এই টুর্নামেন্টে অনেক চ্যালেঞ্জ : মাশরাফি

0
909

ঘরের মাঠে খেলা সবসময়ই স্বস্তির। বাংলাদেশের জন্য ঘরের বাইরের মাঠও খুব একটা অস্বস্তিকর হয়ে দাঁড়ায় না, যখন ম্যাচ থাকে উপমহাদেশের গণ্ডিতে। এশিয়া কাপ ক্রিকেটের বেশিরভাগ আসর আয়োজন করা হয়ে থাকে এই উপমহাদেশেই। তবে এবার উপমহাদেশের গণ্ডি পেরিয়ে এশিয়ার সেরা দলগুলোর লড়াই সুদূর সংযুক্ত আরব আমিরাতে। আবহাওয়া আর একটু ভিন্ন মাঠের পাশাপাশি সেখানে বাংলাদেশকে মোকাবেলা করতে হবে দারুণ ফর্মে থাকা দলগুলোকে। টাইগারদের জন্য তো টুর্নামেন্টটি বেশ চ্যালেঞ্জিংই!

এই টুর্নামেন্টে অনেক চ্যালেঞ্জ : মাশরাফি

উদ্বোধনী ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে সেটিই অকপটে স্বীকার করে নিলেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। সেই সাথে জানালেন, ভালো করতে হলে প্রথম ম্যাচকে নিতে হবে গুরুত্বের সাথে।

Advertisment

মাশরাফি বলেন, ‘প্রথম ম্যাচটা খুবই গুরুত্বপূর্ণআর এবার টুর্নামেন্টের ফরম্যাটও অন্যরকমগ্রুপ পর্বে খেলে আবার চারটা দলকে খেলতে হবেসূচিটাও দেখেন, টানা খেলাএই টুর্নামেন্টে অনেক চ্যালেঞ্জপ্রথম ম্যাচটা ভালো করলে সবদিক দিয়ে মানিয়ে নিতে সহজ হবে।’

বাংলাদেশ, ভারত কিংবা শ্রীলঙ্কার চেয়েও উষ্ণ আবহাওয়া আরব আমিরাতে। এটি বাংলাদেশের জন্য হয়ে উঠতে পারে দুশ্চিন্তার কারণ। মাশরাফি যাকে কিনা আখ্যা দিচ্ছেন খেলার ‘গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক’ হিসেবে, ‘গরম অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামকআফগানিস্তান-পাকিস্তানের জন্য হয়তো সহজ হবেতারা এখানে সব সময়ই খেলেশ্রীলঙ্কা কিছুদিন আগে টেস্ট সিরিজ খেলে গেছেতারা হয়তো কিছুটা হলেও আন্দাজ করতে পারবে।’

তবে সবকিছুর সাথে মানিয়ে নিয়ে ভালো করাই বাংলাদেশ অধিনায়কের লক্ষ্য। মাশরাফি বলেন, ‘এখানকার উইকেট-আবহাওয়ার সঙ্গে আমরা অভ্যস্ত নইআমাদের এই দলটা প্রথমবারের মতো এখানে খেলতে এসেছেপিএসএলে আমাদের দু-একজন খেলেছেএসব আমাদের হাতে নেইতার মানে এই নয় যে এসব নিয়ে পড়ে থাকবআমাদের ইতিবাচক থাকতে হবেএগুলো মানিয়ে নিতে পারলে ভালো দল হয়ে ওঠা যাবে।’

আরও পড়ুন: লিটনে আস্থা রাখছেন তামিম