আশরাফুলদের বিপক্ষে সোহানের দুর্দান্ত শতক

খুলনায় চলতে থাকা বিসিবি সবুজ দল ও লাল দলের মধ্যকার চারদিনের ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে দ্যুতি ছড়িয়েছেন সবুজ দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহান। রান পেতে আগের দিন ইমরুল কায়েস ছাড়া যেখানে বেগ পেতে হয়েছে বাকি ব্যাটসম্যানদের সেখানে দ্বিতীয় দিন শতক তুলে নিয়েছেন এ ব্যাটসম্যান।

চারদিনের ম্যাচে শতক হাঁকিয়েছেন নুরুল হাসান সোহান।    ছবি সংগৃহীত।

তার শতকের পর অপরাজিত ১০১ রানের ইনিংসে চড়ে ৯ উইকেটে ২৮৯ রান করে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে সবুজ দল।

বাজে আউটফিল্ডের জন্য আগের দিন দুই সেশনের পর আবু নাসের ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয় দিনেও এর জন্য ব্যহত হয় খেলা। মাঠ প্রস্তুত করে দুপুর দেড়টায় শুরু হয় দ্বিতীয় দিনের খেলা। আগের দিনে ৬ উইকেটে করা ১৭৭ রান নিয়ে ব্যাট শুরু করে সবুজ দল।

Also Read - বাজে ব্যাটিং-বোলিংকে দুষলেন মাশরাফি

আগের দিনের ২৮ রান নিয়ে ১৬ রানে অপরাজিত থাকা মেহেদীর সাথে দিনের খেলা শুরু করেন সোহান। ৩১ রান করে মেহেদী আউট হলে অল্প রানের মধ্যে গুঁটিয়ে যাওয়ার শঙ্কা জাগে সবুজ দলের। তবে এক প্রান্ত থেকে উইকেট হারালেও নিজের প্রান্ত আগলে রেখে উইকেটে থেকে রান করে চলেন সোহান।

মাঠের দৈন্যতায় ভেস্তে গেল শেষ সেশনছবি সংগৃহীত।

এদিন ৮৮ বল খেলে শতকের মাইলফলক স্পর্শ করেন ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান। তার কাঙ্ক্ষিত শতকের পর দলীয় ২৮৯ রানে ইনিংস ঘোষণা করে সবুজ দল। শেষ পর্যন্ত ৮ চার ও ৪ ছক্কায় ১৩৩ বল মোকাবেলায় ১০১ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। সোহান ছাড়াও সবুজ দলের ইনিংসে দ্যুতি ছড়ান জাতীয় দলের আরেক ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েস। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে আগের দিন অর্ধশতক হাঁকিয়ে ৫৮ রানে আউট হন তিনি।

লাল দলের বোলারদের মধ্যে আলো ছড়ান আল-আমিন। ৪ উইকেট শিকার করা এ বোলারের বিপরীতে ম্যাচে ২টি উইকেট নেন আবু জায়েদ রাহী। তাছাড়া ১টি করে উইকেট নেন জুবায়ের হোসেন লিখন, তাসকিন আহমেদরা।

সবুজ দলের প্রথম ইনিংসের জবাবে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দিন শেষে ১ উইকেটের বিনিময়ে স্কোরবোর্ডে ৪৬ রান যোগ করে বিসিবি লাল দল। তাইজুল ইসলামের বলে সাইফ হাসানের উইকেট হারানোর পর সৌম্য সরকারের সাথে যোগ দিয়ে অপরাজিত থেকে দিনের খেলা শেষ করেন আল-আমিন জুনিয়র।

২১ রানে অপরাজিত থাকা সৌম্য ও রানের খাতা খোলার অপেক্ষায় থাকা আল-আমিন আজ গোড়াপত্তন করবেন তৃতীয় দিনের খেলা।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড-

দ্বিতীয় দিন শেষে,

বিসিবি সবুজ দল: প্রথম ইনিংসে ২৮৯/৯ ডিক্লেয়ার।
সোহান ১০১*, কায়েস ৫৮, মেহেদী ৩১; আল-আমিন ৩ উইকেট, রাহী ২ উইকেট।

বিসিবি লাল দল: প্রথম ইনিংসে ৪৬/১
সৌম্য ২১*, আল-আমিন ০*; তাইজুল ইসলাম ১ উইকেট।


আরও পড়ুনঃ স্ট্রিক-জনসন-মিলসদের ছাড়িয়ে গেলেন সাকিব

Related Articles

ব্যর্থ কায়েস-বিজয়

নিজ নিজ সন্তানের নাম রাখলেন ইমরুল-তাসকিন

রশিদকে সামলানোর প্রস্তুতি ছিল ইমরুলের

আর কত অবহেলিত হবেন ইমরুল কায়েস?

ম্যাচসেরা রিয়াদ জয়ের কৃতিত্ব দিলেন মুস্তাফিজকে