আইপিএল খেলতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট খেলছেন না সাকিব

এপ্রিলের মাঝামাঝি সময় থেকে শুরু হবে আইপিএলের ১৪ তম আসর। নিলামে ৩ কোটি ২০ লাখ রুপি দিয়ে সাকিব আল হাসানকে দলে ভিড়িয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। এপ্রিলেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ রয়েছে বাংলাদেশের। ক্রিকবাজের খবর অনুসারে, আইপিএল খেলার জন্য টেস্ট সিরিজে থাকবেন না সাকিব।

আইপিএল খেলতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট খেলছেন না সাকিব

Advertisment

ক্রিকবাজকে আকরাম খান বলেন , “তিনি (সাকিব) আমাদেরকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ থেকে ছুটি চেয়ে একটি চিঠি দিয়েছেন কারণ তিনি আইপিএল খেলতে চান। আমরা তাকে অনুমতি দিয়ে দিয়েছি কারণ যার খেলার ইচ্ছা নেই তাকে পুশ করার কোনো অর্থ নেই।”

পিতৃত্বকালীন ছুটিতে থাকার কারণে নিউজিল্যান্ড সফরে থাকছেন না সাকিব। জাতীয় দলের হয়ে তাই একটা লম্বা বিরতিতে চলে গেলেন তিনি। 

টেস্ট ক্রিকেট থেকে এর আগে একবার বিরতি নিয়েছিলেন সাকিব। ২০১৭ সালে ক্লান্তির কারণে টেস্ট থেকে ছয় মাসের বিরতি নিয়েছিলেন এ অলরাউন্ডার।

আইপিএলের কারণে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড টেস্ট সিরিজেও না থাকতে পারেন বেশ কিছু ক্রিকেটার। আইপিএলে এ দুই দেশের ক্রিকেটাররাই জানিয়েছেন তারা পুরো টুর্নামেন্ট খেলতে পারবেন।

আইপিএল শেষ হতে পারে জুনের শুরুর দিকে। সেক্ষেত্রে এ দুই দেশের কোনো ক্রিকেটার যদি আইপিএলের প্লে অফ খেলে তাহলে তার পক্ষে জুনের ২ তারিখ থেকে শুরু হতে যাওয়া ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড সিরিজে অংশ নেওয়া হবে না। তাছাড়া বর্তমানে কোয়ারেন্টিন নীতির কারণে সিরিজ শুরুর কয়েকদিন আগেই দলের সঙ্গে যুক্ত হয়ে জৈব সুরক্ষা বলয়ে প্রবেশ করতে হবে।

আইপিএলে দল পাওয়া নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটাররা বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজ থেকেও ছুটি নিতে পারেন। তবে তা নির্ভর করছে আইপিএলের সূচি এবং কতদিন আগে জৈব সুরক্ষা বলয়ে প্রবেশ করতে হবে তার ওপর।

এছাড়া এপ্রিলে পাকিস্তান সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে এবং চার ম্যাচে টি-২০ সিরিজ খেলবে  দক্ষিণ আফ্রিকা। এপ্রিলের প্রথম দিনই পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে খেলতে নামবে প্রোটিয়ারা।

বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে সাকিবই সবচেয়ে বেশি আইপিএলে খেলেছেন। জাঁকজমকপূর্ণ এই টুর্নামেন্টে সাকিব খেলেছেন মোট ৬৩টি ম্যাচ। ৪৬টি ম্যাচে ব্যাটিং করার সুযোগ হয়েছে তার। ব্যাট হাতে করেছেন ৭৪৬ রান। স্ট্রাইকরেট ১২৬.৬৬। বল হাতে সাকিব ৬২ ইনিংসে শিকার করেছেন ৫৯টি উইকেট।