অভিষেকে শতক হাঁকিয়ে রেকর্ড বইয়ে কেভিন ও’ব্রায়েন

0
1763

অভিষেক টেস্টেই হাঁকিয়েছেন সেঞ্চুরি, তাও পাকিস্তানের মতো শক্তিশালী দলের বোলিং লাইনআপের বিপক্ষে। ম্যাচটি শুধু কেভিন ও’ব্রায়েনের অভিষেক টেস্টই ছিল না, ছিল তার দেশ আয়ারল্যান্ডের প্রথম টেস্ট ম্যাচও। এই অনন্য কীর্তিতে ও’ব্রায়েন জায়গা করে নিয়েছেন রেকর্ড বইয়ের পাতায়।

অভিষেকে শতক হাঁকিয়ে রেকর্ড বইয়ে কেভিন ও'ব্রায়েন

Advertisment

দেশের অভিষেক টেস্টে মাঠে নেমে শতক হাঁকানোর কীর্তি আছে মাত্র চারজন ক্রিকেটারের। তাদের নাম যে তালিকায় জ্বলজ্বল করছে, তার চতুর্থ ও সর্বশেষ সংযোজন ও’ব্রায়েন। এই তালিকায় আছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটার ও বর্তমান কোচ আমিনুল ইসলাম বুলবুলও।

ঘরের মাঠ ডাবলিনে পাকিস্তানের বিপক্ষে নিজেদের ইতিহাসের প্রথম টেস্টে দুর্দান্ত লড়াই করে আয়ারল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে কেভিন ও’ব্রায়েন খেলেন ১১৮ রানের দারুণ এক ইনিংস। এই এক ইনিংসেই আইসিসি টেস্ট ব্যাটসম্যানদের র‍্যাংকিংয়ে তিনি অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন ৪৪০ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে।

মাত্র একটি ম্যাচ বা একটি ইনিংস দিয়ে এমন উত্থানের দৃষ্টান্ত আছে খুব কমই। এমন কীর্তি দেখিয়ে এলিট তালিকায় নাম লেখানো প্রথম ব্যাটসম্যান অস্ট্রেলিয়ার চার্লস ব্যানারম্যান। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম টেস্টে তিনি করেছিলেন অপরাজিত (রিটায়ার্ড হার্ট) ১৬৫ রান, যা তাকে এনে দিয়েছিল ৪৪৭ রেটিং পয়েন্ট। তার অর্জন করা রেটিং পয়েন্ট কেউ স্পর্শ করতে না পারলেও কম যাননি অন্যরাও।

ও’ব্রায়েনের ৪৪০ পয়েন্টের চেয়ে ৮ পয়েন্ট পিছিয়ে ছিলেন ২০০০ সালে ভারতের বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে ১৪৫ রান করা বাংলাদেশি ক্রিকেটার আমিনুল ইসলাম বুলবুল। দেশের অভিষেক টেস্টে শতক হাঁকানো আরেক কীর্তিমান হলেন জিম্বাবুয়ের ডেভ হটন। ১৯৯২ সালে ভারতের বিপক্ষে দুই ইনিংসে তিনি খেলেছিলেন ১২১ ও পরাজিত ৪১ রানের দুটো জ্বলজ্বলে ইনিংস, যা তাকে এনে দিয়েছিল ৪৩১ পয়েন্ট। একটি মাত্র ম্যাচ খেলে র‍্যাংকিংয়ের পাতায় রাজসিক উত্থান ঘটানোর কারণে কেভিন ও’ব্রায়েনের নতুন কীর্তির পর চার্লস ব্যানারম্যান-আমিনুল ইসলাম বুলবুল-ডেভ হটনরা আবারও এসেছেন আলোচনায়!

আরও পড়ুনঃ রাতে বেঙ্গালোরের মুখোমুখি সাকিবরা