ওয়ানডে সুপার লিগে শীর্ষে ওঠার হাতছানি বাংলাদেশের

মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে মঙ্গলবার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা।  এ ম্যাচে জিতলে ২০২৩ সালের আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপের পথে এক পা এগিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানে চলে যাবে বাংলাদেশ।

ওয়ানডে সুপার লিগে শীর্ষে ওঠার হাতছানি বাংলাদেশের

Advertisment

সুপার লিগে সাত ম্যাচ খেলে চার ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশ। ৪০ পয়েন্ট নিয়ে চারে আছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের সমান পয়েন্ট নিয়ে নেট রান রেটে এগিয়ে থাকায় এক, দুই ও তিনে আছে যথাক্রমে ইংল্যান্ড, পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ জিতলে এ তিন দলকে টপকে যাবে বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, এ ম্যাচ জিতলে প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কাকে সিরিজ হারাবে বাংলাদেশ।

প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে সহজেই হারিয়েছে বাংলাদেশ। তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ- এ তিন সিনিয়র ক্রিকেটারের অর্ধশতকে ভর করে ইনিংসের প্রথমে ব্যাট করা বাংলাদেশ ২৫৭ রানের পুঁজি পায়। এরপর মেহেদী হাসান মিরাজ আর মুস্তাফিজুর রহমানের দারুণ বোলিংয়ে ২৩৩ রানে থামে শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশের দুশ্চিন্তা মূলত টপ অর্ডার আর ফিল্ডিং নিয়ে। ওপেনার লিটন দাস প্রথম ম্যাচে কোনো রান না করেই ফিরে গিয়েছেন সাজঘরে। দীর্ঘদিন ধরেই ব্যর্থতার বৃত্তে লিটন। শেষ সাত ইনিংসে চারটি ডাক রয়েছে তার।  তিনে নামা সাকিব আল হাসানও ছিলেন না সাবলীল। ১৪ রান করে দানুশকা গুনাথিলাকার নির্বিষ স্পিনে আউট হয়ে যান সাকিব। মূলত, মুশফিকের ৮৪ রানের ইনিংস বাংলাদেশকে লড়াই করার পুঁজি এনে দেয়।

তিনে সাকিবের পরিসংখ্যান বেশ রঙিন। এ ক্রিকেটারের সামর্থ্যও সবার জানা। তাই তাকে নিয়ে তেমন দুশ্চিন্তায় না পড়লেও  ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৪৩ ইনিংসের ২০ ইনিংসে এক অঙ্কের ঘরে আউট হওয়া লিটনকে নিয়ে চিন্তিত অনেক। বিসিবি সভাপতিও সেই দলেই একজন।

বাংলাদেশের উইনিং কম্বিনেশন নিয়েই মাঠে নামার সম্ভাবনা বেশি। মুস্তাফিজুর রহমান চোট পেয়ে প্রথম ম্যাচে বেরিয়ে গেলেও এরপর মাঠে ফিরে বোলিং করেছেন। সেখান থেকেই অনুমান, তার এ চোট গুরুতর নয়।

প্রথম ম্যাচে সফরকারীদের প্রাপ্তি হলো ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গার ব্যাটিং আর ধনঞ্জয়া ডি সিলভার ব্যাটিং। দ্বিতীয় ম্যাচে একাদশে দেখা যেতে পারে নিরোশান ডিকভেলা আর স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়াকে।

প্রথম ম্যাচ নির্বিঘ্নে হলেও দ্বিতীয় ম্যাচে রয়েছে বৃষ্টির সম্ভাবনা। ম্যাচ শুরু হবে দুপুর একটায়।

সম্ভাব্য একাদশ

বাংলাদেশ: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদ ও মুস্তাফিজুর রহমান।

শ্রীলঙ্কা: কুশল পেরেরা (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), দানুশকা গুনাথিলাকা, পাথুম নিসাঙ্কা, কুশল মেন্ডিস, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, দাসুন শানাকা, আশেন বান্দারা/নিরোশান ডিকভেলা, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, ইসুরু উদানা, লক্ষন সান্দাকান/আকিলা ধনঞ্জয়া ও দুশমন্থ চামিরা।