SCORE

সর্বশেষ

কবে হবে রিভিউয়ের সঠিক ব্যবহার?

ক্রিকেটে ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম বা ডিআরএসের প্রবর্তনই হয়েছে দলের সুবিধার জন্য। আম্পায়ারের দেওয়া কোনো সিদ্ধান্ত ভুল মনে হলে সেটি নিজের দলের পক্ষে পরিবর্তনের জন্য রিভিউ ব্যবহার করতে পারেন ফিল্ডিং দলের অধিনায়ক বা ব্যাটিং দলের ব্যাটসম্যান। রিভিউয়ে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত অপরিবর্তিত থাকলে রিভিউ নেওয়া দল নির্ধারিত সময়ের দুটি রিভিউয়ের একটি রিভিউ হারায়, তা না হলে অটুট থাকে রিভিউ সংখ্যা।

কবে-হবে-রিভিউয়ের-সঠিক-ব্যবহার

চলমান জ্যামাইকা টেস্টে আবারও বাংলাদেশের ব্যাটিং ব্যর্থতার দিনে আলোচনায় এসেছে সেই রিভিউ সিস্টেম। উইন্ডিজের ৩৫৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে গেছে মাত্র ১৪৯ রানে। ফলো অনের সুযোগ পেয়েও বাংলাদেশকে ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়ের শঙ্কা থেকে দূর করেছেন ক্যারিবীয় অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। তবে তার আগে বিতর্কের জন্ম দিয়েছিল দুইবার রিভিউ নিয়ে উইকেট বাঁচানোর সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া করার বিষয়টি।

Also Read - ওয়ানডে সিরিজের উদ্দেশে মুস্তাফিজ-বিজয়দের যাত্রা

বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসের সপ্তম ওভারের তৃতীয় বলে স্ট্রাইকিং প্রান্তে ছিলেন লিটন কুমার দাস। স্বাগতিক পেসার শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের ডেলিভারি ব্যাট না ছুঁয়ে আঘাত করে প্যাডে। বোলার-ফিল্ডাররা আউটের আবেদন জানালে আম্পায়ার এস রাভি স্বাগতিকদের পক্ষেই সাড়া দেন। এ সময় লিটন রিভিউয়ের জন্য নন-স্ট্রাইকিং প্রান্তে থাকা তামিমের দৃষ্টি কাড়লে তামিম রিভিউ না নেওয়ার পরামর্শ দেন। যদিও টিভি রিপ্লে’তে দেখা যায়, গ্যাব্রিয়েলের ডেলিভারি স্ট্যাম্পের বাইরের দিকেই যাচ্ছিল। তাই রিভিউ নিলে বেঁচে যেতেন লিটন।

রিভিউ না নেওয়ায় ভুল সিদ্ধান্তের শিকার হন লিটনের মতই আরেক উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহান। দলীয় ১১৭ রানের মাথায় ব্যাট করছিলেন তিনি। কিমো পলের ডেলিভারি আঘাত করে সোহানের প্যাডে। জোরালো আবেদনে আম্পায়ার তর্জনী উঁচিয়ে ধরলেও টিভি রিপ্লে’তে দেখা গেছে, বলটি স্ট্যাম্পে আঘাত করত না। তবে সেবারও রিভিউ নেওয়ার পক্ষপাতী ছিলেন না নন-স্ট্রাইকিং প্রান্তে থাকা সিনিয়র ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম- যিনি নিজেও একজন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানরা উইকেট টু উইকেটে বলের লাইন-লেন্থ ভালো বুঝলেও এক্ষেত্রে লিটন-সোহান-মুশফিক এবং সেই সাথে তামিম- সবাই ব্যর্থ হয়েছেন দূরদর্শিতার পরিচয় দিতে।

দল ১৪৯ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পেছনে বড় দায় ছিল উইকেট দুটির। তাই প্রশ্ন উঠছেই- কবে ডিআরএস থেকে সুবিধা আদায় করে নেওয়া শিখবে বাংলাদেশ?

আরও পড়ুন: হোল্ডারের পাঁচ উইকেট, বড় লিড পেয়েছে উইন্ডিজ

Related Articles

“বলেছি হৃদয় উজাড় করে খেলতে, দেশের জন্য খেলতে”

ঘরোয়া প্রথম শ্রেণিতে না খেলে নয় টেস্টে অংশগ্রহণ

শৃঙ্খলা ভেঙে নিষিদ্ধ গুনাথিলাকা

নিজভূমে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে

জয়ের সুবাস পাচ্ছে শ্রীলঙ্কা