Scores

তামিমের কাছে অসাধারণ মুশফিকের ইনিংস

লক্ষ্য ছিল পাহাড়সম। ২১৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে যেমন উড়ন্ত সূচনা দরকার তেমনটাই এনে দিয়েছিল দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। দুই ওপেনারের

এমন উইকেটে প্রথমবার রাজ্জাক

মিরপুরের স্পিন সহায়ক উইকেটে বাংলাদেশের স্পিনারদের ঘূর্ণির কাছে পরাস্ত হয়েছে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মতো দুই দল। স্পিন বান্ধব উইকেটে এ দুই দলের বিপক্ষে টেস্ট জিতেছে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার

স্পিন সহায়ক হতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম টেস্টের উইকেট

প্রথম টেস্টের জন্য বাংলাদেশের স্কোয়াড ১৬ জনের। তার মধ্যে স্পিনার আছেন নয়জন। এরমধ্যে স্পেশালিস্ট স্পিনারের সংখ্য্যা ছয়। এমন স্কোয়াড দেখে করা যেতেই পারে উইকেটের স্পিন

মেইন বোলারদের সামনে আনতে চাননি মাশরাফি

মাত্র ৮২ রানে অলআউট হয়ে যাওয়ায় পরাজয় ছিল সময়ের ব্যাপার। এত ছোট্ট লক্ষ্য পাওয়ায় শ্রীলঙ্কার ফাইনালও নিশ্চিত হয়ে যায়। ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ লঙ্কানরা। অঘটন না

অনেক দিন দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলায় দেশের উইকেটে সমস্যা লিটনের

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ব্যর্থতার বৃত্তে বন্দী ছিলেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা ছিল ধারাবাহিকতার অভাব। হয়েছে ছন্দপতন। থিতু হয়েও গড়তে পারেনি বড় স্কোর। অপমৃত্যু ঘটেছে অনেক সম্ভাবনা জাগানিয়া

“২০০ রান তাড়ার মানসিকতা তৈরি হয়নি”

নির্ধারিত ২০ ওভারের খেলা শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার রান ছিল ২২৪।  দ্রুত উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ওপর চাপ সৃষ্টি করেছিল বাংলাদেশ। রানের গতিও ছিল নিয়ন্ত্রণে। কিন্তু

কোহলি নয়, নিজের মতো হতে চান সাব্বির

সাকিব আল হাসানের বিদায়ের পর চাপে পড়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর সাত নম্বরে ব্যাটিং করতে ক্রিজে আসেন সাব্বির রহমান। সঙ্গ দেন মুশফিকুর রহিমকে। গড়েন শত রানের

অ্যাগারে ভরসা অস্ট্রেলিয়ার

এ বছর চার টেস্ট খেলতে ভারত সফর করেছিল অস্ট্রেলিয়া। সেই সফরে ভারতের ব্যাটসম্যানদের ভালোই ভুগিয়েছিলেন স্পিনার স্টিভ ও’কিফ। পুন টেস্টে ১২ উইকেট শিকার করে দলকে

ম্যাচ জেতানো স্পেলের স্বপ্ন তাসকিনের

এখন পর্যন্ত চারটি টেস্ট খেলেছেন ডানহাতি ফাস্ট বোলার তাসকিন আহমেদ। কিন্তু সবকটিই বিদেশের মাটিতে। দেশের মাটিতে এখনো সাদা পোশাকে মাঠে নামা হয়নি বাংলাদেশের এ গতি

পরিকল্পনা করে রেখেছেন নাসির

দীর্ঘদিন পর নাসির হোসেনের মিলতে পারে টেস্টে খেলার সুযোগ। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ঘোষিত ১৪ জনের স্কোয়াডে সুযোগ পেয়েছেন নাসির। নিজের ব্যাটিং অবস্থান

“চ্যালেঞ্জিং হবে বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ”

দুই দলের জন্যই লড়াইটা বাঁচা মরার। টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে জয় ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই কোনো দলের। হারলেই কিনতে হবে দেশের ফেরার টিকিট। দুই

বড় ইনিংস খেলতে না পারাতেই পরাজয় : মাশরাফি

লক্ষ্য ছিল ২৮১ রানের। কিন্তু শুরুতেই আসা-যাওয়ার মিছিলে নামলে লক্ষ্যে পৌছানোর পথটা হয়ে উঠে আরো দূর্গম। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তাজা মনে করেন ২৮১ রান সামর্থ্যের

সেরাটা দিলে সিরিজ নিশ্চিত দ্বিতীয় ম্যাচেই

মঙ্গলবার ডাম্বুলায় দ্বিতীয় ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তাজা মনে করেন নিজেদের সেরাটা দিলে ও পরিকল্পনা বাস্তবায়ন