SCORE

সর্বশেষ

বল টেম্পারিংয়ের শাস্তির বিরুদ্ধে চান্দিমালের আপিল

উইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার সেন্ট লুসিয়া টেস্টে বল টেম্পারিং ইস্যুতে লঙ্কান অধিনায়ক দীনেশ চান্দিমালকে দেওয়া শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করেছেন চান্দিমাল নিজে।

সমান্তরালে এগোচ্ছে সেন্ট লুসিয়া টেস্ট
বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ সম্পর্কে জানার পর আম্পায়ারদের সাথে আলোচনা করছিলেন চান্দিমাল। ছবিঃ গেটি ইমেজ

চান্দিমালের দাবি, তিনি ঐ মুহূর্তে বল টেম্পারিং করেননি। চান্দিমাল মুখ থেকে লজেন্স জাতীয় আঠাল কিছু মুখে পুরে বলে লালা স্পর্শ করিয়েছেন- এমন অভিযোগে তার বিরুদ্ধে আনা হয় টেম্পারিংয়ের অভিযোগ। যদিও চান্দিমাল ও লঙ্কান বোর্ডের দাবি, চান্দিমালের পকেটে তখন লজেন্স এবং কাজুবাদাম ছিল আর চান্দিমাল কোনটি পকেট থেকে বের করেছিলেন তা মনে নেই তার।

চান্দিমালের এই আপিলের ধারাবাহিকতায় শুনানি কবে হবে তা এখনও জানায়নি আইসিসি। তবে আপিল খুব একটা ফলপ্রসূ হওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। শ্রীলঙ্কা-উইন্ডিজ সিরিজের তৃতীয় টেস্টে লঙ্কান অধিনায়কের অংশ নেওয়ার সম্ভাবনা কমই।

Also Read - ২৬ জুন দলের সঙ্গে যোগ দেবেন সাকিব

সেন্ট লুসিয়া টেস্টের দ্বিতীয় দিন উইন্ডিজের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগের ভিত্তিতে ফুটেজ ঘেঁটে তৃতীয় দিন এ সম্পর্কে অবহিত করেন ম্যাচ অফিসিয়ালরা। এরই প্রেক্ষিতে গত রোববার (১৭ জুন) লঙ্কান অধিনায়ক দীনেশ চান্দিমালকে চার্জ করে আইসিসি। কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় টেস্ট শেষ হওয়ার পর মঙ্গলবার (১৯ জুন) চান্দিমালকে শাস্তি দেয় বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। শাস্তির আওতায় সেন্ট লুসিয়া টেস্টের কোনো ফিই পাবেন না চান্দিমাল, সেই সাথে খেলতে পারবেন না শ্রীলঙ্কার আগামী টেস্টে।

সেন্ট লুসিয়া টেস্টের দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে আম্পায়াররা ফুটেজ দেখে বল টেম্পারিং সম্পর্কে জানতে পারার পর তৃতীয় দিনের শুরুতে বল পাল্টানোর তথা নতুন বল নামানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। তবে এই গুরুতর ব্যাপারটি লঙ্কানরা জানতে পারেন তৃতীয় দিন মাঠে নামার নির্ধারিত সময়ের মিনিট দশেক আগে।

দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষদিকে গড়ালে একটি উইকেটের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছিল সফরকারী শ্রীলঙ্কা। এমন সময়ে বল টেম্পারিং হয়েছে- এই খবর পেলে দুই অন-ফিল্ড আম্পায়ার আলিম দার ও ইয়ান গোল্ড এবং টিভি আম্পায়ার রিচার্ড ক্যাটেলবরো বল টেম্পারিং সম্পর্কে অবগত হন। ব্রডকাস্টারের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় ফুটেজ সংগ্রহের পর পরের দিন সকালে তা যাচাই করেন আম্পায়াররা। এ সময় দেখা যায়, পকেটে হাত দিয়ে লজেন্স জাতীয় কিছু বের করে চান্দিমাল মুখে পুরেন এবং এরপর লালা দিয়ে ভিজিয়ে বলটিকে বোলার লাহিরু কুমারার কাছে হস্তান্তর করেন।

এই ফুটেজ দেখে আম্পায়াররা বল টেম্পারিংয়ের ব্যাপারে নিশ্চিত হন। এরই ধারাবাহিকতায় তৃতীয় দিনের খেলা শুরুর আগে তারা শ্রীলঙ্কাকে পাঁচ রান জরিমানা করেন। এ সময় ‘প্রমাণ ছাড়া অভিযোগ আনয়ন’ এর দাবি এনে খেলা বয়কট করে লঙ্কান দল। দীর্ঘ প্রায় দুই ঘণ্টা পর তারা মাঠে প্রবেশ করলে অবশেষে ঐ দিনের খেলা শুরু হয়।

অবশ্য এতেও জড়িয়ে ছিল নাটকীয়তা। শ্রীলঙ্কা মাঠে না নামার অনড় অবস্থানে থাকলে ম্যাচ রেফারি জাভাগাল শ্রীনাথ সকাল সাড়ে এগারোটার মধ্যে মাঠে নেমে খেলা শুরুর নির্দেশ দেন, অন্যথায় জানানো হয়- এই ম্যাচ শ্রীলঙ্কা উইথড্র করেছে বলে ধরে নেওয়া হবে। শেষপর্যন্ত শ্রীলঙ্কা বেঁধে দেওয়া সময়ের শেষমুহূর্তে মাঠে নামে।

আরও পড়ুনঃ নতুন কোচ নন বড় কোনো ‘ফ্যাক্টর’

Related Articles

প্রস্তুতিতে সন্তুষ্ট লিটন দাস

বিশ্বকাপের আগে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলবেন নারীরা

বল হাতে দ্যুতি ছড়িয়েছেন মোসাদ্দেক

মোসাদ্দেকের চতুর্থ শিকারে বিপর্যস্ত গেইলরা

গেইল-প্যাটারসনকে সম্মাননা জানানোর ম্যাচে মাঠে নামছে টাইগাররা