জোসেফ ৫৩/৪, রোমারলো ৬৭/১, হার্ডিং ৯২/১


আরও পড়ুনঃ প্রথম টি-টোয়েন্টিতে সালমাদের রুদ্ধশ্বাস জয়

Related Articles

উইকেটের সন্ধানে সাকিবরা

চন্দরপলকে ফেরালেন রাব্বি

বোলিংয়েও দারুণ শুরু বাংলাদেশের

তামিমের পর শতক হাঁকালেন রিয়াদও

শতক হাঁকিয়ে স্বেচ্ছায় মাঠ ছাড়লেন তামিম