অ্যাশলে নার্সকে আইসিসির তিরস্কার

উইন্ডিজ বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি সিরিজে বেশ ভালো শুরু পায় উইন্ডিজ। সিরিজের দূর্দান্ত শুরুটা ছিল অ্যাশলে নার্সের হাত ধরেই। তবে শেষটা যেমন উইন্ডিজদের বিপক্ষে গেল, নার্সের জন্যও সিরিজের শেষটা ভালো হয়নি।

প্রথম দুই ম্যাচে ওপেনিং বোলার হিসেবে বেশ ভালো করেছিলেন নার্স। প্রথম ম্যাচের প্রথম ওভারেই তুলে নেন তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারকে। দ্বিতীয় ম্যাচে ওপেনার লিটন দাসকে আউট করেন ব্যক্তিগত প্রথম ওভারে। কিন্তু সবসময় ইতিহাস পুনরাবৃত্তি হয় না। শেষম্যাচে লিটন দাসের কাছে বেধড়ক পিটুনি খেয়েছেন এই অফ স্পিনার।

Also Read - কৌশলগত দিক থেকে অনেকের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ


লিটন দাসের কাছে মার খেয়েছেন তিনি। এক ওভারে খরচ করেছেন ১৭ রান। ইনিংসের ২য় ওভারে দুই ছয় এক চার মেরেছেন লিটন দাস। ওভারের শেষ বলে লিটন বাউন্ডারি হাঁকালে অনুপযুক্ত ভাষা ব্যবহার করেন অফ স্পিনার, যা ধরা পড়ে স্টাম্প মাইকে। নার্সের বিরুদ্ধে ম্যাচ শেষে অভিযোগ আনেন মাঠের আম্পায়াররা।

অভিযোগ নার্স মেনে নিলে আর শুনানির প্রয়োজন হয়নি। তবে এর জন্য তার নামের পাশে যোগ করা হয়েছে ১ ডিমেরিট পয়েন্ট।

সেই ম্যাচ ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে অবশ্য ১৯ রানে জিতে নিয়েছে টাইগাররা। আগে ব্যাট করে লিটন দাসের ৬২ রান ও বাকিদের মাঝারি আকারের ঝড়ো ইনিংসে পাঁচ উইকেটে ১৮৪ রান বোর্ডে জমা করে স্বাগতিকরা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিয় বিরতিতে উইকেট হারানো উইন্ডিজদের ইনিংস শেষ হয় সাত উইকেটে ১৩৫ রানে। মুস্তাফিজ নেন তিন উইকেট। ম্যাচের সাথে সাথে সিরিজও পকেটে ভরে টাইগাররা। ম্যাচসেরা হন লিটন দাস। সিরিজসেরা হয় সাকিব আল হাসান।

প্রথম ম্যাচে ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে সাত উইকেটে জয় লাভ করে উইন্ডিজরা। ২য় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ায় টাইগাররা। ম্যাচ জিতে নেয় বারো রানে।

আরো পড়ুনঃ সিরিজসেরার রেকর্ডে সাকিব

 

উইন্ডিজদের বিপক্ষে বাংলাদেশের সিরিজ জেতা হয়েছে ১-২ ব্যবধানে। প্রায় ছয় বছর পর ঘরের বাইরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতল টাইগাররা। সিরিজে ব্যাটে বলে সমান তালে লড়াই করেছেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ম্যাচসেরার পাশাপাশি গড়েছেন এক রেকর্ডও…

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন