কেন্দ্রীয় চুক্তিতে খেলোয়াড়ের সংখ্যা বাড়ছে না

পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে বোর্ড থেকে যারা বেতন পান, তারাই থাকেন কেন্দ্রীয় চুক্তির আওতায়। প্রত্যেক দেশের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে কারা থাকছেন এ নিয়ে থাকে জল্পনা-কল্পনা। বছর পঞ্চম মাসে গড়ালেও বাংলাদেশের এবারের কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা এখনও প্রকাশ করেনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

Advertisment

সর্বশেষ চুক্তি অনুযায়ী, লাল বলের চুক্তিতে ১১ জন ও সাদা বলের চুক্তিতে ১২ জন ক্রিকেটার রয়েছেন। সব ফরম্যাটের চুক্তিতে থাকা ক্রিকেটারের সংখ্যা ৭। আগামী চুক্তিতে খেলোয়াড়ের সংখ্যা বাড়ানো হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান জানিয়েছেন- চুক্তিতে থাকার বিষয়টি নির্ভর করছে খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের ওপর।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ পর চলমান ক্রিকেট বর্ষের চুক্তির তালিকা প্রকাশ করা হবে জানিয়ে আকরাম বলেন, ‘এটা পুরোটাই বোর্ডের সিদ্ধান্ত। এই সিরিজের পর চুক্তির খেলোয়াড়দের তালিকা দিব। এই সিরিজের ওপর অনেক কিছু নির্ভর করছে।’  

বর্তমানে সব মিলিয়ে মোট ১৭ জন খেলোয়াড় আছেন বিসিবির চুক্তিতে। চুক্তিতে থাকা খেলোয়াড়দের বাড়ানো হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে আকরাম না-সূচক জবাব দিলেন।

তিনি বলেন, ‘অন্য দেশেও তো এরকমই আছে। অন্য দেশে তিনটা ফরম্যাটে অনেক ধরনের খেলোয়াড় আছে। আমাদের এমন নেই। আমাদের ৯০ শতাংশ খেলোয়াড়ই সব ফরম্যাটে খেলে। আমরা চাই চুক্তির খেলোয়াড় সংখ্যা যেন বাড়ে। কিন্তু খেলোয়াড়দের ঐ পারফরম্যান্স তো করতে হবে।’ 

বিসিবির গত বছরের কেন্দ্রীয় চুক্তি অনুযায়ী, লাল বলের চুক্তি ছিল তামিম ইকবাল, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুমিনুল হক, নাঈম হাসান, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহী ও এবাদত হোসেনের সাথে। সাদা বলের চুক্তি ছিল তামিম ইকবাল, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মুস্তাফিজুর রহমান, আফিফ হোসেন ধ্রুব ও নাইম শেখের সাথে।