Scores

সাইফউদ্দিন নাকি আরিফুল— দ্বিধায় নির্বাচকরা

দেশের ক্রিকেটের রাজসিক উত্থানের পাশাপাশি একটি আফসোস বা হতাশাও কাজ করে ক্রিকেট অঙ্গনের মানুষদের। সেটি একজন পেস বোলিং অলরাউন্ডার না থাকার। ক্রিকেটে হাঁটার সময় থেকে

‘হাথুরুসিংহেকে ক্ষমতা দেওয়াই বুমেরাং হচ্ছে’

দুঃস্বপ্নের একটি সফর কাটিয়ে আসার পর স্বভাবতই এ নিয়ে চলছে কাঁটাছেঁড়া। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের বাংলাদেশ সবার কাছেই ছিল অচেনা। সাম্প্রতিক সময়ের জৌলুস, লড়াকু মনোভাব, আগ্রাসী

এমন পারফরম্যান্সেরর কারণ খুজঁছেন হাবিবুল

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সাত ম্যাচের সাতটিতেই হেরেছে বাংলাদেশ। স্বাগতিকদের কাছে পাত্তাই পায়নি টাইগাররা। দলের এমন হতাশাজনক পারফরম্যান্সের কারণ খুঁজছেন নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন। তার মতে

“২০০ রান তাড়ার মানসিকতা তৈরি হয়নি”

নির্ধারিত ২০ ওভারের খেলা শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার রান ছিল ২২৪।  দ্রুত উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ওপর চাপ সৃষ্টি করেছিল বাংলাদেশ। রানের গতিও ছিল নিয়ন্ত্রণে। কিন্তু

টি-২০ তে দ্রুততম শতকের মালিক হলেন মিলার

ইনিংসটা শেষ হতে পারতো ০ রানেই। কিন্তু ডেভিড মিলারের কপাল ভালো। রানের খাতা খোলার আগেই পেয়েছিলেন জীবন। পূর্ণ করলেন শতক। তবে এ শতক যে অন্য

এবারও হোয়াইটওয়াশে চোখ প্রোটিয়াদের

টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশকে দাপটের সাথে হোয়াইটওয়াশ করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে তাতেও স্বাগতিকদের হোয়াইটওয়াশ ক্ষুধা মেটেনি। দলটি এবার বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করতে চাচ্ছে চলমান টি-২০

ভুগিয়েছে প্রোটিয়াদের শেষ পাঁচ ওভারই

হারের বৃত্ত থেকে বের হতে পারছে না বাংলাদেশ। টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর টি-২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচেও হেরেছে টাইগাররা। তবে স্বস্তির বিষয়, এই

‘এই ইনিংসের মূল্য নেই’

দীর্ঘদিন পর সৌম্য সরকার ফিরেছেন স্বরূপে। যদিও তিন রানের জন্য পাননি অর্ধ-শতকের দেখা। সেই সাথে হেরেছে দলও। সব মিলিয়ে ৩১ বলে ৪৭ রানের ইনিংসটিকে সৌম্য

তবু প্রাপ্তি লড়াকু মানসিকতা

হার-জিত খেলারই অংশ। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে এসে হার-জিতের চেয়েও বড় হয়ে উঠেছিল অচেনা বাংলাদেশের চেহারাখানি। খেলায় যুদ্ধের ছাপ নেই, নেই ম্যাচ বের করে আনার

বাংলাদেশ প্রসঙ্গে স্টেইনের উল্টো দাবি!

২০১৫ সাল, সর্বশেষ বিশ্বকাপের ঠিক পরের সময়টায়… বাংলাদেশ সফরের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে পরাশক্তি দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে সফরে আসার ঠিক আগ মুহূর্তে নিজেকে অব্যাহতি দিয়ে দলের

আরও একবার ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয়

ক্রিকেটীয় ক্যালেন্ডারে ‘ব্যস্ত’ ট্যাগ লাগানো বর্তমান সময়টাকে বাংলাদেশের ক্রিকেটের বিগত সময়ের সবচেয়ে বাজে সময় আখ্যা দিলে ভুল হবে না। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বশেষ ৬ ম্যাচ ধরে

‘ওরা ক্যাসিনোয় খেলতে যায়নি’

দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার দিন ক্যাসিনোতে জুয়া খেলতে গেছেন জাতীয় দলের তিন তারকা ক্রিকেটার নাসির হোসেন, তাসকিন আহমেদ ও শফিউল ইসলাম- গত

নতুন কিছু করতে হবে পেসারদের : ডোনাল্ড

টেস্ট কিংবা ওয়ানডে- দুই ফরম্যাটেই বাংলাদেশের পেসাররা  দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যানদের সামনে ছিলেন অসহায়। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১০০৪ রান দিয়েছে বাংলাদেশের বোলাররা। এখন পর্যন্ত এ

কোচের সাথে দ্বন্দ্ব মিডিয়ার সৃষ্টি!

ইনজুরির কারণে তামিম ইকবালের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শেষ টি-২০ সিরিজ শুরুর আগেই। প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে গিয়ে ইনজুরির শিকার হওয়া বাঁহাতি ওপেনার খেলতে পারেননি বেশিরভাগ ম্যাচ।

‘সবচেয়ে কঠিন এই সময়টা’

ওয়ানডে সিরিজ শেষে দলের অন্যরা টি-২০ সিরিজের প্রস্তুতি নিলেও সেই তাড়া নেই মাশরাফি বিন মুর্তজার। ওয়ানডে অধিনায়ক টি-২০ ছেড়েছেন কয়েক মাস আগে, ফলে তাঁর দক্ষিণ

‘অধিনায়ক হিসেবে চ্যালেঞ্জ এখন দেশের বাইরে ম্যাচ জেতা’

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শেষ করার পর অনেকেই অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার ক্যারিয়ারের শেষ দেখে ফেলেছিলেন। এ নিয়ে বিতর্কিত কিছু প্রতিবেদনও এসেছে গণমাধ্যমে। তবে