অবনমন ঠেকাতে নিরপেক্ষ আম্পায়ার-ভেন্যুর দাবি সাব্বির-মুক্তারদের

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) সর্বশেষ মাসরে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছিল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। অথচ এবার দলটি এগারো রাউন্ড শেষে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে। নবম স্থানে অবস্থান করায় উঁকি দিচ্ছে অবনমনের ঝুঁকিও।

অবনমন ঠেকাতে নিরপেক্ষ আম্পায়ার-ভেন্যুর দাবি সাব্বির-মুক্তারদের

Advertisment

ডিপিএলের নিয়ম অনুযায়ী, প্রতি আসরে দুটি দলের অবনমন ঘটে। প্রথম বিভাগে ভালো করা দুটি দলের উত্থান ঘটে জায়গা হয় ডিপিএলে। রেলিগেশন লিগে এবার সাব্বির রহমান, মুক্তার আলীদের রূপগঞ্জের সঙ্গী পয়েন্ট টেবিলের একাদশ ও দ্বাদশ দল ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাব ও পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব।

এই তিন দলের লড়াইয়ে শীর্ষে থাকতে না পারলে ঘটবে অবনমন। রূপগঞ্জ অবনমন ঠেকাতে তটস্থ। আর তাই রেলিগেশন লিগের সূচি চূড়ান্ত হয়ে গেলেও বিসিবির কাছে দলটি নিরপেক্ষ ভেন্যু ও নিরপেক্ষ আম্পায়ারিংয়ের আবেদন জানিয়েছে, তবে তা একটি ম্যাচের জন্য।

ডিপিএলে আম্পায়ারিং নিয়ে বিতর্ক নতুন কিছু নয়। রেলিগেশন লিগে আম্পায়ারদের ছোটখাটো কোনো ভুলও কোনো দলকে এনে দিতে পারে অবনমনের গ্লানি। রূপগঞ্জ বিসিবি ও সিসিডিএমের কাছে আবেদন করেছে, রেলিগেশন লিগে ওল্ড ডিওএইচএসের বিপক্ষে ম্যাচটি যেন মিরপুরে অনুষ্ঠিত হয়। একইসাথে এই ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয় আইসিসি প্যানেলভুক্ত আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারিকে।

একইসাথে ম্যাচে ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম বা ডিআরএস ব্যবহারের দাবিও জানিয়েছে দলটি।

সিসিডিএম সভাপতি কাজী ইনাম আহমেদকে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ প্রতি বছর বিপুল অর্থ বিনিয়োগ করে ভালো ফলাফল অর্জন করার লক্ষ্যে ক্রিকেট দল গঠন করে। তারই ধারাবাহিকতায় গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন দলের সহিত সমান সংখ্যক পয়েন্ট অর্জন করেও নেট রানরেট পার্থক্য বিবেচনায় আমরা রানার-আপ হওয়ার গৌরব অর্জন করি। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, ২০১৯-২০ মৌসুমে ভালো দল গঠন করেও মাঠ পর্যায়ে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স ব্যর্থতায় দলটি রেলিগেশন লিগে অংশগ্রহণ করছে।’ 

চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘আপনার নিকট বিনীত অনুরোধ, ২১ জুন শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে কোনো খেলা না থাকায় লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ও ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাবের মধ্যকার খেলাটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বিধায় ম্যাচটি মিরপুরে তৃতীয় আম্পায়ারের সাহায্যে রিভিউ সুবিধাসহ আইসিসি প্যানেলভুক্ত আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারি নিয়োগ করে খেলা পরিচালনা করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।’