Score

অধিনায়ক ধোনির ডাবল সেঞ্চুরি

ওয়ানডেতে ভারতকে দুইশ’ ম্যাচ নেতৃত্ব দেওয়ার কীর্তি থেকে মাত্র এক ম্যাচ দূরে থেকেই বিদায় নেন অধিনায়কত্ব থেকে। অবশেষে সেই অপূর্ণতা দূর হলো। এশিয়া কাপে আফগানিস্তানের বিপক্ষে রোহিত শর্মাকে বিশ্রাম দেয়ায় অধিনায়কত্বের দায়িত পালন করেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। এ ম্যাচ দিয়ে পূর্ণ হলো অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির ডাবল সেঞ্চুরি।

Image result for mahendra singh dhoni

যখন ভারতের অধিনায়কত্ব ছেড়েছেন, তখন ভারতের হয়ে অধিনায়ক হিসেবে তার আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচের সংখ্যা ১৯৯।  আফগানিস্তানের বিপক্ষে নেতৃত্ব দিয়ে ভারতকে দুইশ’ আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়ার কীর্তি গড়লেন মহেন্দ্র সিং ধোনি

Also Read - অঘোষিত সেমিফাইনালের সামনে বাংলাদেশ

প্রায় দুই বছর আগে অধিনায়কত্ব ছেড়েছিলেন ধোনি। ৬৯৬ পর আবারো অধিনায়কত্ব করছেন তিনি। ১৯৯ ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়া ধোনি সুযোগ পেলেন  দুইশ’ ম্যাচের মাইলফলক স্পর্শ করার। এ সুযোগকে নিজের সৌভাগ্য হিসেবে মনে করছেন তিনি।

টস শেষে ধোনি বলেন, “আমি ঠিক নিশ্চিত নই যে আমি কোন অবস্থায় আছি। আমি ১৯৯ ওয়ানডেতে অধিনায়কত্ব করেছি,  এটি আমাকে দুইশ ম্যাচে করার সুযোগ করে দিয়েছে। এটা পুরোটাই আমার ভাগ্য এবং আমি সবসময় ভাগ্যে বিশ্বাসী। এটা আমার নিয়ন্ত্রণে নেই।  দুইশতম ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়া শুধুই আমার ভাগ্য। দুইশ পূরণ করতে পেরে ভালো লাগছে তবে  আমি মনে করিনা এটা তেমন কোনো বড় বিষয়।” 

ক্রিকেটে তৃতীয়  এবং প্রথম ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে দুইশ ম্যাচে নেতৃত্ব দানের কীর্তি গড়লেন ধোনি। এর আগে দলকে দুই শতাধিক আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিং এবং নিউজিল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক স্টিফেন ফ্লেমিং।

এর আগে ১৯৯ ম্যাচের ১১০ টিতেই দলকে জয় এনে দিয়েছেন ধোনি। ভারতকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং ওয়ানডে বিশ্বকাপের শিরোপাও এনে দিয়েছেন তিনি।

সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দেওয়া পাঁচ অধিনায়ক-

১। রিকি পন্টিং (অস্ট্রেলিয়া ও আইসিসি একাদশ)- ২৩০ ম্যাচ।

২। স্টিফেন ফ্লেমিং (নিউজিল্যান্ড)-  ২১৮ ম্যাচ।

৩। মহেন্দ্র সিং ধোনি (ভারত)- ২০০ ম্যাচ।

৪। অর্জুনা রানাতুঙ্গা (শ্রীলঙ্কা) – ১৯৩ ম্যাচ

৫। অ্যালান বর্ডার (অস্ট্রেলিয়া)- ১৭৮ ম্যাচ।

[আরও পড়ুনঃ চাপই এনে দেয় রিয়াদের নিজস্ব ছন্দ]

Related Articles

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি