‘চাপ বেশি মনে হলে আইপিএল খেলো না’

0
474

এ বছর অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আইসিসির এই টুর্নামেন্টে বাদেও কম আন্তর্জাতিক খেলা নেই ভারতের। সামনেই আসছে আইপিএল। তাই তো ভারতীয় ক্রিকেটারদের উদ্দেশে একটি পরামর্শ দিয়েছেন দেশটির বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব।

Advertisment

অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারত তুলনামূলকভাবে একটু বেশিই ম্যাচ খেলে। যার কারণে সিরিজ অনুযায়ী অনেক সময় বিশ্রাম দেওয়া হয় দলের মূল ক্রিকেটারদের। মূলত যখনই নিজের শরীরের উপর ধকলটা বেশি যায় তখনই বিশ্রাম চান ক্রিকেটাররা। কিংবা যেকোন বড় টুর্নামেন্টের আগে সতেজ থাকতে বিশ্রাম নেন ক্রিকেটাররা।

তেমনতি বর্তমান যুগে আইপিএলের মূল্য কম নয়। দেশ-বিদেশের অধিকাংশ ক্রিকেটারেরই চোখ থাকে এই আইপিএলকে ঘিরে। তবে অনেক সময় পরিস্থিতির শিকার হয়ে টুর্নামেন্ট থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেন অনেক ক্রিকেটার। গত বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপে পুরো ফিট থাকতে নিজেদের নাম সরিয়ে নিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার বেশ কয়েকজন নামীদামী ক্রিকেটার। তেমনই ভারতীয় ক্রিকেটারদের এক পরামর্শ দিয়েছেন দেশটির কিংবদন্তী ক্রিকেটার কপিল।

এমনিতেই টানা আন্তর্জাতিক খেলার মধ্য দিয়ে রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেটাররা। সামনেই বসতে যাচ্ছে আইপিএলের মতো টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। যেখানে কিনা পাহাড়সম চাপ মাথায় নিয়ে খেলতে হয়। এতো চাপ, ধকল সহ্য করতে না পারলে আইপিএল না খেলার পরামর্শ দিয়েছেন কপিল।

“যদি তোমার মনে হয় চাপ ও ধকলটা বেশি হয়ে যাচ্ছে, তাহলে আইপিএল খেলো না। কারণ এটা তো আর তোমার দেশকে প্রতিনিধিত্ব করছে না। যদি ধকল বেশি মনে হয়, তাহলে অবশ্যই আইপিএলের সময়ে তোমার বিশ্রাম নেওয়া উচিত।”

কপিলের সময়টায় এতো ক্রিকেট খেলা ছিল না। ছিল না এখনকার মতো এতো ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লিগও। তবুও নিজের ক্যারিয়ারের একটা পর্যায়ে শরীরের উপর চাপ ও ধকল গিয়েছেন বললেন তিনি।

“হ্যাঁ, আমিও অনেকবার এই সময়টার মধ্য দিয়ে পার হয়েছি। আপনি যখন একটা পুরো সিরিজ খেলবেন এবং সিরিজে রানের সাফল্য এবং বল হাতে উইকেট পাবেন না তখনই আপনি এই ধকল এবং চাপের মধ্যে থাকবেন। এমনও হতে পারে আপনি দিনে ২০-৩০ ওভার বোলিং করেছেন এবং সাত-আট উইকেট পেয়েছেন তখন শরীরে সে ক্লান্তি অনুভব হবে না। এটি খুবই আবেগের ব্যাপার। আপনার মাইন্ড, ব্রেইনও এইভাবে কাজ করে।”