SCORE

সর্বশেষ

দুই পেরেরার ব্যাটিংয়ে সিরিজ ড্র করল শ্রীলঙ্কা

রোমাঞ্চকর বার্বাডোজ টেস্ট! গত হয়েছে মাত্র তিন দিন… চতুর্থ দিনে জয়ের জন্য উইন্ডিজের প্রয়োজন ৫ উইকেট, শ্রীলঙ্কার ৬৩ রান! উইন্ডিজ জিতলে স্বাগতিকরা সিরিজ জিতবে ২-০ ব্যবধানে, সফরকারী শ্রীলঙ্কা জিতলে ১-১ ব্যবধানে হবে ড্র। কোন ফল দেখবে বার্বাডোজ টেস্ট? কে বা কারা-ই বা হবেন শেষ মুহূর্তের নায়ক?

দুই-পেরেরার-ব্যাটিংয়ে-সিরিজ-ড্র-করল-শ্রীলঙ্কা
জয় নিয়ে হাসিমুখে মাঠ ছাড়ছেন দিলরুয়ান পেরেরা ও কুশল পেরেরা। তাদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়েই নাটকীয় বার্বাডোজ টেস্টে শ্রীলঙ্কা পেয়েছে স্বস্তির জয়, এড়িয়েছে সিরিজ পরাজয়। ছবিঃ সিডব্লিউআই মিডিয়া

এমন অনেক প্রশ্নের উত্তর মিলেছে অবশেষে। শেষ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার জয়গান দিয়েই ইতি ঘটল নাটকীয় এই টেস্টের। আর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক সুরাঙ্গা লাকমলের দলের ৪ উইকেটের জয়ে সিরিজ পরাজয়ও এড়াল এশিয়ান পরাশক্তিরা।

এই পরাজয়ে একটু ধাক্কাই খেতে হল উইন্ডিজকে। আগামী মাসের শুরুতে আরেক এশিয়ান পরাশক্তি বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে মাঠে নামবে দলটি। তার আগে এমন পরাজয় দলের মনোবলে একটু হলেও চিড় ধরিয়েছে।

Also Read - বদলি হিসেবে এসে প্রথম দিনের নায়ক

টেস্টের চতুর্থ দিনের প্রথম সেশন শেষ হওয়ার আগেই তুলে নেওয়া এই জয়ে বড় অবদান দুই পেরেরা- দিলরুয়ান পেরেরা ও কুশল পেরেরার। কুশল মেন্ডিসের সাথে দিলরুয়ান পেরেরা ব্যাট করতে নেমেছিলেন দিনের শুরুতেই। তবে ২৫ রান করে মেন্ডিস দলীয় ৮১ রানে বিদায় নিলে চাপে পড়ে যায় শ্রীলঙ্কা। সেই চাপ অবশ্য শক্ত হাতে জয় করে নেন দিলরুয়ান ও কুশল পেরেরা। দুজনের অনবদ্য ৬৩ রানের পার্টনারশিপ শ্রীলঙ্কাকে পৌঁছে দেয় জয়ের বন্দরে।

কুশল মেন্ডিসের ২৫ রানের ইনিংসের পর এই দুজনই করেছেন ইনিংসের সেরা স্কোর। দিলরুয়ান পেরেরা ২৩ ও কুশল পেরেরা ২৮ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন জয় নিয়ে। চতুর্থ দিনের একমাত্র উইকেটটি শিকার করে ক্যারিবীয় অধিনায়ক জেসন হোল্ডার অবশ্য গড়েছেন ম্যাচে ৯ উইকেট নেওয়ার কীর্তি। শ্রীলঙ্কার ৪ উইকেটে জয় পাওয়া ম্যাচে সেরা খেলোয়াড়ও হয়েছেন তিনি। সিরিজ সেরা হয়েছেন তার সতীর্থ শেন ডওরিচ।

এর আগে ৫ উইকেটে ৯৯ রান নিয়ে নিজেদের প্রথম ইনিংসে তৃতীয় দিন খেলতে নামে শ্রীলঙ্কা। উইন্ডিজের ২০৪ রানের জবাবে এদিন ১৫৪ রানেই গুটিয়ে যায় সফরকারীরা। আর এতে শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যানদের দায়ের পাশাপাশি মূল অবদান অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের। তিনি একাই শিকার করেন চারটি উইকেট। এছাড়া শ্যানন গ্যাব্রিয়েল তিনটি এবং কেমার রোচ দুটি উইকেট শিকার করেন। শ্রীলঙ্কার পক্ষে ছিল না একটিও অর্ধশতক হাঁকানো ইনিংস।

৫০ রানের লিড নিয়ে খেলতে নেমে তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ে উইন্ডিজ ব্যাটিং লাইনআপও। লঙ্কান বোলিং তোপে স্বাগতিকরা মাত্র ৯৩ রানেই অলআউট হয়ে যায়। দলের পক্ষে দুই অঙ্কের রানের দেখা পেয়েছেন কেবল চারজন, তাও কেউই নন টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যান। রোচের ব্যাট থেকে আসা অপরাজিত ২৩ রানই ইনিংসের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ স্কোর।

লঙ্কানদের পক্ষে ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক সুরাঙ্গা লাকমল ও কাসুন রাজিথা তিনটি করে উইকেট শিকার করেন।

দিনের খেলায় নাটকীয়তা যে তখনও বাকি, সেটি আন্দাজও করতে পারেননি কেউ। চা বিরতিরও অনেকক্ষণ পর ১৪৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে আবারও ভেঙে পড়ে সফরকারীদের ব্যাটিং লাইনআপ। আবারও হোল্ডারের বোলিং তোপে লঙ্কানরা হারায় পাঁচটি উইকেট। ৫ উইকেটে ৮১ রান সংগ্রহ করে শেষ হয় দিনের খেলা। হোল্ডার একাই শিকার করেন চারটি উইকেট।

একদিনেই ২০ উইকেটের পতনের দিনে শ্রীলঙ্কাকে ম্যাচে টিকিয়ে রাখেন কুশাল মেন্ডিস। ২৫ রান নিয়ে দিবারাত্রির টেস্টটির চতুর্থ দিনে ব্যাট করতে নামেন তিনি।, যেখানে ১ রান নিয়ে তাকে সঙ্গ দেন দুলরুয়ান পেরেরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

উইন্ডিজ ২০৪ ও ৯৩

শ্রীলঙ্কা ১৫৪ ও ৮১/৫ (লক্ষ্য ১৪৪)

কুশাল পেরেরা ২৮*, কুশল মেন্ডিস ২৫, দিলরুয়ান পেরেরা ২৩*, জেসন হোল্ডার ৪১/৫, কেমার রোচ ৩৩/১

ফল- শ্রীলঙ্কা ৪ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দ্যা ম্যাচ- জেসন হোল্ডার

ম্যান অব দ্যা সিরিজ- শেন ডওরিচ

সিরিজ- ১-১ সমতায় ড্র

আরও পড়ুনঃ কেমন আছেন নাসির?

Related Articles

পাকিস্তানের রান বন্যার ইনিংসে যত রেকর্ড

৯ উইকেটের ৮ টিই মহারাজের

জিম্বাবুয়েকে ২৪৪ রানে হারাল পাকিস্তান

সাঈদ আনোয়ারের রেকর্ড ভাঙলেন ফাখর জামান

২০১৯ সালের আগস্টে হবে আগামী অ্যাশেজ