অলিম্পিকে টি-টেন ফরম্যাটের ক্রিকেট চান গেইল

বিশ্বের প্রায় সবগুলো ক্রীড়া ইভেন্ট নিয়ে প্রতি চার বছর পর পর বসে অলিম্পিকের আসর। বিশাল ক্রীড়াযজ্ঞের মহিমা প্রকাশ করতে অনেকে একে আখ্যা দিয়ে থাকেন ‘দ্যা গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ বলে। অথচ ক্রীড়া নিয়ে যেখানে এতো আয়োজন, সেই অলিম্পিকে নেই বিশ্বের দ্বিতীয় জনপ্রিয় খেলা ক্রিকেটের কোনো ইভেন্ট।

কোন টুর্নামেন্টে কত ছক্কা গেইলের

Advertisment

অলিম্পিকে ক্রিকেটের অস্তিত্ব ছিল শেষবার ১৯০০ সালে, যখন ক্রিকেটই ঠিকমতো মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি। এরপর থেকে আর অলিম্পিকের ময়দানে পা রাখা হয়নি ‘ভদ্রলোকের খেলা’র। ২০২৪ অলিম্পিক আসরে ক্রিকেট অন্তর্ভুক্তির জন্য আইসিসি বেশ কদিন ধরে চেষ্টা করে আসছে।

ক্রিকেট বিশ্বের বড় তারকা ক্রিস গেইল মনে করেন, অলিম্পিকে টি-টেন ফরম্যাটের ক্রিকেট অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে। এর আগে এই দাবি করেছিলেন ইংল্যান্ডের ওয়ানডে বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইয়ন মরগানও।

একটা সময় ক্রিকেট ম্যাচের ব্যাপ্তির কথা ভেবে অলিম্পিকে ক্রিকেট না রাখার কথা বলতেন অনেকে। তবে টি-টোয়েন্টি বা টি-টেন ক্রিকেটের আবির্ভাবের পর সেই দুর্ভাবনা অনেকটাই কমে গেছে। গেইল বলেন, ‘খুবই খুশি হব যদি টি-টেনকে অলিম্পিকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। সাধারণ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বলতে পারি, ক্রিকেট এতে অনেক বেশি প্রচার পাবে। খেলার উন্নতির জন্যও এটা ভালো পদক্ষেপ হবে।’

গেইল আরও মনে করেন, যুক্তরাষ্ট্রের মত অভিজাত দেশে টি-টেন প্রয়োগ করলে তা সুফল বয়ে আনতে পারে। তিনি বলেন, ‘টি-টেন লিগের জন্য যুক্তরাষ্ট্র বিরাট প্ল্যাটফর্ম। তাই ওখানেও খেলাটা হতে পারে। ক্রিকেট সেভাবে আমেরিকায় পরিচিত নয়। কিন্তু টি-টেন লিগের জন্য খুবই ভালো। ওখান থেকে আর্থিকভাবেও অনেক লাভ হতে পারে।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।