SCORE

সর্বশেষ

স্কটল্যান্ড-আয়ারল্যান্ডের কাছে ক্ষমা চেয়েছে আইসিসি

রাশিয়ায় চলছে স্পোর্টসের সবচেয়ে বড় ‘শো’ ফুটবল বিশ্বকাপ। বিশ্বের সবাই ব্যস্ত এই বিশ্বকাপেই। এরই মাঝে চলছে বেশ কয়েকটি ক্রিকেট সিরিজ। উইন্ডিজ-শ্রীলঙ্কা মধ্যকার টেস্ট সিরিজ, ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে এবং আয়ারল্যান্ড-স্কটল্যান্ড-নেদারল্যান্ড ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ফুটবল বিশ্বকাপ নিয়ে মাতামাতিতে ব্যস্ত ক্রিকেট প্রেমীরাও।

স্কটল্যান্ড-আয়ারল্যান্ডের কাছে ক্ষমা চেয়েছে আইসিসি
ছবিঃ গেটি

তাইতো মিস করে যাচ্ছে ক্রিকেটের রোমাঞ্চগুলো। উইন্ডিজের বিপক্ষে বল টেম্পারিংয়ের কারণে জরিমানা করা হয়েছে শ্রীলঙ্কা টেস্ট অধিনায়ক দীনেশ চান্দিমালকে। ফুটবল বিশ্বকাপের মাঝে যেন সেটি ধামাচাপা পড়ে গিয়েছে। কম যায়নি ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া মধ্যকার ওয়ানডে সিরিজও। দুই দলের মধ্যকার তৃতীয় ওয়ানডেতে ট্রেন্ট ব্রিজে পাহাড়সম রান করেছে ইংল্যান্ড।

এইদিকে ফুটবল বিশ্বকাপের কারণে চাপা পড়ে গেছে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজও। টানটান উত্তেজনার ম্যাচ উপহার দিয়েছে তিন দলই। এইদিকে রবিবার ত্রিদেশীয় সিরিজের স্কটল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচেও কম নাটকের জন্ম দেয়নি। ম্যাচ গড়িয়েছে শেষ বল পর্যন্ত। তবুও কোন ফলাফল আসেনি।

Also Read - গ্যাব্রিয়েল-বধের মন্ত্র আছে রোডসের কাছে

শেষ বলে তিন রান নিতে ব্যর্থ হয় আয়ারল্যান্ড। ফলে ম্যাচটি ‘ড্র’ ঘোষণা করে ম্যাচ অফিশিয়ালরা। কোন ফলাফল না আসায় বিতর্কের জন্ম দিয়েছে ম্যাচটি। গত বছরের ২৮ সেপ্টেম্বর আইসিসি টি-টোয়েন্টি প্লেয়িং কন্ডিশনের নিয়ম অনুযায়ী ম্যাচ টাই হলে উইকেট পতনের কোন বিবেচনা করা হবে না। তাই সুপার ওভারের মাধ্যমে নির্ধারণ করা হবে বিজয়ী দল।

আইসিসির এই নিয়ম দেখা যায়নি স্কটল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ডের ম্যাচে। তাই দুই দলের কাছে ক্ষমা চেয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থাটি। এক বিবৃতিতে তারা জানায়, ম্যাচ অফিশিয়ালরা টি-টোয়েন্টি প্লেয়িং কন্ডিশন বুঝার ভুল হওয়ায় এমনটি করেছে। এটি নিয়ে খতিয়ে দেখবে আইসিসি এবং ভবিষ্যতে যাতে না হয় সেই ব্যাপারে লক্ষ্য রাখতে বলেছে আইসিসি।

‘ম্যাচ অফিশিয়ালের এই ভুলের জন্য আয়ারল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডের কাছে আইসিসি ক্ষমা চেয়েছে। মূলত টি-টোয়েন্টি প্লেয়িং কন্ডিশন বুঝতে না পারায় এটি হয়েছে। এই নিয়ে ম্যাচ অফিশিয়ালদের সঙ্গে কথা হয়েছে। ভবিষ্যতে যাতে এই ধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখা হবে।’

এইদিকে আইসিসির করা নিয়মে ম্যাচ টাই হলে সুপার ওভারের হওয়ার কথা থাকলেও স্কটল্যান্ড এবং আয়ারল্যান্ড ক্রিকইনফোকে জানায় টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই জানিয়ে দেওয়া হয় কোন ম্যাচ টাই হলে হবেনা কোন সুপার ওভার।  ম্যাচটি সুপার ওভারে গেলে আরেকটি টেস্ট খেলুড়ে দলের বিপক্ষে জয় পেতে পারত স্কটিশরা। ২০১২ সালে বাংলাদেশকে ৩৪ রানে হারিয়েছিল স্কটল্যান্ড।

আরও পড়ুনঃ গ্যাবরিল বধের মন্ত্র আছে রোডসের কাছে

Related Articles

নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ল শ্রীলঙ্কান কোচ, অধিনায়ক ও ম্যানেজারের

আইসিসির প্রামাণ্যচিত্রে বাংলাদেশের মেয়েরা

বিশ্বকাপ শেষে বিদায় নেবেন রিচার্ডসন

জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট বাঁচাতে পদক্ষেপ নিচ্ছে আইসিসি

কঠোর হল বল টেম্পারিংয়ের শাস্তি